০৪:৫৬ অপরাহ্ন, রবিবার, ২১ এপ্রিল ২০২৪

ব্যাটিং ভরাডুবি বাংলাদেশের, সহজ লক্ষ্য অস্ট্রেলিয়ার

সেই পুরনো চিত্র মিরপুরে। প্রতিপক্ষের বোলারদের সামনে অসহায় আত্মসমর্পণ। তারপর…। অস্ট্রেলিয়ার নারী দলের বিপক্ষে প্রথম দুই ম্যাচ হেরে আগেই ওয়ানডে সিরিজ খুইয়েছে স্বাগতিক মেয়েরা। হোয়াইটওয়াশ এড়ানোর ম্যাচে প্রথমে ব্যাট করতে নেমে আগের দুই ম্যাচের মতো আজও ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়ল নিগার সুলতানা জ্যোতিরা।

৫০ ওভারের ম্যাচে অজি বোলারদের তোপে মোটে ২৬ দশমিক ২ ওভার খেলতে পারল টিম টাইগ্রেস। সবকটি উইকেট হারিয়ে ৮৯ রানে অলআউট হয়ে গেছে বাংলার মেয়েরা। এ নিয়ে তিন ম্যাচ সিরিজে কোনোটিতেই দলীয় রান একশ ছাড়াতে পারেনি স্বাগতিকরা।

প্রথম ম্যাচে ২১৪ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে ৯৫ রানে থেমেছিল বাংলাদেশের ইনিংস। এরপর সিরিজ হারের ম্যাচে আগে ব্যাট করতে নেমে ৯৭ রানে অলআউট হয় জ্যোতিরা। আর আজ মান বাঁচানোর ম্যাচে গুটিয়ে গেল মাত্র ৮৯ রানে। বাংলাদেশ নারী দলের এটি যৌথভাবে ষষ্ঠ সর্বনিম্ন সংগ্রহ ওডিআইতে।

পুরো সিরিজেই নিজের ছায়া হয়ে থাকলেন অধিনায়ক জ্যোতি। যার প্রভাব পড়েছে দলের ব্যাটিংয়েও।
মিরপুর শের-ই-বাংলায় এদিন টস হেরে ব্যাট করতে নেমে রানের খাতা খোলার আগেই উইকেট হারায় বাংলাদেশ। সোবহানা মোস্তারির বদলে একাদশে জায়গা পাওয়া সুমাইয়া আক্তার শূন্য রানে ফেরেন। এরপর দলীয় ৮ রানে আরেক ওপেনার ফারজানা হক বিদায় নিলেন।

স্কোরবোর্ডে ৩২ রান যোগ করতেই টপঅর্ডারে মড়ক লাগে স্বাগতিকদের। দুই ওপেনারের ব্যর্থতার পর আসা-যাওয়ার মিছিলে ছিলেন মুর্শিদা, রিতু মনি ও ফাহিমা খাতুনরাও। অধিনায়ক নিগার সুলতানা জ্যোতি হাল ধরার চেষ্টা চালালেও ইনিংস বড় করতে পারলেন না।

ব্যাটারদের ব্যর্থতার দিনে মান বাঁচানোর চেষ্টা করে গেলেন বোলাররা। ইনিংসের সবচেয়ে বড় জুটিটা এসেছে দুই টেলএন্ডার ব্যাটারের কাছ থেকে। দশম উইকেটে মারুফা আক্তার ও সুলতানা খাতুনের জুটিতে ২২ বলে ২৬ রানের সুবাদে দলীয় সংগ্রহ ৮৯ রানে গিয়ে থামে।

দলের হয়ে সর্বোচ্চ ১৬ রান এসেছে অধিনায়ক নিগার সুলতানা জ্যোতির ব্যাট থেকে। দুই অঙ্কের ঘরে পৌঁছাতে পেরেছেন কেবল চারজন। টাইগ্রেস পেসার মারুফা আক্তার অপরাজিত থাকেন ১৫ রানে।

অস্ট্রেলিয়ার হয়ে সর্বোচ্চ ৩ টি করে উইকেট সংগ্রহ করেছেন কিম গ্রার্থ এবং অ্যাশলে গার্ডনার। এ ছাড়া এলিসা পেরি নেন ২ উইকেট। প্রথমবার সিরিজ খেলতে এসেই বাংলাদেশকে হোয়াইটওয়াশ করতে অস্টেলিয়াকে করতে হবে ৯০ রান।

বিজনেস বাংলাদেশ/একে

 

জনপ্রিয়

ব্যাটিং ভরাডুবি বাংলাদেশের, সহজ লক্ষ্য অস্ট্রেলিয়ার

প্রকাশিত : ১২:৩৯:০০ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৭ মার্চ ২০২৪

সেই পুরনো চিত্র মিরপুরে। প্রতিপক্ষের বোলারদের সামনে অসহায় আত্মসমর্পণ। তারপর…। অস্ট্রেলিয়ার নারী দলের বিপক্ষে প্রথম দুই ম্যাচ হেরে আগেই ওয়ানডে সিরিজ খুইয়েছে স্বাগতিক মেয়েরা। হোয়াইটওয়াশ এড়ানোর ম্যাচে প্রথমে ব্যাট করতে নেমে আগের দুই ম্যাচের মতো আজও ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়ল নিগার সুলতানা জ্যোতিরা।

৫০ ওভারের ম্যাচে অজি বোলারদের তোপে মোটে ২৬ দশমিক ২ ওভার খেলতে পারল টিম টাইগ্রেস। সবকটি উইকেট হারিয়ে ৮৯ রানে অলআউট হয়ে গেছে বাংলার মেয়েরা। এ নিয়ে তিন ম্যাচ সিরিজে কোনোটিতেই দলীয় রান একশ ছাড়াতে পারেনি স্বাগতিকরা।

প্রথম ম্যাচে ২১৪ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে ৯৫ রানে থেমেছিল বাংলাদেশের ইনিংস। এরপর সিরিজ হারের ম্যাচে আগে ব্যাট করতে নেমে ৯৭ রানে অলআউট হয় জ্যোতিরা। আর আজ মান বাঁচানোর ম্যাচে গুটিয়ে গেল মাত্র ৮৯ রানে। বাংলাদেশ নারী দলের এটি যৌথভাবে ষষ্ঠ সর্বনিম্ন সংগ্রহ ওডিআইতে।

পুরো সিরিজেই নিজের ছায়া হয়ে থাকলেন অধিনায়ক জ্যোতি। যার প্রভাব পড়েছে দলের ব্যাটিংয়েও।
মিরপুর শের-ই-বাংলায় এদিন টস হেরে ব্যাট করতে নেমে রানের খাতা খোলার আগেই উইকেট হারায় বাংলাদেশ। সোবহানা মোস্তারির বদলে একাদশে জায়গা পাওয়া সুমাইয়া আক্তার শূন্য রানে ফেরেন। এরপর দলীয় ৮ রানে আরেক ওপেনার ফারজানা হক বিদায় নিলেন।

স্কোরবোর্ডে ৩২ রান যোগ করতেই টপঅর্ডারে মড়ক লাগে স্বাগতিকদের। দুই ওপেনারের ব্যর্থতার পর আসা-যাওয়ার মিছিলে ছিলেন মুর্শিদা, রিতু মনি ও ফাহিমা খাতুনরাও। অধিনায়ক নিগার সুলতানা জ্যোতি হাল ধরার চেষ্টা চালালেও ইনিংস বড় করতে পারলেন না।

ব্যাটারদের ব্যর্থতার দিনে মান বাঁচানোর চেষ্টা করে গেলেন বোলাররা। ইনিংসের সবচেয়ে বড় জুটিটা এসেছে দুই টেলএন্ডার ব্যাটারের কাছ থেকে। দশম উইকেটে মারুফা আক্তার ও সুলতানা খাতুনের জুটিতে ২২ বলে ২৬ রানের সুবাদে দলীয় সংগ্রহ ৮৯ রানে গিয়ে থামে।

দলের হয়ে সর্বোচ্চ ১৬ রান এসেছে অধিনায়ক নিগার সুলতানা জ্যোতির ব্যাট থেকে। দুই অঙ্কের ঘরে পৌঁছাতে পেরেছেন কেবল চারজন। টাইগ্রেস পেসার মারুফা আক্তার অপরাজিত থাকেন ১৫ রানে।

অস্ট্রেলিয়ার হয়ে সর্বোচ্চ ৩ টি করে উইকেট সংগ্রহ করেছেন কিম গ্রার্থ এবং অ্যাশলে গার্ডনার। এ ছাড়া এলিসা পেরি নেন ২ উইকেট। প্রথমবার সিরিজ খেলতে এসেই বাংলাদেশকে হোয়াইটওয়াশ করতে অস্টেলিয়াকে করতে হবে ৯০ রান।

বিজনেস বাংলাদেশ/একে