০৩:০৩ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৮ মে ২০২৪

ইসরায়েলে বড় আকারের রকেট হামলা চালাল হিজবুল্লাহ

ছবি সংগৃহীত

ইসরায়েলের উত্তরাঞ্চলে সামরিক ঘাঁটিতে বড় আকারে রকেট হামলা চালিয়েছে লেবাননের সশস্ত্র গোষ্ঠী হিজবুল্লাহ। দক্ষিণ লেবাননের গ্রাম লক্ষ্য করে ইসরায়েলি হামলার জবাবে উত্তর ইসরায়েলের সেনা সদর দপ্তর লক্ষ্য করে এই হামলা চালানো হয়েছে বলে জানা গেছে।

মঙ্গলবার (২৩ এপ্রিল) এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে বার্তাসংস্থা এএফপি।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, উত্তর ইসরায়েলের একটি সেনা সদর দপ্তর লক্ষ্য করে কয়েক ডজন কাতিউশা রকেট নিক্ষেপ করা হয়েছে। হামলার বিষয়টি নিশ্চিত করেছে খোদ হিজবুল্লাহ। তারা বলছে, দক্ষিণ লেবাননের বিভিন্ন গ্রাম লক্ষ্য করে ইসরায়েলের হামলার জবাবে এই হামলা চালানো হয়েছে।

এ হামলা প্রসঙ্গে হিজবুল্লাহ এক বিবৃতিতে বলেছে, তারা উত্তর ইসরায়েলের আইন জেইটিম ঘাঁটিতে ৯১ তম ডিভিশনের তৃতীয় পদাতিক ব্রিগেডের সদর দপ্তরে কয়েক ডজন কাতিউশা রকেট দিয়ে বোমাবর্ষণ করেছে। অতি সম্প্রতি শ্রীফা, ওদাইসেহ এবং রাব তলাতিনে হামলাসহ লেবাননের দক্ষিণাঞ্চলে অবস্থিত বিভিন্ন গ্রাম এবং বেসামরিক বাড়িঘরে ইসরায়েলি আক্রমণের প্রতিক্রিয়ায় এই হামলা চালানো হয়েছে।

গতকাল সোমবার (২২ এপ্রিল) ওই তিনটি গ্রামে ইসরায়েলি হামলার খবর দিয়েছে লেবাননের সরকারি ন্যাশনাল নিউজ এজেন্সিও (এনএনএ)।

এদিকে সবশেষ হামলা প্রসঙ্গে ইসরায়েলি সামরিক বাহিনী জানিয়েছে, লেবানন থেকে উত্তর ইসরায়েলের আইন জেইটিম এলাকায় নিক্ষেপ করা আনুমানিক ৩৫টি রকেট চিহ্নিত করা হয়েছে, তবে কোনও আঘাতের খবর পাওয়া যায়নি। ইসরায়েলি সৈন্যরা এর প্রতিক্রিয়ায় রকেট নিক্ষেপের উৎস স্থানগুলোতে পাল্টা হামলা করেছে বলেও জানিয়েছে তারা।

গত বছরের ৭ অক্টোবর থেকে হামাসের ওপর প্রতিশোধস্বরূপ গাজায় আগ্রাসন শুরু করে ইসরায়েল। এরপর থেকেই ইসরায়েল-লেবানন সীমান্তে উত্তেজনা ব্যাপকভাবে ছড়িয়েছে। প্রায় প্রতিদিনই আন্তঃসীমান্ত গুলি বিনিময় হচ্ছে ইসরায়েলি সেনাবাহিনী ও ইরান-সমর্থিত হিজবুল্লাহর মধ্যে।

সম্প্রতি ইসরায়েল-ইরান উত্তেজনা সর্বকালের সর্বোচ্চ উচ্চতায় পৌঁছেছে এবং এর মধ্যেই লেবাননের সশস্ত্র শিয়া গোষ্ঠীটি সীমান্তের ওপারে ইসরায়েলের সামরিক লক্ষ্যবস্তুতে আক্রমণ আরও জোরদার করেছে।

বার্তাসংস্থা এএফপির তথ্য অনুযায়ী, গত বছরের ৭ অক্টোবর থেকে হিজবুল্লাহ এবং ইসরায়েলের এই লড়াইয়ে এখন পর্যন্ত লেবাননে কমপক্ষে ৩৭৬ জন প্রাণ হারিয়েছেন। নিহতদের বেশিরভাগই হিজবুল্লাহ যোদ্ধা। এছাড়া নিহতদের মধ্যে ৭০ জন বেসামরিক নাগরিকও রয়েছেন। অন্যদিকে হিজবুল্লাহর হামলায় ১০ জন সৈন্য ও ৮ জন বেসামরিক নাগরিকসহ মোট ১৮ জন ইসরায়েলি নিহত হয়েছে।

বিজনেস বাংলাদেশ/DS

ইসরায়েলে বড় আকারের রকেট হামলা চালাল হিজবুল্লাহ

প্রকাশিত : ০২:১৫:৪৪ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৩ এপ্রিল ২০২৪

ইসরায়েলের উত্তরাঞ্চলে সামরিক ঘাঁটিতে বড় আকারে রকেট হামলা চালিয়েছে লেবাননের সশস্ত্র গোষ্ঠী হিজবুল্লাহ। দক্ষিণ লেবাননের গ্রাম লক্ষ্য করে ইসরায়েলি হামলার জবাবে উত্তর ইসরায়েলের সেনা সদর দপ্তর লক্ষ্য করে এই হামলা চালানো হয়েছে বলে জানা গেছে।

মঙ্গলবার (২৩ এপ্রিল) এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে বার্তাসংস্থা এএফপি।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, উত্তর ইসরায়েলের একটি সেনা সদর দপ্তর লক্ষ্য করে কয়েক ডজন কাতিউশা রকেট নিক্ষেপ করা হয়েছে। হামলার বিষয়টি নিশ্চিত করেছে খোদ হিজবুল্লাহ। তারা বলছে, দক্ষিণ লেবাননের বিভিন্ন গ্রাম লক্ষ্য করে ইসরায়েলের হামলার জবাবে এই হামলা চালানো হয়েছে।

এ হামলা প্রসঙ্গে হিজবুল্লাহ এক বিবৃতিতে বলেছে, তারা উত্তর ইসরায়েলের আইন জেইটিম ঘাঁটিতে ৯১ তম ডিভিশনের তৃতীয় পদাতিক ব্রিগেডের সদর দপ্তরে কয়েক ডজন কাতিউশা রকেট দিয়ে বোমাবর্ষণ করেছে। অতি সম্প্রতি শ্রীফা, ওদাইসেহ এবং রাব তলাতিনে হামলাসহ লেবাননের দক্ষিণাঞ্চলে অবস্থিত বিভিন্ন গ্রাম এবং বেসামরিক বাড়িঘরে ইসরায়েলি আক্রমণের প্রতিক্রিয়ায় এই হামলা চালানো হয়েছে।

গতকাল সোমবার (২২ এপ্রিল) ওই তিনটি গ্রামে ইসরায়েলি হামলার খবর দিয়েছে লেবাননের সরকারি ন্যাশনাল নিউজ এজেন্সিও (এনএনএ)।

এদিকে সবশেষ হামলা প্রসঙ্গে ইসরায়েলি সামরিক বাহিনী জানিয়েছে, লেবানন থেকে উত্তর ইসরায়েলের আইন জেইটিম এলাকায় নিক্ষেপ করা আনুমানিক ৩৫টি রকেট চিহ্নিত করা হয়েছে, তবে কোনও আঘাতের খবর পাওয়া যায়নি। ইসরায়েলি সৈন্যরা এর প্রতিক্রিয়ায় রকেট নিক্ষেপের উৎস স্থানগুলোতে পাল্টা হামলা করেছে বলেও জানিয়েছে তারা।

গত বছরের ৭ অক্টোবর থেকে হামাসের ওপর প্রতিশোধস্বরূপ গাজায় আগ্রাসন শুরু করে ইসরায়েল। এরপর থেকেই ইসরায়েল-লেবানন সীমান্তে উত্তেজনা ব্যাপকভাবে ছড়িয়েছে। প্রায় প্রতিদিনই আন্তঃসীমান্ত গুলি বিনিময় হচ্ছে ইসরায়েলি সেনাবাহিনী ও ইরান-সমর্থিত হিজবুল্লাহর মধ্যে।

সম্প্রতি ইসরায়েল-ইরান উত্তেজনা সর্বকালের সর্বোচ্চ উচ্চতায় পৌঁছেছে এবং এর মধ্যেই লেবাননের সশস্ত্র শিয়া গোষ্ঠীটি সীমান্তের ওপারে ইসরায়েলের সামরিক লক্ষ্যবস্তুতে আক্রমণ আরও জোরদার করেছে।

বার্তাসংস্থা এএফপির তথ্য অনুযায়ী, গত বছরের ৭ অক্টোবর থেকে হিজবুল্লাহ এবং ইসরায়েলের এই লড়াইয়ে এখন পর্যন্ত লেবাননে কমপক্ষে ৩৭৬ জন প্রাণ হারিয়েছেন। নিহতদের বেশিরভাগই হিজবুল্লাহ যোদ্ধা। এছাড়া নিহতদের মধ্যে ৭০ জন বেসামরিক নাগরিকও রয়েছেন। অন্যদিকে হিজবুল্লাহর হামলায় ১০ জন সৈন্য ও ৮ জন বেসামরিক নাগরিকসহ মোট ১৮ জন ইসরায়েলি নিহত হয়েছে।

বিজনেস বাংলাদেশ/DS