০৩:৫০ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২১ মে ২০২৪

বগুড়ায় জাল ভোট: ২ সহকারী প্রিজাইডিং অফিসারকে অব্যাহতি

বগুড়ার গাবতলী উপজেলার সোনারায় উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রের দুটি বুথে জাল ভোট দেওয়ার ঘটনায় দায়িত্বে অবহেলার অভিযোগে ২ সহকারী প্রিজাইডিং অফিসারকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে।

বুধবার (৮ মে) বেলা ১২টার দিকে তাদের দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়।

দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি পাওয়া দুই কর্মকর্তা হলেন, হাফিজার রহমান ও আব্দুল মোত্তালিব। এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন কেন্দ্রের প্রিজাইডিং অফিসার এটিএম আমিনুর ইসলাম।

সরেজমিনে সকাল ১০টায় ওই কেন্দ্রে গিয়ে দেখা যায়, প্রায় তিন থেকে চার সারি পুরুষ ভোটার দাঁড়িয়ে ছিলেন। তবে ওপরে ভোট কক্ষে ভোটগ্রহণ কর্মকর্তাদের অলস বসে থাকতে দেখা যায়। পরে প্রিজাইডিং কর্মকর্তার সঙ্গে কথা বলতে গেলে দেখা যায়, তাদের কক্ষের দরজা বাইরে থেকে আটকানো।

পরে জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট সাদিয়া আফসানা রিমার নেতৃত্বে মোবাইল কোর্ট এসে ঘটনার সত্যতা পায়। এ ঘটনায় ২ সহকারী প্রিজাইডিং অফিসারকে দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়। তাদের বিরুদ্ধে নির্বাচন কমিশন ব্যবস্থা নেবে বলে মোবাইল কোর্ট জানায়।

এ দিকে সহকারী প্রিজাইডিং অফিসারদের দাবি, ১০ থেকে ১৫ জন অজ্ঞাত ব্যক্তি এসে তাদের কাছ থেকে ব্যালট বই ছিনিয়ে নেয়।

এ ব্যাপারে প্রিজাইডিং কর্মকর্তা ও আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যদের জানানো হলেও তারা কোনো ব্যবস্থা নেননি বলে অভিযোগ করেন তারা।

বিজনেস বাংলাদেশ/একে

বগুড়ায় জাল ভোট: ২ সহকারী প্রিজাইডিং অফিসারকে অব্যাহতি

প্রকাশিত : ০৩:৫৯:৫৩ অপরাহ্ন, বুধবার, ৮ মে ২০২৪

বগুড়ার গাবতলী উপজেলার সোনারায় উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রের দুটি বুথে জাল ভোট দেওয়ার ঘটনায় দায়িত্বে অবহেলার অভিযোগে ২ সহকারী প্রিজাইডিং অফিসারকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে।

বুধবার (৮ মে) বেলা ১২টার দিকে তাদের দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়।

দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি পাওয়া দুই কর্মকর্তা হলেন, হাফিজার রহমান ও আব্দুল মোত্তালিব। এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন কেন্দ্রের প্রিজাইডিং অফিসার এটিএম আমিনুর ইসলাম।

সরেজমিনে সকাল ১০টায় ওই কেন্দ্রে গিয়ে দেখা যায়, প্রায় তিন থেকে চার সারি পুরুষ ভোটার দাঁড়িয়ে ছিলেন। তবে ওপরে ভোট কক্ষে ভোটগ্রহণ কর্মকর্তাদের অলস বসে থাকতে দেখা যায়। পরে প্রিজাইডিং কর্মকর্তার সঙ্গে কথা বলতে গেলে দেখা যায়, তাদের কক্ষের দরজা বাইরে থেকে আটকানো।

পরে জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট সাদিয়া আফসানা রিমার নেতৃত্বে মোবাইল কোর্ট এসে ঘটনার সত্যতা পায়। এ ঘটনায় ২ সহকারী প্রিজাইডিং অফিসারকে দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়। তাদের বিরুদ্ধে নির্বাচন কমিশন ব্যবস্থা নেবে বলে মোবাইল কোর্ট জানায়।

এ দিকে সহকারী প্রিজাইডিং অফিসারদের দাবি, ১০ থেকে ১৫ জন অজ্ঞাত ব্যক্তি এসে তাদের কাছ থেকে ব্যালট বই ছিনিয়ে নেয়।

এ ব্যাপারে প্রিজাইডিং কর্মকর্তা ও আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যদের জানানো হলেও তারা কোনো ব্যবস্থা নেননি বলে অভিযোগ করেন তারা।

বিজনেস বাংলাদেশ/একে