০৪:০২ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২১ মে ২০২৪

রাফায় দফায় দফায় ইসরায়েলের হামলা, নিহত ৫৫

যুদ্ধবিরতি আলোচনা অব্যাহত থাকা সত্ত্বেও গাজার দক্ষিণাঞ্চলীয় রাফায় দফায় দফায় হামলা চালিয়েছে ইসরায়েল। গাজায় ইসরায়েলি বাহিনীর হামলায় আরও ৫৫ ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছেন। বুধবার (৮ মে) এসব কথা জানায় গাজার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়।

আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের উদ্বেগ এবং হামাসের যুদ্ধবিরতি চুক্তি মেনে নেওয়ার ঘোষণা উপেক্ষা করে মঙ্গলবার মিসর সীমান্তবর্তী রাফা ক্রসিংয়ের নিয়ন্ত্রণ নেয় ইসরায়েলি বাহিনী। পরে রাফার পূর্ব ও মধ্যাঞ্চলসহ গাজার বিভিন্ন এলাকায় দফায় দফায় হামলা চালানো হয়।

এদিকে যুদ্ধবিরতির আলোচনায় অংশ নিতে মিসরের রাজধানী কায়রোয় অবস্থান করছে ইসরায়েল ও হামাস প্রতিনিধিদল। তবে বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে একজন ইসরায়েলি কর্মকর্তা জানিয়েছেন, আলোচনায় সমঝোতার তেমন ইঙ্গিত দেখা যাচ্ছে না।

মঙ্গলবার রাত থেকে শুরু করে বুধবার সকাল পর্যন্ত রাফাসহ গাজার বিভিন্ন এলাকায় হামলা চালিয়েছে ইসরায়েল। বিধ্বস্ত গাজা নগরীর একটি অ্যাপার্টমেন্ট ভবনে এক হামলায় একই পরিবারের সাতজন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরও কয়েকজন। আল-আহলি হাসপাতাল এসব কথা জানিয়েছে।

ফিলিস্তিনের রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা ওয়াফা জানিয়েছে, মধ্য রাফার কয়েকটি আবাসিক ভবনে গোলাবর্ষণ করেছে ইসরায়েলি বাহিনী। এতে এসব ভবনে আগুন ধরে যায়। অগ্নিনির্বাপণ দল ছুটে গেলেও অব্যাহত গোলাবর্ষণের কারণে আগুন নেভাতে তাদের হিমশিম খেতে হয়।

এক বিবৃতিতে রাফাসহ গাজার ১০০টি লক্ষ্যবস্তুতে হামলা চালানো হয়েছে বলে জানিয়েছে ইসরায়েলি সামরিক বাহিনী। বিবৃতিতে বলা হয়েছে, রাফার পূর্বাঞ্চলে চালানো হামলায় হামাস যোদ্ধা নিহত ও তাদের সামরিক স্থাপনা ধ্বংস হয়েছে।

ইসরায়েলের হামলার মুখে মরিয়া হয়ে রাফা ছাড়ছেন ফিলিস্তিনিরা। তাদের অনেকেই দেইর আল-বালাহ এলাকায় তাঁবু টানিয়ে আশ্রয় নিয়েছেন।

বিজনেস বাংলাদেশ/একে

রাফায় দফায় দফায় ইসরায়েলের হামলা, নিহত ৫৫

প্রকাশিত : ১০:২৫:০৫ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৯ মে ২০২৪

যুদ্ধবিরতি আলোচনা অব্যাহত থাকা সত্ত্বেও গাজার দক্ষিণাঞ্চলীয় রাফায় দফায় দফায় হামলা চালিয়েছে ইসরায়েল। গাজায় ইসরায়েলি বাহিনীর হামলায় আরও ৫৫ ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছেন। বুধবার (৮ মে) এসব কথা জানায় গাজার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়।

আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের উদ্বেগ এবং হামাসের যুদ্ধবিরতি চুক্তি মেনে নেওয়ার ঘোষণা উপেক্ষা করে মঙ্গলবার মিসর সীমান্তবর্তী রাফা ক্রসিংয়ের নিয়ন্ত্রণ নেয় ইসরায়েলি বাহিনী। পরে রাফার পূর্ব ও মধ্যাঞ্চলসহ গাজার বিভিন্ন এলাকায় দফায় দফায় হামলা চালানো হয়।

এদিকে যুদ্ধবিরতির আলোচনায় অংশ নিতে মিসরের রাজধানী কায়রোয় অবস্থান করছে ইসরায়েল ও হামাস প্রতিনিধিদল। তবে বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে একজন ইসরায়েলি কর্মকর্তা জানিয়েছেন, আলোচনায় সমঝোতার তেমন ইঙ্গিত দেখা যাচ্ছে না।

মঙ্গলবার রাত থেকে শুরু করে বুধবার সকাল পর্যন্ত রাফাসহ গাজার বিভিন্ন এলাকায় হামলা চালিয়েছে ইসরায়েল। বিধ্বস্ত গাজা নগরীর একটি অ্যাপার্টমেন্ট ভবনে এক হামলায় একই পরিবারের সাতজন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরও কয়েকজন। আল-আহলি হাসপাতাল এসব কথা জানিয়েছে।

ফিলিস্তিনের রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা ওয়াফা জানিয়েছে, মধ্য রাফার কয়েকটি আবাসিক ভবনে গোলাবর্ষণ করেছে ইসরায়েলি বাহিনী। এতে এসব ভবনে আগুন ধরে যায়। অগ্নিনির্বাপণ দল ছুটে গেলেও অব্যাহত গোলাবর্ষণের কারণে আগুন নেভাতে তাদের হিমশিম খেতে হয়।

এক বিবৃতিতে রাফাসহ গাজার ১০০টি লক্ষ্যবস্তুতে হামলা চালানো হয়েছে বলে জানিয়েছে ইসরায়েলি সামরিক বাহিনী। বিবৃতিতে বলা হয়েছে, রাফার পূর্বাঞ্চলে চালানো হামলায় হামাস যোদ্ধা নিহত ও তাদের সামরিক স্থাপনা ধ্বংস হয়েছে।

ইসরায়েলের হামলার মুখে মরিয়া হয়ে রাফা ছাড়ছেন ফিলিস্তিনিরা। তাদের অনেকেই দেইর আল-বালাহ এলাকায় তাঁবু টানিয়ে আশ্রয় নিয়েছেন।

বিজনেস বাংলাদেশ/একে