০৯:২৪ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪

সেই অবুঝ শিশু দুটির মরাদেহ উদ্ধার

সিরাজগঞ্জের এনায়েতপুরে নিখোঁজের একদিন পর একটি খাল থেকে দুই শিশুর মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। গতকাল শনিবার সকাল থেকে তারা নিখোঁজ ছিল।
রোববার (১২ মে) দুপুরে এনায়েতপুর থানার জালালপুর ইউনিয়নের জালালপুর গ্রামে যমুনা নদীর পাড়ে ব্লকের পাশে ছোট গর্ত থেকে তাদের মরদেহ দুটি উদ্ধার করা হয়। সম্পর্কে তারা খালাতো ভাই।
নিহতরা হলো- শাহজাদপুর উপজেলার এনায়েতপুর থানার বেলতৈল ইউনিয়নের সাতবাড়িয়া গ্রামের রুবেল হোসেনের ছেলে আবু বক্কার (৪) ও তার খালাতো ভাই ইয়াসিন (৫)।
জালালপুর গ্রামের স্থানীয় আলহাজ আলী বলেন, যমুনা নদীর ভাঙন থেকে রক্ষায় বাঁধ নির্মাণের জন্য ব্লক তৈরির কাজ চলছে। দুপুরে যমুনা নদীর পাড়ে ব্লক নির্মাণ এলাকার ছোট গর্তে ওই দুই শিশুকে পড়ে থাকতে দেখা যায়। পরে ঘটনাটি পুলিশকে অবগত করা হয়।
নিহত শিশু আবু বক্কারের বাবা রুবেল জানান, আমি আমার ছেলে ও আমার শ্যালিকার ছেলে তিনজন শাহজাদপুর উপজেলার জালালপুরে মামা শ্বশুরের বাড়িতে বেড়াতে যাই। গতকাল শনিবার সকালে আমার ছেলে ও আমার শ্যালিকার ছেলে নদী পাড়ে বালির মধ্যে খেলা করছিল। এরপর থেকে তাদের আর খুঁজে পাওয়া যাচ্ছিল না। অনেক খোঁজাখুঁজি করে তাদের সন্ধান পাওয়া যায়নি। সবার ধারণা ছিল তারা নদীর পানিতে ডুবে গেছে। ঘটনাটি পুলিশকে অবগত করি। রোববার সকালে ছেলের সন্ধানে আমি উল্লাপাড়ায় যাই। দুপুরে আমাকে ফোন করে জানানো হয় ছেলেকে খুঁজে পাওয়া গেছে, তারা অসুস্থ। ঘটনাস্থলে এসে দেখে নদীর পাড়ে ব্লকের ভেতর গর্তে তাদের মরদেহ পড়ে আছে।
এনায়েতপুর থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আব্দুর রাজ্জাক বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছে ছোট একটি গর্তের পানি থেকে তাদের মরদেহ দুটি উদ্ধার করা হয়েছে। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে এটি দুর্ঘটনা। চলাফেরার সময় পড়ে গিয়ে তাদের মৃত্যু হতে পারে। তবে বিস্তারিত তদন্ত করলে ঘটনা সঠিক তথ্য বেরিয়ে আসবে।
ট্যাগ :

ফের জাতীয় দলে আব্দুল্লাহ পারভেজ

সেই অবুঝ শিশু দুটির মরাদেহ উদ্ধার

প্রকাশিত : ১০:৪০:৫৯ অপরাহ্ন, রবিবার, ১২ মে ২০২৪
সিরাজগঞ্জের এনায়েতপুরে নিখোঁজের একদিন পর একটি খাল থেকে দুই শিশুর মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। গতকাল শনিবার সকাল থেকে তারা নিখোঁজ ছিল।
রোববার (১২ মে) দুপুরে এনায়েতপুর থানার জালালপুর ইউনিয়নের জালালপুর গ্রামে যমুনা নদীর পাড়ে ব্লকের পাশে ছোট গর্ত থেকে তাদের মরদেহ দুটি উদ্ধার করা হয়। সম্পর্কে তারা খালাতো ভাই।
নিহতরা হলো- শাহজাদপুর উপজেলার এনায়েতপুর থানার বেলতৈল ইউনিয়নের সাতবাড়িয়া গ্রামের রুবেল হোসেনের ছেলে আবু বক্কার (৪) ও তার খালাতো ভাই ইয়াসিন (৫)।
জালালপুর গ্রামের স্থানীয় আলহাজ আলী বলেন, যমুনা নদীর ভাঙন থেকে রক্ষায় বাঁধ নির্মাণের জন্য ব্লক তৈরির কাজ চলছে। দুপুরে যমুনা নদীর পাড়ে ব্লক নির্মাণ এলাকার ছোট গর্তে ওই দুই শিশুকে পড়ে থাকতে দেখা যায়। পরে ঘটনাটি পুলিশকে অবগত করা হয়।
নিহত শিশু আবু বক্কারের বাবা রুবেল জানান, আমি আমার ছেলে ও আমার শ্যালিকার ছেলে তিনজন শাহজাদপুর উপজেলার জালালপুরে মামা শ্বশুরের বাড়িতে বেড়াতে যাই। গতকাল শনিবার সকালে আমার ছেলে ও আমার শ্যালিকার ছেলে নদী পাড়ে বালির মধ্যে খেলা করছিল। এরপর থেকে তাদের আর খুঁজে পাওয়া যাচ্ছিল না। অনেক খোঁজাখুঁজি করে তাদের সন্ধান পাওয়া যায়নি। সবার ধারণা ছিল তারা নদীর পানিতে ডুবে গেছে। ঘটনাটি পুলিশকে অবগত করি। রোববার সকালে ছেলের সন্ধানে আমি উল্লাপাড়ায় যাই। দুপুরে আমাকে ফোন করে জানানো হয় ছেলেকে খুঁজে পাওয়া গেছে, তারা অসুস্থ। ঘটনাস্থলে এসে দেখে নদীর পাড়ে ব্লকের ভেতর গর্তে তাদের মরদেহ পড়ে আছে।
এনায়েতপুর থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আব্দুর রাজ্জাক বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছে ছোট একটি গর্তের পানি থেকে তাদের মরদেহ দুটি উদ্ধার করা হয়েছে। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে এটি দুর্ঘটনা। চলাফেরার সময় পড়ে গিয়ে তাদের মৃত্যু হতে পারে। তবে বিস্তারিত তদন্ত করলে ঘটনা সঠিক তথ্য বেরিয়ে আসবে।