০৩:৪৪ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২১ মে ২০২৪

কুতুবদিয়ায় ভিড়ল এমভি আবদুল্লাহ

সোমালিয়ান জলদস্যুদের কবল থেকে মুক্তি পাওয়ার ঠিক এক মাসের মাথায় চট্টগ্রাম বন্দরের বহিনোঙর কক্সবাজারের কুতুবদিয়ায় নোঙর করেছে এমভি আবদুল্লাহ।

সোমবার (১৩ মে) দুপুরে বঙ্গোপসাগরের কক্সবাজার জলসীমায় প্রবেশের পর বিকেলে এটি কুতুবদিয়ায় নোঙর করে। মঙ্গলবার (১৪ মে) বিকেলে জাহাজটির ২৩ নাবিকের বোটযোগে চট্টগ্রাম আসার কথা রয়েছে।

বিকেলে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন জাহাজের মালিকপক্ষ কেএসআরএমের উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক শাহরিয়ার জাহান রাহাত।

উন্মুক্ত জলসীমায় নিজের সর্বোচ্চ গতি ঘণ্টায় সাড়ে ১১ নটিক্যাল মাইল গতিতে ছুটে আসে বাংলাদেশি মালিকানাধীন জাহাজ এমভি আবদুল্লাহ। দুপুর ২টার দিকে কক্সবাজারের জলসীমায় প্রবেশের পর নিজ ভূখন্ডে ফিরে আসার আনন্দে নাবিকরাও ছিলেন উচ্ছ্বসিত।

শাহরিয়ার জাহান রাহাত জাহান, কুতুবদিয়ায় আগামী কয়েকদিন অবস্থান হবে জাহাজটির। জাহাজে করে দুবাইয়ের হারমিয়া বন্দর থেকে আনা চুনা মাটি লাইটারেজ জাহাজে খালাস করা হবে।

তিনি আরও জানান, মঙ্গলবার জাহাজটিতে যোগ দেবেন নতুন ২৩ জন নাবিক। তাদের কাছে দায়িত্ব হস্তান্তর করে জাহাজ থেকে নেমে আসবেন পুরানো ২৩ নাবিক। তাদেরকে বোটে করে নিয়ে আসা হবে চট্টগ্রাম নগরীর সদরঘাটে। এখানেই স্বজনদের সঙ্গে মিলিত হবেন তারা।

এর আগে, গত ১২ মার্চ আফ্রিকার মোজাম্বিক থেকে কয়লা নিয়ে দুবাই আসার সময় ভারত মহাসাগরে সোমালিয়ান জলদস্যুদের কবলে পড়ে ২৩ নাবিকসহ জাহাজটি। বড় অংকের মুক্তিপণ দিয়ে ৩৩ দিন পর ১৩ এপ্রিল জলদস্যুদের কবল থেকে মুক্তি পেয়ে দুবাই গিয়েছিল জাহাজে থাকা কয়লা খালাসের জন্য। ২১ এপ্রিল দুবাইয়ের হামরিয়া বন্দরে পৌঁছায়। এরপর ৩০ এপ্রিল সংযুক্ত আরব আমিরাত থেকে দেশের উদ্দেশে যাত্রা শুরু করে এমভি আবদুল্লাহ।

বিজনেস বাংলাদেশ/BH

ট্যাগ :

কুতুবদিয়ায় ভিড়ল এমভি আবদুল্লাহ

প্রকাশিত : ০৯:১৯:২৩ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৩ মে ২০২৪

সোমালিয়ান জলদস্যুদের কবল থেকে মুক্তি পাওয়ার ঠিক এক মাসের মাথায় চট্টগ্রাম বন্দরের বহিনোঙর কক্সবাজারের কুতুবদিয়ায় নোঙর করেছে এমভি আবদুল্লাহ।

সোমবার (১৩ মে) দুপুরে বঙ্গোপসাগরের কক্সবাজার জলসীমায় প্রবেশের পর বিকেলে এটি কুতুবদিয়ায় নোঙর করে। মঙ্গলবার (১৪ মে) বিকেলে জাহাজটির ২৩ নাবিকের বোটযোগে চট্টগ্রাম আসার কথা রয়েছে।

বিকেলে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন জাহাজের মালিকপক্ষ কেএসআরএমের উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক শাহরিয়ার জাহান রাহাত।

উন্মুক্ত জলসীমায় নিজের সর্বোচ্চ গতি ঘণ্টায় সাড়ে ১১ নটিক্যাল মাইল গতিতে ছুটে আসে বাংলাদেশি মালিকানাধীন জাহাজ এমভি আবদুল্লাহ। দুপুর ২টার দিকে কক্সবাজারের জলসীমায় প্রবেশের পর নিজ ভূখন্ডে ফিরে আসার আনন্দে নাবিকরাও ছিলেন উচ্ছ্বসিত।

শাহরিয়ার জাহান রাহাত জাহান, কুতুবদিয়ায় আগামী কয়েকদিন অবস্থান হবে জাহাজটির। জাহাজে করে দুবাইয়ের হারমিয়া বন্দর থেকে আনা চুনা মাটি লাইটারেজ জাহাজে খালাস করা হবে।

তিনি আরও জানান, মঙ্গলবার জাহাজটিতে যোগ দেবেন নতুন ২৩ জন নাবিক। তাদের কাছে দায়িত্ব হস্তান্তর করে জাহাজ থেকে নেমে আসবেন পুরানো ২৩ নাবিক। তাদেরকে বোটে করে নিয়ে আসা হবে চট্টগ্রাম নগরীর সদরঘাটে। এখানেই স্বজনদের সঙ্গে মিলিত হবেন তারা।

এর আগে, গত ১২ মার্চ আফ্রিকার মোজাম্বিক থেকে কয়লা নিয়ে দুবাই আসার সময় ভারত মহাসাগরে সোমালিয়ান জলদস্যুদের কবলে পড়ে ২৩ নাবিকসহ জাহাজটি। বড় অংকের মুক্তিপণ দিয়ে ৩৩ দিন পর ১৩ এপ্রিল জলদস্যুদের কবল থেকে মুক্তি পেয়ে দুবাই গিয়েছিল জাহাজে থাকা কয়লা খালাসের জন্য। ২১ এপ্রিল দুবাইয়ের হামরিয়া বন্দরে পৌঁছায়। এরপর ৩০ এপ্রিল সংযুক্ত আরব আমিরাত থেকে দেশের উদ্দেশে যাত্রা শুরু করে এমভি আবদুল্লাহ।

বিজনেস বাংলাদেশ/BH