০৩:২০ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০২৪

প্রোটিয়াদের ইনিংস ঘোষণা, ব্যাটিংয়ে বাংলাদেশ

টাইগার ক্যাপ্টেন মুশফিকুর রহিম প্রথম দিনের খেলা শেষে সাংবাদিকদের বলেছিলেন প্রোটিয়াদের ৬০০ রানের মধ্যে অল-আউট করার চিন্তার কথা। লক্ষ্য ঠিক থাকল কিন্তু তাতে বাংলাদেশের কোনো কৃতিত্ব নেই। ব্লুমফন্টেইনে প্রথম ইনিংসে ৪ উইকেটে ৫৭৩ রান তুলে ইনিংস ঘোষণা করেছে স্বাগতিকরা। তাদের অল-আউট করার কোনো প্রয়োজন হয়নি। অধিনায়ক ফাফ ডু-প্লেসিস ১৩৫ রানে অপরাজিত থেকে মাঠ ছাড়েন।

৩ উইকেটে ৪২৮ রান নিয়ে দ্বিতীয় দিন শুরু করে প্রোটিয়ারা। বৃষ্টির কারণে দেড় ঘণ্টা দেরিতে খেলা শুরুর পরপরই তৃতীয় ব্যাটসম্যান হিসেবে সেঞ্চুরি করেন হাশিম আমলা। ১১৩ বলে ক্যারিয়ারের ২৮তম সেঞ্চুরি তুলে নিতে আমলা ১৪টি বাউন্ডারি হাঁকিয়েছেন। এর কিছু পরেই ১৪৭ বলে ১২ বাউন্ডারিতে টেস্ট ক্যারিয়ারের ৭ম সেঞ্চুরি তুলে নেন অধিনায়ক ফাফ ডু-প্লেসিস।

২৪ ওভার অপেক্ষার পর অবশেষে দ্বিতীয় দিনে উইকেটের দেখা পায় বাংলাদেশ। সেঞ্চুরিয়ান হাশিম আমলাকে (১৩২) বোল্ড করে নিজের তৃতীয় শিকার ধরলেন পেসার শুভাশিস রায়।

এর সাথে সমাপ্তি ঘটল ২৪৭ রানের জুটির। এর আগে প্রথম দিনে ২৪৩ রানের জুটি গড়েছিলেন দুই প্রোটিয়া ওপেনার।
অন্যদিকে বল হাতে ‘অন্যরকম’ সেঞ্চুরি করেছেন চার বাংলাদেশি বোলার। ‘কাটার মাস্টার’ মুস্তাফিজুর রহমান, পেসার শুভাশিস রায়, রুবেল হোসেন এবং স্পিনার তাইজুল ইসলাম প্রত্যেকেই একশর উপরে রান দিয়েছেন। সাফল্য পেয়েছেন কেবল শুভাশিস রায় আর রুবেল হোসেন। ২৯ ওভার বল করে ১১৮ রানে ৩ উইকেট নিয়ে বাংলাদেশের সবচেয়ে সফল বোলার শুভাশিস রায়।

ট্যাগ :
জনপ্রিয়

প্রোটিয়াদের ইনিংস ঘোষণা, ব্যাটিংয়ে বাংলাদেশ

প্রকাশিত : ০৭:১৮:৪৫ অপরাহ্ন, শনিবার, ৭ অক্টোবর ২০১৭

টাইগার ক্যাপ্টেন মুশফিকুর রহিম প্রথম দিনের খেলা শেষে সাংবাদিকদের বলেছিলেন প্রোটিয়াদের ৬০০ রানের মধ্যে অল-আউট করার চিন্তার কথা। লক্ষ্য ঠিক থাকল কিন্তু তাতে বাংলাদেশের কোনো কৃতিত্ব নেই। ব্লুমফন্টেইনে প্রথম ইনিংসে ৪ উইকেটে ৫৭৩ রান তুলে ইনিংস ঘোষণা করেছে স্বাগতিকরা। তাদের অল-আউট করার কোনো প্রয়োজন হয়নি। অধিনায়ক ফাফ ডু-প্লেসিস ১৩৫ রানে অপরাজিত থেকে মাঠ ছাড়েন।

৩ উইকেটে ৪২৮ রান নিয়ে দ্বিতীয় দিন শুরু করে প্রোটিয়ারা। বৃষ্টির কারণে দেড় ঘণ্টা দেরিতে খেলা শুরুর পরপরই তৃতীয় ব্যাটসম্যান হিসেবে সেঞ্চুরি করেন হাশিম আমলা। ১১৩ বলে ক্যারিয়ারের ২৮তম সেঞ্চুরি তুলে নিতে আমলা ১৪টি বাউন্ডারি হাঁকিয়েছেন। এর কিছু পরেই ১৪৭ বলে ১২ বাউন্ডারিতে টেস্ট ক্যারিয়ারের ৭ম সেঞ্চুরি তুলে নেন অধিনায়ক ফাফ ডু-প্লেসিস।

২৪ ওভার অপেক্ষার পর অবশেষে দ্বিতীয় দিনে উইকেটের দেখা পায় বাংলাদেশ। সেঞ্চুরিয়ান হাশিম আমলাকে (১৩২) বোল্ড করে নিজের তৃতীয় শিকার ধরলেন পেসার শুভাশিস রায়।

এর সাথে সমাপ্তি ঘটল ২৪৭ রানের জুটির। এর আগে প্রথম দিনে ২৪৩ রানের জুটি গড়েছিলেন দুই প্রোটিয়া ওপেনার।
অন্যদিকে বল হাতে ‘অন্যরকম’ সেঞ্চুরি করেছেন চার বাংলাদেশি বোলার। ‘কাটার মাস্টার’ মুস্তাফিজুর রহমান, পেসার শুভাশিস রায়, রুবেল হোসেন এবং স্পিনার তাইজুল ইসলাম প্রত্যেকেই একশর উপরে রান দিয়েছেন। সাফল্য পেয়েছেন কেবল শুভাশিস রায় আর রুবেল হোসেন। ২৯ ওভার বল করে ১১৮ রানে ৩ উইকেট নিয়ে বাংলাদেশের সবচেয়ে সফল বোলার শুভাশিস রায়।