০৬:০৪ অপরাহ্ন, রবিবার, ২১ এপ্রিল ২০২৪

শনিবার থেকে বৃষ্টি কমবে: আবহাওয়া অধিদপ্তর

ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে বৃহস্পতিবার রাত থেকেই বৃষ্টি শুরু হয়। এতে সাধারণ মানুষের জনদুর্ভোগ চরমে ওঠে। বিশেষ করে অতি বৃষ্টির কারণে ২০ অক্টোবর শুক্রবার সকাল থেকেই রাজধানী ঢাকার বিভিন্ন স্থানে জলাবন্ধতা সৃষ্টি হয়। এতে মানুষের দুর্ভোগ চরম আকার ধারন করে। তবে আগামীকাল শনিবার থেকে বৃষ্টির পরিমাণ কমে যাবে বলে জানিয়েছে বাংলাদেশ আবহাওয়া অধিদপ্তর।
বাংলাদেশ আবহাওয়া অধিদপ্তরের আবহাওয়াবিদ মো. আবদুর রহমান জানান, ‘শুক্রবার ভোর ছয়টা থেকে সন্ধ্যা ছয়টা পর্যন্ত ঢাকায় ৭৬ মিলিমিটার বৃষ্টি রেকর্ড করা হয়েছে। তবে শনিবার থেকে বৃষ্টি কমতে শুরু করবে।’ এ ছাড়া চট্রগ্রামে ভোর ছয়টা থেকে বিকেল তিনটা পর্যন্ত মোট বৃষ্টিপাত হয়েছে ৯ মিলিমিটার। উপকূলীয় অঞ্চলে সৃষ্ট স্থল লঘুচাপের কারণে অধিক বৃষ্টিপাত হয়েছে বলে জানান আবদুর রহমান।
উপকূলীয় উড়িস্যা ও তৎসংলগ্ন এলাকায় অবস্থানরত স্থল নিম্নচাপের কারণে উত্তর বঙ্গোপসাগর এলাকায় অধিক বায়ুচাপ বিরাজ করছে। এর ফলে ওই এলাকায় গভীর সঞ্চালনশীল মেঘমালার সৃষ্টি হচ্ছে। এজন্য চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, মংলা ও পায়রা সমুদ্রবন্দরকে ৩ নম্বর সতর্ক সংকেত দেখাতে বলেছে আবহাওয়া অফিস। সেইসঙ্গে উত্তর বঙ্গোপসাগরে অবস্থানরত সকল মাছ ধরার নৌকা ও ট্রলারকে নিরাপদ আশ্রয়ে থাকতে বলেছে আবহাওয়া অফিস।
অন্যদিকে নিম্নচাপের ফলে উপকূলীয় জেলা কক্সবাজার, চট্টগ্রাম, নোয়াখালী, লক্ষ্মীপুর, ফেনী, চাঁদপুর, ভোলা, বরিশাল, পটুয়াখালী, বরগুনা, ঝালকাঠী, পিরোজপুর, খুলনা, বাগেরহাট, সাতক্ষীরায় জোয়ারের পানি স্বাভাবিকের থেকে বাড়তে পারে। যা এক থেকে দুই ফুট উচ্চতার জলোচ্ছ্বাসে রূপ নিতে পারে। এছাড়া শনিবার সকাল পর্যন্ত দেশের অধিকাংশ জায়গায় হালকা থেকে মাঝারি ধরণের বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে বলেও জানিয়েছে আবহাওয়া অফিস।
এদিকে অতিবৃষ্টির কারণে রাজধানী ঢাকায় শুক্রবার সকাল থেকেই বিভিন্ন সড়কে জলাবন্ধতার সৃষ্টি হয়। রাজধানীর মিরপুর, ধানমন্ডি, আগারগাঁও, নয়া পল্টন, মালিবাগ, পুরান ঢাকাসহ বিভিন্ন এলাকার বেশ কিছু রাস্তায় হাটু পানি জমে। এর ফলে সাধারণ মানুষকে পড়তে হয় চরম বিপাকে। সারা দিনই বৃষ্টি হওয়ায় জনজীবন বিপর্যস্থ হয়ে পড়ে। খুব প্রয়োজন ছাড়া ঘরের বাইরে বের হননি অনেকই। তবে ছুটির দিন হওয়ায় রাস্তায় মানুষ এবং যানবাহনের সংখ্যা কম ছিল।

ট্যাগ :
জনপ্রিয়

শনিবার থেকে বৃষ্টি কমবে: আবহাওয়া অধিদপ্তর

প্রকাশিত : ০৮:৩১:৪২ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২০ অক্টোবর ২০১৭

ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে বৃহস্পতিবার রাত থেকেই বৃষ্টি শুরু হয়। এতে সাধারণ মানুষের জনদুর্ভোগ চরমে ওঠে। বিশেষ করে অতি বৃষ্টির কারণে ২০ অক্টোবর শুক্রবার সকাল থেকেই রাজধানী ঢাকার বিভিন্ন স্থানে জলাবন্ধতা সৃষ্টি হয়। এতে মানুষের দুর্ভোগ চরম আকার ধারন করে। তবে আগামীকাল শনিবার থেকে বৃষ্টির পরিমাণ কমে যাবে বলে জানিয়েছে বাংলাদেশ আবহাওয়া অধিদপ্তর।
বাংলাদেশ আবহাওয়া অধিদপ্তরের আবহাওয়াবিদ মো. আবদুর রহমান জানান, ‘শুক্রবার ভোর ছয়টা থেকে সন্ধ্যা ছয়টা পর্যন্ত ঢাকায় ৭৬ মিলিমিটার বৃষ্টি রেকর্ড করা হয়েছে। তবে শনিবার থেকে বৃষ্টি কমতে শুরু করবে।’ এ ছাড়া চট্রগ্রামে ভোর ছয়টা থেকে বিকেল তিনটা পর্যন্ত মোট বৃষ্টিপাত হয়েছে ৯ মিলিমিটার। উপকূলীয় অঞ্চলে সৃষ্ট স্থল লঘুচাপের কারণে অধিক বৃষ্টিপাত হয়েছে বলে জানান আবদুর রহমান।
উপকূলীয় উড়িস্যা ও তৎসংলগ্ন এলাকায় অবস্থানরত স্থল নিম্নচাপের কারণে উত্তর বঙ্গোপসাগর এলাকায় অধিক বায়ুচাপ বিরাজ করছে। এর ফলে ওই এলাকায় গভীর সঞ্চালনশীল মেঘমালার সৃষ্টি হচ্ছে। এজন্য চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, মংলা ও পায়রা সমুদ্রবন্দরকে ৩ নম্বর সতর্ক সংকেত দেখাতে বলেছে আবহাওয়া অফিস। সেইসঙ্গে উত্তর বঙ্গোপসাগরে অবস্থানরত সকল মাছ ধরার নৌকা ও ট্রলারকে নিরাপদ আশ্রয়ে থাকতে বলেছে আবহাওয়া অফিস।
অন্যদিকে নিম্নচাপের ফলে উপকূলীয় জেলা কক্সবাজার, চট্টগ্রাম, নোয়াখালী, লক্ষ্মীপুর, ফেনী, চাঁদপুর, ভোলা, বরিশাল, পটুয়াখালী, বরগুনা, ঝালকাঠী, পিরোজপুর, খুলনা, বাগেরহাট, সাতক্ষীরায় জোয়ারের পানি স্বাভাবিকের থেকে বাড়তে পারে। যা এক থেকে দুই ফুট উচ্চতার জলোচ্ছ্বাসে রূপ নিতে পারে। এছাড়া শনিবার সকাল পর্যন্ত দেশের অধিকাংশ জায়গায় হালকা থেকে মাঝারি ধরণের বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে বলেও জানিয়েছে আবহাওয়া অফিস।
এদিকে অতিবৃষ্টির কারণে রাজধানী ঢাকায় শুক্রবার সকাল থেকেই বিভিন্ন সড়কে জলাবন্ধতার সৃষ্টি হয়। রাজধানীর মিরপুর, ধানমন্ডি, আগারগাঁও, নয়া পল্টন, মালিবাগ, পুরান ঢাকাসহ বিভিন্ন এলাকার বেশ কিছু রাস্তায় হাটু পানি জমে। এর ফলে সাধারণ মানুষকে পড়তে হয় চরম বিপাকে। সারা দিনই বৃষ্টি হওয়ায় জনজীবন বিপর্যস্থ হয়ে পড়ে। খুব প্রয়োজন ছাড়া ঘরের বাইরে বের হননি অনেকই। তবে ছুটির দিন হওয়ায় রাস্তায় মানুষ এবং যানবাহনের সংখ্যা কম ছিল।