০৩:২৮ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৩ এপ্রিল ২০২৪

বাণিজ্য বাড়াতে নিজেদের মুদ্রায় লেনদেন করবে আঙ্কারা ও তেহরান

তুরস্ক ও ইরানের মধ্যে বর্তমানে বাণিজ্যের পরিমাণ ১০ বিলিয়ন মার্কিন ডলার থাকলেও তা আরো ২০ বিলিয়ন বাড়াতে নিজেদের মুদ্রায় লেনদেনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে দুটি দেশ। দুটি দেশের কেন্দ্রীয় ব্যাংক এ লক্ষ্যে একটি চুক্তি স্বাক্ষর করেছে। তেহরান টাইমস
গত বৃহস্পতিবার দুই দেশের গভর্নর এ চুক্তি স্বাক্ষর করেন। তুরস্ক সফর করছে ইরানের ভাইস-প্রেসিডেন্ট এসহাক জাহাঙ্গিরি। তার সফর উপলক্ষে আঙ্কারায় ইরানের গভর্নর ভালিওল্লাহ সেইফ ও তুরস্কের গভর্নর মুরাত চেটিনকায়া ওই চুক্তি স্বাক্ষর করেন।
চুক্তি অনুসারে ইরানের মুদ্রা রিয়াল ও তুরস্কের মুদ্রা লিরা দুটি দেশের লেনদেনে ব্যবহার হওয়ায় ব্যবসায়ীদের মুদ্রা বিনিময়ের খরচও বাঁচাতে সাহায্য করবে। এ দুটি দেশ এতদিন লেনদেনে ইউরো ব্যবহার করে আসছিল। দুটি দেশের মধ্যে আমদানি ও রফতানিতে এলসি খোলার ক্ষেত্রে ৫ বিলিয়ন রিয়াল ও সমপরিমাণ লিরা স্থানান্তরের অনুমোদন দেওয়া হয়েছে।
তুরস্কের প্রধানমন্ত্রী বিনালি ইলদিরিম রয়টার্সকে বলেছেন, দুটি দেশের মধ্যে স্থানীয় মুদ্রায় লেনদেন অর্থনৈতিক সম্পর্ককে আরো শক্তিশালী করবে। এজন্যে উভয় দেশে ব্যাংকিং ব্যবস্থায় সংস্কার আনা হয়েছে। বাণিজ্যের পরিমাণ ও বৈচিত্র বৃদ্ধিতে এধরনের লেনদেন সহায়ক।
এর আগে তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিচেপ তাইয়েপ এরদোগান বলেন, বাণিজ্যে পরিমাণ ১০ বিলিয়ন ডলার থেকে ৩০ বিলিয়ন ডলার বৃদ্ধি করতে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

ট্যাগ :
জনপ্রিয়

বাণিজ্য বাড়াতে নিজেদের মুদ্রায় লেনদেন করবে আঙ্কারা ও তেহরান

প্রকাশিত : ০৬:১১:৫৬ অপরাহ্ন, শনিবার, ২১ অক্টোবর ২০১৭

তুরস্ক ও ইরানের মধ্যে বর্তমানে বাণিজ্যের পরিমাণ ১০ বিলিয়ন মার্কিন ডলার থাকলেও তা আরো ২০ বিলিয়ন বাড়াতে নিজেদের মুদ্রায় লেনদেনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে দুটি দেশ। দুটি দেশের কেন্দ্রীয় ব্যাংক এ লক্ষ্যে একটি চুক্তি স্বাক্ষর করেছে। তেহরান টাইমস
গত বৃহস্পতিবার দুই দেশের গভর্নর এ চুক্তি স্বাক্ষর করেন। তুরস্ক সফর করছে ইরানের ভাইস-প্রেসিডেন্ট এসহাক জাহাঙ্গিরি। তার সফর উপলক্ষে আঙ্কারায় ইরানের গভর্নর ভালিওল্লাহ সেইফ ও তুরস্কের গভর্নর মুরাত চেটিনকায়া ওই চুক্তি স্বাক্ষর করেন।
চুক্তি অনুসারে ইরানের মুদ্রা রিয়াল ও তুরস্কের মুদ্রা লিরা দুটি দেশের লেনদেনে ব্যবহার হওয়ায় ব্যবসায়ীদের মুদ্রা বিনিময়ের খরচও বাঁচাতে সাহায্য করবে। এ দুটি দেশ এতদিন লেনদেনে ইউরো ব্যবহার করে আসছিল। দুটি দেশের মধ্যে আমদানি ও রফতানিতে এলসি খোলার ক্ষেত্রে ৫ বিলিয়ন রিয়াল ও সমপরিমাণ লিরা স্থানান্তরের অনুমোদন দেওয়া হয়েছে।
তুরস্কের প্রধানমন্ত্রী বিনালি ইলদিরিম রয়টার্সকে বলেছেন, দুটি দেশের মধ্যে স্থানীয় মুদ্রায় লেনদেন অর্থনৈতিক সম্পর্ককে আরো শক্তিশালী করবে। এজন্যে উভয় দেশে ব্যাংকিং ব্যবস্থায় সংস্কার আনা হয়েছে। বাণিজ্যের পরিমাণ ও বৈচিত্র বৃদ্ধিতে এধরনের লেনদেন সহায়ক।
এর আগে তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিচেপ তাইয়েপ এরদোগান বলেন, বাণিজ্যে পরিমাণ ১০ বিলিয়ন ডলার থেকে ৩০ বিলিয়ন ডলার বৃদ্ধি করতে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।