০৫:০৪ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৪

‘রাজনীতির নামে অগ্নিসন্ত্রাস আর হবে না’

ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) কমিশনার মো. আছাদুজ্জামান মিয়া বলেছেন, ‘রাজনীতির নামে অগ্নিসন্ত্রাস হতে দেওয়া হবে না। এজন্য পুলিশের সাথে কমিউনিটি পুলিশ কাজ করবে।’

শনিবার ডিএমপির সদর দপ্তরে ‘কমিউনিটি পুলিশ ডে’ উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন।

অনুষ্ঠানে সভাপতির বক্তব্যে ডিএমপি কমিশনার বলেন, ‘অতীতে এ দেশে রাজনীতির নামে পেট্রোল বোমা ছুড়ে কিংবা বাসে আগুন দিয়ে সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড হয়েছে। এ কারণে ওই সময় শুধু জনগণের জানমালের ব্যাপক ক্ষতিই হয়নি, নিরাপত্তাতেও বিঘ্ন ঘটে। অনেকে জীবনও দিয়েছেন। কিন্তু এগুলো আর হতে দেওয়া হবে না। আগে পুলিশ সফলতার সঙ্গে এগুলো মোকাবিলা করেছে। তবে এবার ভিন্ন অবস্থা। এখন পুলিশের সঙ্গে কমিউনিটি পুলিশ অগ্নিসন্ত্রাস প্রতিরোধে পুলিশের কাজ করবে।’

আছাদুজ্জামান মিয়া আরো বলেন, ‘কমিউনিটি পুলিশ করার অর্থই হলো জনগণের সঙ্গে পুলিশের সম্পর্ক আরো বৃদ্ধি করা হবে। এ সম্পর্কের কারণে দেশ থেকে জঙ্গি-সন্ত্রাসবাদ, মাদক প্রতিরোধ, সর্বোপরি আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি পুরোপুরি নিয়ন্ত্রণ করা সম্ভব হবে।’

অনুষ্ঠানে পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

ট্যাগ :
জনপ্রিয়

ইসরায়েলে আঘাত হেনেছে হিজবুল্লাহর ড্রোন, আহত ১৮

‘রাজনীতির নামে অগ্নিসন্ত্রাস আর হবে না’

প্রকাশিত : ০৪:৪২:১৩ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৮ অক্টোবর ২০১৭

ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) কমিশনার মো. আছাদুজ্জামান মিয়া বলেছেন, ‘রাজনীতির নামে অগ্নিসন্ত্রাস হতে দেওয়া হবে না। এজন্য পুলিশের সাথে কমিউনিটি পুলিশ কাজ করবে।’

শনিবার ডিএমপির সদর দপ্তরে ‘কমিউনিটি পুলিশ ডে’ উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন।

অনুষ্ঠানে সভাপতির বক্তব্যে ডিএমপি কমিশনার বলেন, ‘অতীতে এ দেশে রাজনীতির নামে পেট্রোল বোমা ছুড়ে কিংবা বাসে আগুন দিয়ে সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড হয়েছে। এ কারণে ওই সময় শুধু জনগণের জানমালের ব্যাপক ক্ষতিই হয়নি, নিরাপত্তাতেও বিঘ্ন ঘটে। অনেকে জীবনও দিয়েছেন। কিন্তু এগুলো আর হতে দেওয়া হবে না। আগে পুলিশ সফলতার সঙ্গে এগুলো মোকাবিলা করেছে। তবে এবার ভিন্ন অবস্থা। এখন পুলিশের সঙ্গে কমিউনিটি পুলিশ অগ্নিসন্ত্রাস প্রতিরোধে পুলিশের কাজ করবে।’

আছাদুজ্জামান মিয়া আরো বলেন, ‘কমিউনিটি পুলিশ করার অর্থই হলো জনগণের সঙ্গে পুলিশের সম্পর্ক আরো বৃদ্ধি করা হবে। এ সম্পর্কের কারণে দেশ থেকে জঙ্গি-সন্ত্রাসবাদ, মাদক প্রতিরোধ, সর্বোপরি আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি পুরোপুরি নিয়ন্ত্রণ করা সম্ভব হবে।’

অনুষ্ঠানে পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।