০২:২১ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪

অবৈধ আমদানি বন্ধে মোবাইল সেট উৎপাদনের উদ্যোগ -তারানা হালিম

মোবাইল সেটের অবৈধ আমদানি বন্ধ করতে ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের আওতায় টেলিফোন শিল্প সংস্থার (টেশিস) মাধ্যমে সরকার মোবাইল ফোন সেট উৎপাদন ও বিপণনের উদ্যোগ নিয়েছে। মঙ্গলবার সংসদে সরকারি দলের সদস্য বজলুল হক হারুনের টেবিলে উপস্থাপিত তারকা চিহ্নিত প্রশ্নের জবাবে ডাক ও টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম বলেন, ‘২০১৪ সালে এ ব্যাপারে ওকে মোবাইল লিঃ ও টেশিস’র মধ্যে একটি চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়। চুক্তি মোতাবেক টেশিসে মোবাইল ফোন সেট উৎপাদন ও সংযোজন প্লান্ট স্থাপন করা হয়েছে। এ পর্যন্ত ৩৭ হাজার মোবাইল ফোন সেট এবং ৮শ’ ট্যাব উৎপাদন ও সংযোজন করে বাজারজাত করা হয়েছে।’ প্রতিমন্ত্রী বলেন, বর্তমানে দেশে ১৩ কোটি ৫৯ লাখ ৮২ হাজার মোবাইল গ্রাহক রয়েছে এবং দিন দিন গ্রাহক সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে। বর্তমানে দেশে মোবাইল ফোন সেটের বাজার ৮ হাজার কোটি টাকার। এই চাহিদা পূরণ করতে বিপুল সংখ্যক মোবাইল সেট আমদানি করতে হয়। যার ফলে প্রায় ৮ হাজার কোটি টাকার সমপরিমাণ মূল্যবান বৈদেশিক মূদ্রা বিদেশে চলে যাচ্ছে। তিনি বলেন, বিপুল পরিমাণ বৈদেশিক মূদ্রা সাশ্রয়, সুদক্ষ কারিগরি জ্ঞানসম্পন্ন জনবল সৃষ্টি, এ খাতে কাঙ্খিত বৈদেশিক বিনিয়োগ আকর্ষণ, দেশে নতুন কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি, অবৈধ আমদানি বন্ধ, দেশি বিনিয়োগকারীদের জন্য নতুন ক্ষেত্র তৈরি, প্রান্তিক পর্যায়ে সকল গ্রাহকের হাতে স্মার্টফোন সরবরাহ নিশ্চিত করে মোবাইল ইন্টারনেট ব্যবহারকারীর সংখ্যা ব্যাপক হারে বাড়ানোর মাধ্যমে ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণের লক্ষ্যে দেশে মোবাইল ফোন সেট উৎপাদন, সংযোজন ও বিপণনে উৎসাহ প্রদান করা হয়। তারানা হালিম বলেন, মোবাইল ফোন সেট সংযোজন ও উৎপাদনের জন্য যন্ত্রপাতি আমদানির ক্ষেত্রে সরকার ১ শতাংশ আমদানি শুল্ক নির্ধারণ করেছে।

ট্যাগ :
জনপ্রিয়

অবৈধ আমদানি বন্ধে মোবাইল সেট উৎপাদনের উদ্যোগ -তারানা হালিম

প্রকাশিত : ১২:৪৭:৪৫ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১৫ নভেম্বর ২০১৭

মোবাইল সেটের অবৈধ আমদানি বন্ধ করতে ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের আওতায় টেলিফোন শিল্প সংস্থার (টেশিস) মাধ্যমে সরকার মোবাইল ফোন সেট উৎপাদন ও বিপণনের উদ্যোগ নিয়েছে। মঙ্গলবার সংসদে সরকারি দলের সদস্য বজলুল হক হারুনের টেবিলে উপস্থাপিত তারকা চিহ্নিত প্রশ্নের জবাবে ডাক ও টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম বলেন, ‘২০১৪ সালে এ ব্যাপারে ওকে মোবাইল লিঃ ও টেশিস’র মধ্যে একটি চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়। চুক্তি মোতাবেক টেশিসে মোবাইল ফোন সেট উৎপাদন ও সংযোজন প্লান্ট স্থাপন করা হয়েছে। এ পর্যন্ত ৩৭ হাজার মোবাইল ফোন সেট এবং ৮শ’ ট্যাব উৎপাদন ও সংযোজন করে বাজারজাত করা হয়েছে।’ প্রতিমন্ত্রী বলেন, বর্তমানে দেশে ১৩ কোটি ৫৯ লাখ ৮২ হাজার মোবাইল গ্রাহক রয়েছে এবং দিন দিন গ্রাহক সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে। বর্তমানে দেশে মোবাইল ফোন সেটের বাজার ৮ হাজার কোটি টাকার। এই চাহিদা পূরণ করতে বিপুল সংখ্যক মোবাইল সেট আমদানি করতে হয়। যার ফলে প্রায় ৮ হাজার কোটি টাকার সমপরিমাণ মূল্যবান বৈদেশিক মূদ্রা বিদেশে চলে যাচ্ছে। তিনি বলেন, বিপুল পরিমাণ বৈদেশিক মূদ্রা সাশ্রয়, সুদক্ষ কারিগরি জ্ঞানসম্পন্ন জনবল সৃষ্টি, এ খাতে কাঙ্খিত বৈদেশিক বিনিয়োগ আকর্ষণ, দেশে নতুন কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি, অবৈধ আমদানি বন্ধ, দেশি বিনিয়োগকারীদের জন্য নতুন ক্ষেত্র তৈরি, প্রান্তিক পর্যায়ে সকল গ্রাহকের হাতে স্মার্টফোন সরবরাহ নিশ্চিত করে মোবাইল ইন্টারনেট ব্যবহারকারীর সংখ্যা ব্যাপক হারে বাড়ানোর মাধ্যমে ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণের লক্ষ্যে দেশে মোবাইল ফোন সেট উৎপাদন, সংযোজন ও বিপণনে উৎসাহ প্রদান করা হয়। তারানা হালিম বলেন, মোবাইল ফোন সেট সংযোজন ও উৎপাদনের জন্য যন্ত্রপাতি আমদানির ক্ষেত্রে সরকার ১ শতাংশ আমদানি শুল্ক নির্ধারণ করেছে।