০৬:২৯ অপরাহ্ন, রবিবার, ২১ এপ্রিল ২০২৪

হাইকোর্টে রানার জামিন নামঞ্জুর

সম্পদ বিবরণী দাখিল না করায় দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) করা মামলায় রানা প্লাজার মালিক সোহেল রানার জামিন আবেদন খারিজ করে দিয়েছেন হাইকোর্ট। তবে এই মামলায় রানার তিন বছরের সাজার বিরুদ্ধে করা আপিল মঞ্জুর করেছেন আদালত।

বুধবার বিচারপতি আবু বকর সিদ্দিকীর হাইকোর্টের একক বেঞ্চ সোহেল রানাকে জামিন না দিয়ে শুনানির জন্য আপিল গ্রহণ করে আদেশ দেন।

আদালতে সোহেল রানার পক্ষে ছিলেন জাহানারা বেগম এবং দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) পক্ষে ছিলেন আইনজীবী খুরশিদ আলম খান। তিনি বিষয়টি সাংবাদিকদের নিশ্চিত করেছেন।

আইনজীবী খুরশিদ আলম খান জানান, আদালত শুনানির জন্য রানার আপিল গ্রহণ করেছেন। পাশাপাশি তাকে যে জরিমানা করা হয়েছিলো তা স্থগিত করেছেন। তবে তাকে জামিন দেননি।

গত ২৯ আগস্ট দুদকে সম্পদ বিবরণী দাখিল না করার সোহেল রানাকে তিন বছর কারাদণ্ড দিয়ে রায় ঘোষণা করেন বিচারিক আদালত। এ মামলায় তাকে আরও ৫০ হাজার টাকা জরিমানা, অনাদায়ে আরও তিন মাসের কারাদণ্ড দেয়া হয়।

মামলার বিবরণে জানা যায়, সোহেল রানার নিজের, তার স্ত্রী ও তার ওপর নির্ভরশীল ব্যক্তিদের নামে-বেনামে অর্জিত স্থাবর, অস্থাবর সম্পদ ও দায়-দেনার উৎস এবং তা অর্জনের বিস্তারিত বিবরণী চেয়ে ২০১৩ সালের ২২ মে সম্পদ বিবরণী নোটিশ ইস্যু করে দুদক।

২০১৫ সালের ১ এপ্রিল কাশিমপুর কারাগারের জেল সুপারের মাধ্যমে রানার নামের সম্পদ বিবরণী নোটিশ পাঠানো হয়। ওই বছরের ৪ এপ্রিল রানা নিজে সই করে সম্পদ বিবরণী নোটিশ গ্রহণ করেন। ২৬ এপ্রিল তা পূরণ না করেই দুদকে পাঠান।

দুদকে সম্পদ বিবরণী দাখিল না করার অপরাধে ওই বছরের ২০ মে কমিশনের উপপরিচালক মাহবুবুল আলম বাদী হয়ে রাজধানীর রমনা থানায় একটি মামলা করেন। ২০১৬ সালের ১ আগস্ট আদালতে এ মামলার চার্জশিট (অভিযোগপত্র) দাখিল করা হয়। চলতি বছরের ২৩ মার্চ এ মামলায় সোহেল রানার বিরুদ্ধে চার্জগঠন করে বিচার শুরুর নির্দেশ দেয় আদালত। মামলাটিতে আটজনের সাক্ষ্যগ্রহণ করা হয়।

ট্যাগ :
জনপ্রিয়

হাইকোর্টে রানার জামিন নামঞ্জুর

প্রকাশিত : ০৩:০০:৫৫ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৫ নভেম্বর ২০১৭

সম্পদ বিবরণী দাখিল না করায় দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) করা মামলায় রানা প্লাজার মালিক সোহেল রানার জামিন আবেদন খারিজ করে দিয়েছেন হাইকোর্ট। তবে এই মামলায় রানার তিন বছরের সাজার বিরুদ্ধে করা আপিল মঞ্জুর করেছেন আদালত।

বুধবার বিচারপতি আবু বকর সিদ্দিকীর হাইকোর্টের একক বেঞ্চ সোহেল রানাকে জামিন না দিয়ে শুনানির জন্য আপিল গ্রহণ করে আদেশ দেন।

আদালতে সোহেল রানার পক্ষে ছিলেন জাহানারা বেগম এবং দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) পক্ষে ছিলেন আইনজীবী খুরশিদ আলম খান। তিনি বিষয়টি সাংবাদিকদের নিশ্চিত করেছেন।

আইনজীবী খুরশিদ আলম খান জানান, আদালত শুনানির জন্য রানার আপিল গ্রহণ করেছেন। পাশাপাশি তাকে যে জরিমানা করা হয়েছিলো তা স্থগিত করেছেন। তবে তাকে জামিন দেননি।

গত ২৯ আগস্ট দুদকে সম্পদ বিবরণী দাখিল না করার সোহেল রানাকে তিন বছর কারাদণ্ড দিয়ে রায় ঘোষণা করেন বিচারিক আদালত। এ মামলায় তাকে আরও ৫০ হাজার টাকা জরিমানা, অনাদায়ে আরও তিন মাসের কারাদণ্ড দেয়া হয়।

মামলার বিবরণে জানা যায়, সোহেল রানার নিজের, তার স্ত্রী ও তার ওপর নির্ভরশীল ব্যক্তিদের নামে-বেনামে অর্জিত স্থাবর, অস্থাবর সম্পদ ও দায়-দেনার উৎস এবং তা অর্জনের বিস্তারিত বিবরণী চেয়ে ২০১৩ সালের ২২ মে সম্পদ বিবরণী নোটিশ ইস্যু করে দুদক।

২০১৫ সালের ১ এপ্রিল কাশিমপুর কারাগারের জেল সুপারের মাধ্যমে রানার নামের সম্পদ বিবরণী নোটিশ পাঠানো হয়। ওই বছরের ৪ এপ্রিল রানা নিজে সই করে সম্পদ বিবরণী নোটিশ গ্রহণ করেন। ২৬ এপ্রিল তা পূরণ না করেই দুদকে পাঠান।

দুদকে সম্পদ বিবরণী দাখিল না করার অপরাধে ওই বছরের ২০ মে কমিশনের উপপরিচালক মাহবুবুল আলম বাদী হয়ে রাজধানীর রমনা থানায় একটি মামলা করেন। ২০১৬ সালের ১ আগস্ট আদালতে এ মামলার চার্জশিট (অভিযোগপত্র) দাখিল করা হয়। চলতি বছরের ২৩ মার্চ এ মামলায় সোহেল রানার বিরুদ্ধে চার্জগঠন করে বিচার শুরুর নির্দেশ দেয় আদালত। মামলাটিতে আটজনের সাক্ষ্যগ্রহণ করা হয়।