০৬:২৪ অপরাহ্ন, রবিবার, ২১ এপ্রিল ২০২৪

বৃষ্টি আরো ২ দিন হতে পারে

বুধবার সকাল থেকেই সারাদেশে শুরু হয়েছে গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টি। বৃহস্পতিবার সকালেও এই বৃষ্টির মাত্রা বেড়েছে। সেই সাথে বেড়েছে শীতের প্রকোপও।

আকাশে সাদা মেঘের ভেলা, বাতাসে হিমেল শিহরণ আর মিঠে রোদের আদর—এই হলো হেমন্ত। দুদিন ধরে অঘ্রানের এই রূপ দেখা যাচ্ছে না। আকাশটা হয়ে আছে ধুলোট মেঘের চাঁদোয়া, গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টিতে মাটি হয়েছে ভেজা প্যাঁচপ্যাঁচে।

আবহাওয়া অধিফতর বলছে, বঙ্গোপসাগরে লঘুচাপের প্রভাবে এভাবে বৃষ্টি হচ্ছে। এই বৃষ্টি আরো দু-এক দিন থাকতে পারে। বৃষ্টি চলে গেলে জেঁকে বসতে পারে শীত। আগামী রবিবার আকাশে হাসতে পারে সূর্য।

আজ বৃহস্পতিবার সকালে আবহাওয়া অধিদফতরের সতর্কবার্তায় বলা হয়েছে, বুধবার মধ্যরাতে নিম্নচাপটি চট্টগ্রাম সমুদ্রবন্দর থেকে ৯৮৫ কিলোমিটার দক্ষিণ–পশ্চিমে, কক্সবাজার থেকে ৯৬৫ কিলোমিটার দক্ষিণ–পশ্চিমে, মোংলা সমুদ্রবন্দর থেকে ৭৯৫ কিলোমিটার দক্ষিণ থেকে দক্ষিণ–পশ্চিমে এবং পায়রা সমুদ্রবন্দর থেকে ৮৩০ কিলোমিটার দক্ষিণ থেকে দক্ষিণ–পশ্চিমে অবস্থান করছিল। এটি আরো ঘনীভূত হয়ে উত্তর দিকে অগ্রসর হতে পারে। নিম্নচাপ কেন্দ্রের ৪৪ কিলোমিটারের মধ্যে বাতাসের একটানা সর্বোচ্চ গতিবেগ ঘণ্টায় ৪০ কিলোমিটার। এটি দমকা অথবা ঝোড়ো বাতাস হয়ে ৫০ কিলোমিটার পর্যন্ত বাড়ছে। নিম্নচাপ কেন্দ্রের নিকটবর্তী এলাকায় সাগর উত্তাল রয়েছে।

আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, দেশের কোথাও কোথাও মাঝারী ধরণের ভারী বর্ষণ হতে পারে। এছাড়া ঢাকা, খুলনা, রাজশাহী এবং বরিশাল বিভাগের অনেক জায়গায় এবং রংপুর, ময়মনসিংহ, চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের কিছু কিছু জায়গায় হালকা থেকে মাঝারী ধরনের বৃষ্টি অথবা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে।

বিজ্ঞপ্তিতে চট্রগ্রাম, কক্সবাজার,মংলা ও পায়রা সমুদ্রবন্দরকে ১ (এক) নম্বর পুনঃ ১ (এক) নম্বর দূরবর্তী সতর্ক সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে।

ট্যাগ :
জনপ্রিয়

বৃষ্টি আরো ২ দিন হতে পারে

প্রকাশিত : ১০:৪২:৩৭ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৬ নভেম্বর ২০১৭

বুধবার সকাল থেকেই সারাদেশে শুরু হয়েছে গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টি। বৃহস্পতিবার সকালেও এই বৃষ্টির মাত্রা বেড়েছে। সেই সাথে বেড়েছে শীতের প্রকোপও।

আকাশে সাদা মেঘের ভেলা, বাতাসে হিমেল শিহরণ আর মিঠে রোদের আদর—এই হলো হেমন্ত। দুদিন ধরে অঘ্রানের এই রূপ দেখা যাচ্ছে না। আকাশটা হয়ে আছে ধুলোট মেঘের চাঁদোয়া, গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টিতে মাটি হয়েছে ভেজা প্যাঁচপ্যাঁচে।

আবহাওয়া অধিফতর বলছে, বঙ্গোপসাগরে লঘুচাপের প্রভাবে এভাবে বৃষ্টি হচ্ছে। এই বৃষ্টি আরো দু-এক দিন থাকতে পারে। বৃষ্টি চলে গেলে জেঁকে বসতে পারে শীত। আগামী রবিবার আকাশে হাসতে পারে সূর্য।

আজ বৃহস্পতিবার সকালে আবহাওয়া অধিদফতরের সতর্কবার্তায় বলা হয়েছে, বুধবার মধ্যরাতে নিম্নচাপটি চট্টগ্রাম সমুদ্রবন্দর থেকে ৯৮৫ কিলোমিটার দক্ষিণ–পশ্চিমে, কক্সবাজার থেকে ৯৬৫ কিলোমিটার দক্ষিণ–পশ্চিমে, মোংলা সমুদ্রবন্দর থেকে ৭৯৫ কিলোমিটার দক্ষিণ থেকে দক্ষিণ–পশ্চিমে এবং পায়রা সমুদ্রবন্দর থেকে ৮৩০ কিলোমিটার দক্ষিণ থেকে দক্ষিণ–পশ্চিমে অবস্থান করছিল। এটি আরো ঘনীভূত হয়ে উত্তর দিকে অগ্রসর হতে পারে। নিম্নচাপ কেন্দ্রের ৪৪ কিলোমিটারের মধ্যে বাতাসের একটানা সর্বোচ্চ গতিবেগ ঘণ্টায় ৪০ কিলোমিটার। এটি দমকা অথবা ঝোড়ো বাতাস হয়ে ৫০ কিলোমিটার পর্যন্ত বাড়ছে। নিম্নচাপ কেন্দ্রের নিকটবর্তী এলাকায় সাগর উত্তাল রয়েছে।

আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, দেশের কোথাও কোথাও মাঝারী ধরণের ভারী বর্ষণ হতে পারে। এছাড়া ঢাকা, খুলনা, রাজশাহী এবং বরিশাল বিভাগের অনেক জায়গায় এবং রংপুর, ময়মনসিংহ, চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের কিছু কিছু জায়গায় হালকা থেকে মাঝারী ধরনের বৃষ্টি অথবা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে।

বিজ্ঞপ্তিতে চট্রগ্রাম, কক্সবাজার,মংলা ও পায়রা সমুদ্রবন্দরকে ১ (এক) নম্বর পুনঃ ১ (এক) নম্বর দূরবর্তী সতর্ক সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে।