০৩:৩৪ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৮ মে ২০২৪

পাবনায় ২৩ লাখ টাকাসহ উপজেলা চেয়ারম্যান আটক

ভোটের একদিন আগে গভীর রাতে প্রায় ২৩ লাখ টাকাসহ পাবনার সুজানগর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান প্রার্থী শাহিনুজ্জামান শাহীনসহ ১১ জনকে আটক করেছে র‌্যাব। পাশাপাশি উপজেলা চেয়ারম্যান শাহিনুজ্জামান শাহীনের নির্বাচনী কাজে ব্যবহৃত একটি গাড়িও জব্দ করা হয়।

সোমবার (৬ মে) রাত সাড়ে ১২টার দিকে সুজানগরের চর ভবানীপুরের নির্বাচনী এলাকা থেকে তাকে আটক করেন র‌্যাব-১২ ক্যাম্পের সদস্যরা।

শাহিনুজ্জামান শাহীন এবারের উপজেলা নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী (আনারস প্রতীক)। তিনি সুজানগর উপজেলা পরিষদের বর্তমান চেয়ারম্যান। এ ছাড়াও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হিসেবেও দায়িত্ব পালন করছেন তিনি। বাকি আটককৃতদের নাম-পরিচয় তাৎক্ষণিক জানা যায়নি। তবে আটককৃতদের মধ্যে সুজানগর পৌরসভার ৪ ও ৮ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলরও রয়েছেন।

এ বিষয়ে র‌্যাবের কোম্পানি কমান্ডার মেজর মো. এহতেশামুল হক খান বলেন, আগামী ৮ মে ষষ্ঠ উপজেলা পরিষদের প্রথমধাপের সুজানগর উপজেলা নির্বাচন উপলক্ষে আমাদের নিয়মিত টহল দল সুজানগরের চর ভবানীপুর এলাকায় টহল দিচ্ছিল। এ সময় উপজেলা চেয়ারম্যান প্রার্থী শাহীনুজ্জামান শাহীনকে দুই ব্যাগভর্তি ২২ লাখ ৮২ হাজার ৭শ টাকা ও দশ সহযোগীসহ আটক করা হয়। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানা গেছে, টাকাগুলো অসৎ উদ্দেশ্যে বিতরণের জন্য রাখা হয়েছিল। ভোটারদের নানাভাবে প্রভাবিত করার জন্য। আমরা রিটার্নিং কর্মকর্তাকে জানিয়েছি তিনি এসে ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন।

পাবনা জেলা নির্বাচন অফিসার ও নির্বাচনে দায়িত্বপ্রাপ্ত রিটার্নিং কর্মকর্তা মাহবুবুর রহমান জানান, বিষয়টি আমরা জানতে পেরেছি। বিধি মোতাবেক আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

বিজনেস বাংলাদেশ/DS

পাবনায় ২৩ লাখ টাকাসহ উপজেলা চেয়ারম্যান আটক

প্রকাশিত : ১০:৪৮:০৯ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ৭ মে ২০২৪

ভোটের একদিন আগে গভীর রাতে প্রায় ২৩ লাখ টাকাসহ পাবনার সুজানগর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান প্রার্থী শাহিনুজ্জামান শাহীনসহ ১১ জনকে আটক করেছে র‌্যাব। পাশাপাশি উপজেলা চেয়ারম্যান শাহিনুজ্জামান শাহীনের নির্বাচনী কাজে ব্যবহৃত একটি গাড়িও জব্দ করা হয়।

সোমবার (৬ মে) রাত সাড়ে ১২টার দিকে সুজানগরের চর ভবানীপুরের নির্বাচনী এলাকা থেকে তাকে আটক করেন র‌্যাব-১২ ক্যাম্পের সদস্যরা।

শাহিনুজ্জামান শাহীন এবারের উপজেলা নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী (আনারস প্রতীক)। তিনি সুজানগর উপজেলা পরিষদের বর্তমান চেয়ারম্যান। এ ছাড়াও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হিসেবেও দায়িত্ব পালন করছেন তিনি। বাকি আটককৃতদের নাম-পরিচয় তাৎক্ষণিক জানা যায়নি। তবে আটককৃতদের মধ্যে সুজানগর পৌরসভার ৪ ও ৮ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলরও রয়েছেন।

এ বিষয়ে র‌্যাবের কোম্পানি কমান্ডার মেজর মো. এহতেশামুল হক খান বলেন, আগামী ৮ মে ষষ্ঠ উপজেলা পরিষদের প্রথমধাপের সুজানগর উপজেলা নির্বাচন উপলক্ষে আমাদের নিয়মিত টহল দল সুজানগরের চর ভবানীপুর এলাকায় টহল দিচ্ছিল। এ সময় উপজেলা চেয়ারম্যান প্রার্থী শাহীনুজ্জামান শাহীনকে দুই ব্যাগভর্তি ২২ লাখ ৮২ হাজার ৭শ টাকা ও দশ সহযোগীসহ আটক করা হয়। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানা গেছে, টাকাগুলো অসৎ উদ্দেশ্যে বিতরণের জন্য রাখা হয়েছিল। ভোটারদের নানাভাবে প্রভাবিত করার জন্য। আমরা রিটার্নিং কর্মকর্তাকে জানিয়েছি তিনি এসে ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন।

পাবনা জেলা নির্বাচন অফিসার ও নির্বাচনে দায়িত্বপ্রাপ্ত রিটার্নিং কর্মকর্তা মাহবুবুর রহমান জানান, বিষয়টি আমরা জানতে পেরেছি। বিধি মোতাবেক আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

বিজনেস বাংলাদেশ/DS