০৩:৪৭ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২১ মে ২০২৪

ভালুকায় ৪০০ বস্তা ভারতীয় চিনিসহ গ্রেফতার ২

ময়মনসিংহের ভালুকায় তীর কোম্পানির সিলমোহর লাগানো ৪০০ বস্তা (২০ মেট্রিকটন) ভারতীয় চিনি ও একটি কাভার্ডভ্যানসহ দুজনকে গ্রেফতার করেছে মডেল থানা পুলিশ।

মঙ্গলবার (৭ মে) সকালে ভালুকা পৌরসভার ৮ নম্বর ওয়ার্ড, ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে এআর ফিলিং স্টেশনের পূর্ব পাশে তাদের গ্রেফতার ও চিনিগুলো জব্দ করা হয়। ওই ঘটনায় পুলিশ মডেল থানায় তাদের বিরুদ্ধে একটি মামলা করে।

গ্রেফতাররা হলেন কুমিল্লা জেলার দাউদকান্দি থানার মালিখালি গ্রামের মনির হোসেনের ছেলে কাভার্ডভ্যানের চালক আবিদ হোসেন (২৩) ও তার সহযোগী ময়মনসিংহের গফরগাঁও উপজেলার মুখি গ্রামের নিয়ামত আলীর ছেলে হেলপার আল আমীন (২৩)। ওই সময় নাঈম নামে অপর এক যুবক পালিয়ে যায়।

থানা সূত্রে জানা যায়, চুরাই পথে আনা ৪০০ বস্তা ভারতীয় চিনি (মূল্য ২৮ লাখ টাকা) ময়মনসিংহ জেলার হালুয়াঘাট থেকে নিয়ে একটি কাভার্ডভ্যান (ঢাকা-মেট্রো-উ-১২-২২০০) গাজীপুরের মাওনা নিয়ে যাচ্ছিল। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ভালুকা মডেল থানা পুলিশের একটি দল ঘটনাস্থল থেকে ৫০ কেজি ওজনের ৪০০ বস্তা চিনি, কাভার্ডভ্যানসহ চালক ও হেলপারকে গ্রেফতার করে।

উল্লেখ্য, গত ৫ এপ্রিল রাতে ভালুকা উপজেলার হবিরবাড়ির জামিরদিয়া আইডিয়াল মোড় এলাকা থেকে ৪০৯ বস্তা ভারতীয় চিনি জব্দ করা হলেও স্থানীয়দের যোগসাজশে রহস্যজনক কারণে চিনিগুলো গাজীপুর জেলার মাওনা এলাকার নাসির উদ্দিন নামে এক ব্যবসায়ী নিয়ে যান বলে অভিযোগ উঠে। অপরদিকে ২৬ মার্চ মাস্টারবাড়ি এলাকার নাজমুলের বাড়ি থেকে ২৪ বস্তা (৫০ কেজি) ভারতীয় চিনি জব্দ ও নাজমুলকে (২৫) গ্রেফতার করা হয়। তাছাড়া ৪ এপ্রিল ভালুকা উপজেলার চান্দের বাজার খোরশেদ মিয়ার স্টোর থেকে ফ্রেশ ও তীর কোম্পানির সিলমোহর লাগানো ১৪০ বস্তা (৫০ কেজি) ভারতীয় চিনি জব্দ করা হয়। এ সময় দোকান মালিক খোরশেদ আলমকে গ্রেফতার করা হয়।

ভালুকা মডেল থানার পরিদর্শক (ওসি) মোহাম্মদ শাহ কামাল আকিন্দ জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ৪০০ বস্তা ভারতীয় চিনি জব্দ ও দুজনকে গ্রেফতার করে আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে। এ সময় একটি কাভার্ডভ্যান জব্দ করা হয়েছে। এ ঘটনায় মামলা করা হয়েছে।

ট্যাগ :

ভালুকায় ৪০০ বস্তা ভারতীয় চিনিসহ গ্রেফতার ২

প্রকাশিত : ০৯:৫১:০৩ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৭ মে ২০২৪

ময়মনসিংহের ভালুকায় তীর কোম্পানির সিলমোহর লাগানো ৪০০ বস্তা (২০ মেট্রিকটন) ভারতীয় চিনি ও একটি কাভার্ডভ্যানসহ দুজনকে গ্রেফতার করেছে মডেল থানা পুলিশ।

মঙ্গলবার (৭ মে) সকালে ভালুকা পৌরসভার ৮ নম্বর ওয়ার্ড, ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে এআর ফিলিং স্টেশনের পূর্ব পাশে তাদের গ্রেফতার ও চিনিগুলো জব্দ করা হয়। ওই ঘটনায় পুলিশ মডেল থানায় তাদের বিরুদ্ধে একটি মামলা করে।

গ্রেফতাররা হলেন কুমিল্লা জেলার দাউদকান্দি থানার মালিখালি গ্রামের মনির হোসেনের ছেলে কাভার্ডভ্যানের চালক আবিদ হোসেন (২৩) ও তার সহযোগী ময়মনসিংহের গফরগাঁও উপজেলার মুখি গ্রামের নিয়ামত আলীর ছেলে হেলপার আল আমীন (২৩)। ওই সময় নাঈম নামে অপর এক যুবক পালিয়ে যায়।

থানা সূত্রে জানা যায়, চুরাই পথে আনা ৪০০ বস্তা ভারতীয় চিনি (মূল্য ২৮ লাখ টাকা) ময়মনসিংহ জেলার হালুয়াঘাট থেকে নিয়ে একটি কাভার্ডভ্যান (ঢাকা-মেট্রো-উ-১২-২২০০) গাজীপুরের মাওনা নিয়ে যাচ্ছিল। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ভালুকা মডেল থানা পুলিশের একটি দল ঘটনাস্থল থেকে ৫০ কেজি ওজনের ৪০০ বস্তা চিনি, কাভার্ডভ্যানসহ চালক ও হেলপারকে গ্রেফতার করে।

উল্লেখ্য, গত ৫ এপ্রিল রাতে ভালুকা উপজেলার হবিরবাড়ির জামিরদিয়া আইডিয়াল মোড় এলাকা থেকে ৪০৯ বস্তা ভারতীয় চিনি জব্দ করা হলেও স্থানীয়দের যোগসাজশে রহস্যজনক কারণে চিনিগুলো গাজীপুর জেলার মাওনা এলাকার নাসির উদ্দিন নামে এক ব্যবসায়ী নিয়ে যান বলে অভিযোগ উঠে। অপরদিকে ২৬ মার্চ মাস্টারবাড়ি এলাকার নাজমুলের বাড়ি থেকে ২৪ বস্তা (৫০ কেজি) ভারতীয় চিনি জব্দ ও নাজমুলকে (২৫) গ্রেফতার করা হয়। তাছাড়া ৪ এপ্রিল ভালুকা উপজেলার চান্দের বাজার খোরশেদ মিয়ার স্টোর থেকে ফ্রেশ ও তীর কোম্পানির সিলমোহর লাগানো ১৪০ বস্তা (৫০ কেজি) ভারতীয় চিনি জব্দ করা হয়। এ সময় দোকান মালিক খোরশেদ আলমকে গ্রেফতার করা হয়।

ভালুকা মডেল থানার পরিদর্শক (ওসি) মোহাম্মদ শাহ কামাল আকিন্দ জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ৪০০ বস্তা ভারতীয় চিনি জব্দ ও দুজনকে গ্রেফতার করে আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে। এ সময় একটি কাভার্ডভ্যান জব্দ করা হয়েছে। এ ঘটনায় মামলা করা হয়েছে।