০৩:১৬ অপরাহ্ন, রবিবার, ২১ এপ্রিল ২০২৪

মাধবদীতে করোনা রোগী শনাক্তকরণ স্যাম্পল কালেকশন বুথ উদ্বোধন করেন জেলা প্রশাসক সৈয়দা ফারহানা কাউনাইন

করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত রোগী শনাক্ত করণের জন্য স্যাম্পল বুথ উদ্বোধন করেন প্রধান অতিথ, জেলা প্রশাসক ও দেশের অভ্যন্তরীন করোনা ভাইরাস প্রতিরোধ সংক্রান্ত কমিটির সভাপতি সৈয়দা ফারহানা কাউনাইন। বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন সিভিল সার্জন  ডাঃ মোহাম্মদ ইব্রাহিম টিটন। সার্বিক সহযোগিতায় মাধবদী পৌরসভার মেয়র মোশাররফ হোসেন প্রধান মানিক।
২৮ মে, বৃহস্পতিবার সকালে মাধবদী এস পি স্কুলে এ বুথের উদ্বোধন করেন তিনি। সকাল বারোটা থেকে দুপুর দুইটা   পর্যন্ত এ বুথের কার্যক্রম চলবে।
এসময় উপস্থিত ছিলেন  অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক ও আহবায়ক করোনা প্রতিরোধক কমিটির ইমরুল কায়েস, এন ডি সি শাহরুখ খান, নরসিংদী প্রাইভেট ক্লিনিক এন্ড ডায়াগনস্টিক ও নার্স এসোসিয়েশন এর সাধারণ সম্পাদক সনেট মোঃ নোমান, নরসিংদী সদর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ মোঃ আবু কাউছার সুমন প্রমুখ।
মেয়র মোশাররফ হোসেন প্রধান মানিক বলেন, আজ মাধবদী পৌরসভার এস পি স্কুলে করোনা রোগী আক্রান্তদের স্যাম্পল বুথ উদ্বোধন করতে যিনি ছুটে এসেছেন তিনি হলেন নরসিংদী মানুষের জনবান্ধব জেলা প্রশাসক মহোদয় সৈয়দা ফারহানা কাউনাইন স্যার। যার সকল প্রকার সহযোগিতা আমরা সব সময় পেয়ে থাকি। শতব্যস্ততার মাঝেও যে স্যার আসছেন তার জন্য আমি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি।
মাধবদীর মানুষের নিরাপত্তার জন্য আমি ও আমার পৌরসভা সব ধরনের পদক্ষেপই নিয়েছি। করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে আমি জিবনের ঝুঁকি নিয়ে ই মানুষের জন্য কাজ করে যাচ্ছি। মানুষের সেবাই আমার আনন্দ ও সম্পদ। যতোদিন বাচি আল্লাহ চাইলে মানুষের জন্য এভাবেই কাজ করে যাবো।
জেলা প্রশাসক সৈয়দা ফারহানা কাউনাইন বলেন, করোনা ভাইরাসের ভয়াবহ সংক্রমণের হাত থেকে জনগণ কে রক্ষায় আমি ও আমার জেলা প্রশাসন দিন-রাত অক্লান্ত পরিশ্রম করে যাচ্ছি। তবে মেয়র সাহেবের এই উদ্যোগটি কিছুটা হলেও ভালো ফল বয়ে আনবে বলে আমি বিশ্বাস করি। জনগণকে স্বাস্থ্য বিধি মেনে চলতে হবে এবং করোনা আক্রান্ত হওয়ার লক্ষণ থাকলে তা পরিক্ষার মাধ্যমে নিশ্চিত হতে হবে।
তিনি বলেন, মাস্ক ব্যবহার করতে হবে, সাবান দিয়ে নিয়মিত হাত ধোতে হবে। বিনা প্রয়োজনে ঘর থেকে বের হওয়া যাবে না। সঠিক নিয়ম মেনে চিকিৎসা নিলে করোনা রোগ ভালো হয়।
তাই ভয় নয় নিয়ম মেনে চললে করোনা রোগ হয় না এবং চিকিৎসায় রোগী ও  ভালো হয়। তাই জনগণকে সবার আগে সচেতন হতে হবে।
তিনি বলেন, মহান আল্লাহর রহমতে আমি আশাবাদী আমাদের দেশ ও জাতি এই করোনা রোগ থেকে মুক্তি   পাবে ইনশাআল্লাহ। তিনি এসময় মেয়র সহ উপস্থিত সবাই কে ধন্যবাদ জানান। এবং তিন ফুট দুরত্ব বজায় রেখে চলাচলের ও আহবান জানান।
এসময় আরো বক্তব্য রাখেন, সিভিল সার্জন সহ উপস্থিত ব্যক্তিবর্গ।
বিজনেস বাংলাদেশ/ইমরান
জনপ্রিয়

মাধবদীতে করোনা রোগী শনাক্তকরণ স্যাম্পল কালেকশন বুথ উদ্বোধন করেন জেলা প্রশাসক সৈয়দা ফারহানা কাউনাইন

প্রকাশিত : ১০:১০:৪২ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৮ মে ২০২০
করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত রোগী শনাক্ত করণের জন্য স্যাম্পল বুথ উদ্বোধন করেন প্রধান অতিথ, জেলা প্রশাসক ও দেশের অভ্যন্তরীন করোনা ভাইরাস প্রতিরোধ সংক্রান্ত কমিটির সভাপতি সৈয়দা ফারহানা কাউনাইন। বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন সিভিল সার্জন  ডাঃ মোহাম্মদ ইব্রাহিম টিটন। সার্বিক সহযোগিতায় মাধবদী পৌরসভার মেয়র মোশাররফ হোসেন প্রধান মানিক।
২৮ মে, বৃহস্পতিবার সকালে মাধবদী এস পি স্কুলে এ বুথের উদ্বোধন করেন তিনি। সকাল বারোটা থেকে দুপুর দুইটা   পর্যন্ত এ বুথের কার্যক্রম চলবে।
এসময় উপস্থিত ছিলেন  অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক ও আহবায়ক করোনা প্রতিরোধক কমিটির ইমরুল কায়েস, এন ডি সি শাহরুখ খান, নরসিংদী প্রাইভেট ক্লিনিক এন্ড ডায়াগনস্টিক ও নার্স এসোসিয়েশন এর সাধারণ সম্পাদক সনেট মোঃ নোমান, নরসিংদী সদর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ মোঃ আবু কাউছার সুমন প্রমুখ।
মেয়র মোশাররফ হোসেন প্রধান মানিক বলেন, আজ মাধবদী পৌরসভার এস পি স্কুলে করোনা রোগী আক্রান্তদের স্যাম্পল বুথ উদ্বোধন করতে যিনি ছুটে এসেছেন তিনি হলেন নরসিংদী মানুষের জনবান্ধব জেলা প্রশাসক মহোদয় সৈয়দা ফারহানা কাউনাইন স্যার। যার সকল প্রকার সহযোগিতা আমরা সব সময় পেয়ে থাকি। শতব্যস্ততার মাঝেও যে স্যার আসছেন তার জন্য আমি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি।
মাধবদীর মানুষের নিরাপত্তার জন্য আমি ও আমার পৌরসভা সব ধরনের পদক্ষেপই নিয়েছি। করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে আমি জিবনের ঝুঁকি নিয়ে ই মানুষের জন্য কাজ করে যাচ্ছি। মানুষের সেবাই আমার আনন্দ ও সম্পদ। যতোদিন বাচি আল্লাহ চাইলে মানুষের জন্য এভাবেই কাজ করে যাবো।
জেলা প্রশাসক সৈয়দা ফারহানা কাউনাইন বলেন, করোনা ভাইরাসের ভয়াবহ সংক্রমণের হাত থেকে জনগণ কে রক্ষায় আমি ও আমার জেলা প্রশাসন দিন-রাত অক্লান্ত পরিশ্রম করে যাচ্ছি। তবে মেয়র সাহেবের এই উদ্যোগটি কিছুটা হলেও ভালো ফল বয়ে আনবে বলে আমি বিশ্বাস করি। জনগণকে স্বাস্থ্য বিধি মেনে চলতে হবে এবং করোনা আক্রান্ত হওয়ার লক্ষণ থাকলে তা পরিক্ষার মাধ্যমে নিশ্চিত হতে হবে।
তিনি বলেন, মাস্ক ব্যবহার করতে হবে, সাবান দিয়ে নিয়মিত হাত ধোতে হবে। বিনা প্রয়োজনে ঘর থেকে বের হওয়া যাবে না। সঠিক নিয়ম মেনে চিকিৎসা নিলে করোনা রোগ ভালো হয়।
তাই ভয় নয় নিয়ম মেনে চললে করোনা রোগ হয় না এবং চিকিৎসায় রোগী ও  ভালো হয়। তাই জনগণকে সবার আগে সচেতন হতে হবে।
তিনি বলেন, মহান আল্লাহর রহমতে আমি আশাবাদী আমাদের দেশ ও জাতি এই করোনা রোগ থেকে মুক্তি   পাবে ইনশাআল্লাহ। তিনি এসময় মেয়র সহ উপস্থিত সবাই কে ধন্যবাদ জানান। এবং তিন ফুট দুরত্ব বজায় রেখে চলাচলের ও আহবান জানান।
এসময় আরো বক্তব্য রাখেন, সিভিল সার্জন সহ উপস্থিত ব্যক্তিবর্গ।
বিজনেস বাংলাদেশ/ইমরান