০২:৪১ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৪

শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে ১ম বারের মতো এম.এস. ইন ফুড সেফটি কোর্স ও ফুড সেফটি ল্যাব চালু

নেদারল্যান্ড সরকারের সহায়তায় (OKP-BGD-104475 Project) রাজধানীর শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে ১ম বারের চালু হল এম.এস. ইন ফুড সেফটি কোর্স ও ফুড সেফটি ল্যাব, যেখানে ছাত্র-ছাত্রীরা ফুড সেফটি বিষয়ক বিভিন্ন গবেষণার সুযোগ পাবে। আজ রবিবার সকাল ১০.৩০ টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ভবনের চতুর্থতলার সম্মেলন কক্ষে এম.এস, ইন ফুড সেফটি কোর্সের ছাত্র-ছাত্রীদের ওরিয়েন্টশনের মাধ্যমে ১ম বারের মত এ কোর্সের উদ্ভোধন করা হয়। এছাড়া সকাল ১০ টায় ওয়াজেদ মিয়া গবেষণা কেন্দ্রে ফুড সেফটি ল্যাবের উদ্ভোধন করে জাতীয় নিরাপদ খাদ্য দিবস উপলক্ষে একটি র‍্যালি বের করা হয়। র‍্যালি শেষে ফুড সেফটির নানান গুরুত্ব তুলে ধরে অতিথিরা বক্তব্য রাখেন।

শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. শহীদুর রশীদ ভূঁইয়ার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন মি. থেইস ওস্ট্রা, চার্জ দ্যা অ্যাফেয়ার্স, নেদারল্যান্ড এম্বাসী। প্রফেসর ড. মো: তাজুল ইসলাম চৌধুরীর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. অলোক কুমার পাল, কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. মো: নজরুল ইসলাম, এবং FAO এর সহকারী প্রতিনিধি মি. নুর আহমেদ খন্দকার, বাংলাদেশ ফুড সেফটি অথরিটির সম্মানীত সদস্য অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ শোয়েব।

অনুষ্ঠানে OKP-BGD-104475 Project এর শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের পার্টের ফোকাল পারসন অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ আরিফুল ইসলাম নিরাপদ খাদ্যের নানান গুরুত্ব ও প্রজেক্টের কার্যক্রম তুলে ধরে বক্তব্য দেন। অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ পাবলিক সার্ভিস কমিশন এর সাবেক সদস্য অধ্যাপক ড. নুরজাহান বেগম ও পোস্ট গ্র্যাজুয়েট স্টাডিজ এর ডীন অধ্যাপক ড. মোঃ আব্দুর রাজ্জাক। এছাড়া অনুষ্ঠানে জাইকা ও ইউএসএইড এর প্রতিনিধিসহ বিভিন্ন সরকারী ও বেসরকারী সংস্থার সদস্য ও বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক ও ছাত্র-ছাত্রীরা উপস্থিত ছিলেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে মি. থেইস ওস্ট্রা বলেন, ১৯৭২ সালের আজকের এই দিনে নেদারল্যান্ডস বাংলাদেশকে স্বাধীন বাংলাদেশ হিসেবে স্বীকৃতি দিয়েছিল। সুতরাং আজকে আমাদের সম্পর্কের ৫২ বছর হতে যাচ্ছে। শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে বলেন, বাংলাদেশে ফুড সেফটির একটি যুগান্তকারী যাত্রা শুরু হতে যাচ্ছে। আশা করি তোমরা সবাই এক একজন “সিস্টেম চেঞ্জার” হিসেবে ভূমিকা রাখবে।

সভাপতির বক্তব্যে অধ্যাপক ড. শহীদুর রশীদ ভূঁইয়া বলেন, আমাদের দেশে খাদ্য নিরাপত্তা বিষয়ে দক্ষ জনশক্তি দরকার। তোমরা যদি শিক্ষাজীবনে গুরুত্ব দাও এবং দক্ষতা বৃদ্ধি করো, তাহলে তোমাদের জন্য চাকরি প্রাপ্তি অনেক সহজ হবে। এছাড়াও তিনি নেদারল্যান্ডস সরকারকে গবেষণাগার উন্নয়নে সহযোগিতার আহ্বান জানান।

ওরিয়েন্টেশন শেষে জাতীয় নিরাপদ খাদ্য দিবস-২০২৪ উপলক্ষে আয়োজিত পোষ্টার বানানোর প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদেরকে পুরষ্কার ও সার্টিফিকেট প্রদান করা হয়।

ট্যাগ :
জনপ্রিয়

ধানমন্ডি ৩২ নম্বরে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে কর্মসংস্থান ব্যাংকের নবনিযুক্ত ব্যবস্থাপনা পরিচালকের শ্রদ্ধা জ্ঞাপন

শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে ১ম বারের মতো এম.এস. ইন ফুড সেফটি কোর্স ও ফুড সেফটি ল্যাব চালু

প্রকাশিত : ০৮:৫০:১৬ অপরাহ্ন, রবিবার, ১১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

নেদারল্যান্ড সরকারের সহায়তায় (OKP-BGD-104475 Project) রাজধানীর শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে ১ম বারের চালু হল এম.এস. ইন ফুড সেফটি কোর্স ও ফুড সেফটি ল্যাব, যেখানে ছাত্র-ছাত্রীরা ফুড সেফটি বিষয়ক বিভিন্ন গবেষণার সুযোগ পাবে। আজ রবিবার সকাল ১০.৩০ টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ভবনের চতুর্থতলার সম্মেলন কক্ষে এম.এস, ইন ফুড সেফটি কোর্সের ছাত্র-ছাত্রীদের ওরিয়েন্টশনের মাধ্যমে ১ম বারের মত এ কোর্সের উদ্ভোধন করা হয়। এছাড়া সকাল ১০ টায় ওয়াজেদ মিয়া গবেষণা কেন্দ্রে ফুড সেফটি ল্যাবের উদ্ভোধন করে জাতীয় নিরাপদ খাদ্য দিবস উপলক্ষে একটি র‍্যালি বের করা হয়। র‍্যালি শেষে ফুড সেফটির নানান গুরুত্ব তুলে ধরে অতিথিরা বক্তব্য রাখেন।

শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. শহীদুর রশীদ ভূঁইয়ার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন মি. থেইস ওস্ট্রা, চার্জ দ্যা অ্যাফেয়ার্স, নেদারল্যান্ড এম্বাসী। প্রফেসর ড. মো: তাজুল ইসলাম চৌধুরীর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. অলোক কুমার পাল, কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. মো: নজরুল ইসলাম, এবং FAO এর সহকারী প্রতিনিধি মি. নুর আহমেদ খন্দকার, বাংলাদেশ ফুড সেফটি অথরিটির সম্মানীত সদস্য অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ শোয়েব।

অনুষ্ঠানে OKP-BGD-104475 Project এর শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের পার্টের ফোকাল পারসন অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ আরিফুল ইসলাম নিরাপদ খাদ্যের নানান গুরুত্ব ও প্রজেক্টের কার্যক্রম তুলে ধরে বক্তব্য দেন। অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ পাবলিক সার্ভিস কমিশন এর সাবেক সদস্য অধ্যাপক ড. নুরজাহান বেগম ও পোস্ট গ্র্যাজুয়েট স্টাডিজ এর ডীন অধ্যাপক ড. মোঃ আব্দুর রাজ্জাক। এছাড়া অনুষ্ঠানে জাইকা ও ইউএসএইড এর প্রতিনিধিসহ বিভিন্ন সরকারী ও বেসরকারী সংস্থার সদস্য ও বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক ও ছাত্র-ছাত্রীরা উপস্থিত ছিলেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে মি. থেইস ওস্ট্রা বলেন, ১৯৭২ সালের আজকের এই দিনে নেদারল্যান্ডস বাংলাদেশকে স্বাধীন বাংলাদেশ হিসেবে স্বীকৃতি দিয়েছিল। সুতরাং আজকে আমাদের সম্পর্কের ৫২ বছর হতে যাচ্ছে। শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে বলেন, বাংলাদেশে ফুড সেফটির একটি যুগান্তকারী যাত্রা শুরু হতে যাচ্ছে। আশা করি তোমরা সবাই এক একজন “সিস্টেম চেঞ্জার” হিসেবে ভূমিকা রাখবে।

সভাপতির বক্তব্যে অধ্যাপক ড. শহীদুর রশীদ ভূঁইয়া বলেন, আমাদের দেশে খাদ্য নিরাপত্তা বিষয়ে দক্ষ জনশক্তি দরকার। তোমরা যদি শিক্ষাজীবনে গুরুত্ব দাও এবং দক্ষতা বৃদ্ধি করো, তাহলে তোমাদের জন্য চাকরি প্রাপ্তি অনেক সহজ হবে। এছাড়াও তিনি নেদারল্যান্ডস সরকারকে গবেষণাগার উন্নয়নে সহযোগিতার আহ্বান জানান।

ওরিয়েন্টেশন শেষে জাতীয় নিরাপদ খাদ্য দিবস-২০২৪ উপলক্ষে আয়োজিত পোষ্টার বানানোর প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদেরকে পুরষ্কার ও সার্টিফিকেট প্রদান করা হয়।