০৪:১৩ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২৫ মে ২০২৪

একসাথে চার শিশুর জন্ম, চিকিৎসাধীন তিনজনের মৃত্যু

জামালপুরের ইসলামপুরে একসাথে চার সন্তান প্রসব করেছেন খুশি বেগম (৩০) নামের এক প্রসূতি। শিশুদের ওজন কম হওয়ায় চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিন সন্তানের মৃত্যু হয়েছে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন চিকিৎসক।

বুধবার (১৫ মে) সকালে ইসলামপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে খুশি বেগম নামের এক প্রসূতির কোন প্রকার অস্ত্রোপচার ছাড়াই স্বাভাবিক ভাবে ৩টি ছেলে ও ১টি মেয়ে সন্তান প্রসব করেন। শিশুদের ওজন কম হওয়ায় উন্নত চিকিৎসার জন্য জামালপুর জেনারেল হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিন সন্তানের মৃত্যু হয়। খুশি বেগম উপজেলার চিনাডুলী ইউনিয়নের গুঠাইল গিলাবাড়ী বেপারী পাড়া এলাকার শফিকুল ইসলামের স্ত্রী। তিনি গার্মেন্টসে চাকুরী করতেন সম্প্রতি তিনি বাড়িতে আসেন।

স্থানীয় ও প্রসূতির পরিবার সূত্রে জানা যায়, সকাল আটটায় হঠাৎ তার প্রসব ব্যথা উঠলে স্বজনরা দ্রুত ইসলামপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসে। সেখানে চিকিৎসক ও সেবিকাদের সহযোগিতায় স্বাভাবিকভাবে ওই প্রসূতি চার সন্তান প্রসব করেন। অপরিপক্ক শিশু জন্ম হওয়ায় কর্তব্যরত চিকিৎসক উন্নত চিকিৎসার জন্য প্রসূতি ও নবজাতক শিশুদের জামালপুর জেনারেল হাসপাতালে প্রেরণ করেন। পরে নবজাতকদের শিশু নিবিড় পর্যবেক্ষণ কেন্দ্রে ভর্তি করা হয়। পরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় এক মেয়ে ও দুই ছেলে মারা যায়।

এ বিষয়ে জামালপুর জেনারেল হাসপাতালের সহকারী পরিচালক ডাঃ মোঃ মাহফুজুর রহমান সোহান বলেন, ইসলাপুর থেকে প্রসূতি মা ও চার নবজাতক শিশু হাসপাতালে আসেন। অপরিপক্ক নবজাতকদের শিশু নিবিড় পর্যবেক্ষণ কেন্দ্রে ভর্তি দেওয়া হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিন সন্তান মারা যায়। জীবিত একজনের অবস্থাও সঙ্কটাপন্ন রয়েছে।

ট্যাগ :

একসাথে চার শিশুর জন্ম, চিকিৎসাধীন তিনজনের মৃত্যু

প্রকাশিত : ০৯:৪৪:২৯ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৫ মে ২০২৪

জামালপুরের ইসলামপুরে একসাথে চার সন্তান প্রসব করেছেন খুশি বেগম (৩০) নামের এক প্রসূতি। শিশুদের ওজন কম হওয়ায় চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিন সন্তানের মৃত্যু হয়েছে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন চিকিৎসক।

বুধবার (১৫ মে) সকালে ইসলামপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে খুশি বেগম নামের এক প্রসূতির কোন প্রকার অস্ত্রোপচার ছাড়াই স্বাভাবিক ভাবে ৩টি ছেলে ও ১টি মেয়ে সন্তান প্রসব করেন। শিশুদের ওজন কম হওয়ায় উন্নত চিকিৎসার জন্য জামালপুর জেনারেল হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিন সন্তানের মৃত্যু হয়। খুশি বেগম উপজেলার চিনাডুলী ইউনিয়নের গুঠাইল গিলাবাড়ী বেপারী পাড়া এলাকার শফিকুল ইসলামের স্ত্রী। তিনি গার্মেন্টসে চাকুরী করতেন সম্প্রতি তিনি বাড়িতে আসেন।

স্থানীয় ও প্রসূতির পরিবার সূত্রে জানা যায়, সকাল আটটায় হঠাৎ তার প্রসব ব্যথা উঠলে স্বজনরা দ্রুত ইসলামপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসে। সেখানে চিকিৎসক ও সেবিকাদের সহযোগিতায় স্বাভাবিকভাবে ওই প্রসূতি চার সন্তান প্রসব করেন। অপরিপক্ক শিশু জন্ম হওয়ায় কর্তব্যরত চিকিৎসক উন্নত চিকিৎসার জন্য প্রসূতি ও নবজাতক শিশুদের জামালপুর জেনারেল হাসপাতালে প্রেরণ করেন। পরে নবজাতকদের শিশু নিবিড় পর্যবেক্ষণ কেন্দ্রে ভর্তি করা হয়। পরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় এক মেয়ে ও দুই ছেলে মারা যায়।

এ বিষয়ে জামালপুর জেনারেল হাসপাতালের সহকারী পরিচালক ডাঃ মোঃ মাহফুজুর রহমান সোহান বলেন, ইসলাপুর থেকে প্রসূতি মা ও চার নবজাতক শিশু হাসপাতালে আসেন। অপরিপক্ক নবজাতকদের শিশু নিবিড় পর্যবেক্ষণ কেন্দ্রে ভর্তি দেওয়া হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিন সন্তান মারা যায়। জীবিত একজনের অবস্থাও সঙ্কটাপন্ন রয়েছে।