০১:৫৬ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪

কুমিল্লায় দশ লক্ষাধিক শিশুকে খাওয়ানো হবে ভিটামিন-এ প্লাস ক্যাপসুল

আগামী ১ জুন জাতীয় ভিটামিন এ প্লাস ক্যাম্পেইন অনুষ্ঠিত হবে। কুমিল্লা জেলায় সর্বমোট ৪৯৩২টি কেন্দ্রে এই ক্যাপসুল খাওয়ানোর কার্যক্রম দিনব্যাপি চলবে। সিভিল সার্জন কার্যালয়ের তথ্য মতে, ৬- ১১ মাস বয়সী শিশু পাবে ১ লাখ ৮ হাজার ৭৮৪ জন এবং ৮ লাখ ৪৬ হাজার ৮৯৭ জন ১২ থেকে ৫৯ মাস বয়সী শিশুকে ভিটামিন এ প্লাস ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে।
কুমিল্লা জেলা সিভিল সার্জন ডা. নাছিমা আক্তার জানান, ১ তারিখ ক্যাম্পেইন চলবে সকাল ৮ টা থেকে বিকাল ৪ টা। ভিটামিন-এ প্লাস ক্যাপসুল শিশুর রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়।
সিভিল সার্জন ডা. নাছিমা আকতার বলেন, এবারে কুমিল্লা জেলার ১৭টি উপজেলা ও ১টি সিটি কর্পোরেশনে ১৯৬টি ইউনিয়নে ৫৮৮টি ওয়ার্ডে অস্থায়ী, স্থায়ী, সিটি কর্পোরেশন এবং অতিরিক্তসহ সর্বমোট ৪৯৩২ টি কেন্দ্র এবং ৯৮৬৪ জন মাঠ কর্মী ও স্বেচ্ছাসেবক কাজ করবে। ৯লাখ ৫৫ হাজার ৬শ ৮১জন লোকসংখ‍্যার মধ্যে ৬ থেকে ১১ মাস বয়সী শিশু নীল রঙের ভিটামিন ‘এ’ ক‍্যাপসুল ১লক্ষ ৮ হাজার ৭শ ৮৪ জন এবং ১২ থেকে ৫৯ মাস বয়সী শিশু লাল রঙের ভিটামিন ‘এ’ ক‍্যাপসুল ৮ লাখ ৪৬ হাজার ৮শ ৯৭ জন শিশুকে পহেলা জুনে খাওয়ানো হবে।
বৃহস্পতিবার (৩০মে) সকালে সিভিল সার্জন কার্যালয়ে সম্মেলন কক্ষে সাংবাদিকদের জন্য আয়োজিত ওরিয়েন্টেশন কর্মশালায় সিভিল সার্জন এসব কথা বলেন।
কুমিল্লা সিটি করপোরেশন এর ১০৯ টি কেন্দ্র এই ভিটামিন এ প্লাস ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে।
সিটি কর্পোরেশনের মেয়র তাহসিন বাহার সূচনা জানান, কুমিল্লা নগরীর ৭ হাজার ৮২৫ জন ৬ থেকে ১১ মাস বয়সী শিশু নীল ক্যাপসুল এবং ৪৭ হাজার ৩৬৬ জন ১২ থেকে ৫৯ বয়সের শিশুকে লাল ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে।
সিটি কর্পোরেশনে ভিটামিনের প্লাস ক্যাম্পাইনের সহযোগী হিসেবে থাকবেন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক বৃন্দ, আরবান প্রাইমারি হেলথ কেয়ার প্রজেক্ট, সূর্যের হাসি ক্লিনিক, রোটারি ক্লাব ও জাগ্রত মানবিকতা।
কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশনের স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. চন্দনা রানী দেবনাথ জানান, খালি পেটে কোন শিশুকে ভিটামিন এ প্লাস ট্যাবলেট দেয়া হবে। ট্যাবলেট খাওনোর আগে অবশ্যই স্বাস্থ্যকর্মীর পরামর্শ নেয়া উচিত।
ট্যাগ :
জনপ্রিয়

কুমিল্লায় দশ লক্ষাধিক শিশুকে খাওয়ানো হবে ভিটামিন-এ প্লাস ক্যাপসুল

প্রকাশিত : ০৯:৪৮:১৭ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪
আগামী ১ জুন জাতীয় ভিটামিন এ প্লাস ক্যাম্পেইন অনুষ্ঠিত হবে। কুমিল্লা জেলায় সর্বমোট ৪৯৩২টি কেন্দ্রে এই ক্যাপসুল খাওয়ানোর কার্যক্রম দিনব্যাপি চলবে। সিভিল সার্জন কার্যালয়ের তথ্য মতে, ৬- ১১ মাস বয়সী শিশু পাবে ১ লাখ ৮ হাজার ৭৮৪ জন এবং ৮ লাখ ৪৬ হাজার ৮৯৭ জন ১২ থেকে ৫৯ মাস বয়সী শিশুকে ভিটামিন এ প্লাস ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে।
কুমিল্লা জেলা সিভিল সার্জন ডা. নাছিমা আক্তার জানান, ১ তারিখ ক্যাম্পেইন চলবে সকাল ৮ টা থেকে বিকাল ৪ টা। ভিটামিন-এ প্লাস ক্যাপসুল শিশুর রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়।
সিভিল সার্জন ডা. নাছিমা আকতার বলেন, এবারে কুমিল্লা জেলার ১৭টি উপজেলা ও ১টি সিটি কর্পোরেশনে ১৯৬টি ইউনিয়নে ৫৮৮টি ওয়ার্ডে অস্থায়ী, স্থায়ী, সিটি কর্পোরেশন এবং অতিরিক্তসহ সর্বমোট ৪৯৩২ টি কেন্দ্র এবং ৯৮৬৪ জন মাঠ কর্মী ও স্বেচ্ছাসেবক কাজ করবে। ৯লাখ ৫৫ হাজার ৬শ ৮১জন লোকসংখ‍্যার মধ্যে ৬ থেকে ১১ মাস বয়সী শিশু নীল রঙের ভিটামিন ‘এ’ ক‍্যাপসুল ১লক্ষ ৮ হাজার ৭শ ৮৪ জন এবং ১২ থেকে ৫৯ মাস বয়সী শিশু লাল রঙের ভিটামিন ‘এ’ ক‍্যাপসুল ৮ লাখ ৪৬ হাজার ৮শ ৯৭ জন শিশুকে পহেলা জুনে খাওয়ানো হবে।
বৃহস্পতিবার (৩০মে) সকালে সিভিল সার্জন কার্যালয়ে সম্মেলন কক্ষে সাংবাদিকদের জন্য আয়োজিত ওরিয়েন্টেশন কর্মশালায় সিভিল সার্জন এসব কথা বলেন।
কুমিল্লা সিটি করপোরেশন এর ১০৯ টি কেন্দ্র এই ভিটামিন এ প্লাস ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে।
সিটি কর্পোরেশনের মেয়র তাহসিন বাহার সূচনা জানান, কুমিল্লা নগরীর ৭ হাজার ৮২৫ জন ৬ থেকে ১১ মাস বয়সী শিশু নীল ক্যাপসুল এবং ৪৭ হাজার ৩৬৬ জন ১২ থেকে ৫৯ বয়সের শিশুকে লাল ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে।
সিটি কর্পোরেশনে ভিটামিনের প্লাস ক্যাম্পাইনের সহযোগী হিসেবে থাকবেন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক বৃন্দ, আরবান প্রাইমারি হেলথ কেয়ার প্রজেক্ট, সূর্যের হাসি ক্লিনিক, রোটারি ক্লাব ও জাগ্রত মানবিকতা।
কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশনের স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. চন্দনা রানী দেবনাথ জানান, খালি পেটে কোন শিশুকে ভিটামিন এ প্লাস ট্যাবলেট দেয়া হবে। ট্যাবলেট খাওনোর আগে অবশ্যই স্বাস্থ্যকর্মীর পরামর্শ নেয়া উচিত।