০১:৩৭ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪

লাখ টাকার চুক্তিতে জালিয়াতি করে ভোটার হতে গিয়ে রোহিঙ্গা যুবক আটক

কক্সবাজারের উখিয়া রোহিঙ্গা ক্যাম্পের বেস্টনি ভেঙে কক্সবাজার এসে বাংলাদেশী ভোটার হতে গিয়ে কক্সবাজার নির্বাচন অফিসে জাহেদ উল্লাহ (২২) নামে এক রোহিঙ্গা যুবককে আটক করে পুলিশে সোর্পদ করেছে কক্সবাজার পৌরসভার ৭নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর ওসমান সরওয়ার টিপু।

বুধবার (৫ জুন) বিকেল ৩টার দিকে কক্সবাজার নির্বাচন অফিসে ভোটার হতে এসে তিনি ধরা পড়েন। জাহেদ উল্লাহ উখিয়া কুতুপালং রোহিঙ্গা ৭ নাম্বার ক্যাম্পের বাসিন্দা। এ বিষয়ে পৌরসভায় প্রেস ব্রিফিং করে নিশ্চিত করেন ভারপ্রাপ্ত মেয়র সালাউদ্দিন সেতু ও ৭নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর ওসমান সরওয়ার টিপু।

আটক জাহেদ উল্লাহ জানান, মালয়েশিয়া যাওয়ার উদ্দেশ্যে ২ লাখ টাকার বিনিময়ে বাংলাদেশী দালালের মাধ্যমে সে ভোটার হতে চেয়েছিলো। মুুফিজ এবং জুহুরা নামে দুই দালালের মাধ্যমে তিনি বাংলাদেশী এনআইডি কার্ড তৈরী করতে চেয়েছিলো। ইতোমধ্যে সে দালালদের ১ লক্ষ টাকার প্রদান করা হয়েছে এবং কাজ হলে বাকি টাকা দেয়ার কথা ছিল।

কক্সবাজার পৌরসভার ৭নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর ওসমান সরওয়ার টিপু জানান, তিনি নির্বাচন অফিসে গিয়ে জানতে পারে তার ওয়ার্ডের হয়ে দালালের মাধ্যমে ভূয়া কাগজপত্র তৈরী করে ভোটার হতে আসছে কতিপয় রোহিঙ্গা। পরে সন্দেহের ভিত্তিতে নির্বাচন অফিসের কর্মকর্তারা ফাইলগুলো চেক করার সময় কৌশলে দৌড়ে পালিয়ে যাবার চেষ্টাকালে কাউন্সিলর টিপুর সহযোগীরা তাকে ধরে ফেলে। পরে জিজ্ঞেসাবাদে অকপটে সবকিছু স্বীকার করে। এছাড়া সে আরও জানায় মালয়েশিয়া যাবার উদ্দেশ্যে মফিজ ও জহুরা নামে ব্যাক্তির মাধ্যমে দুই লক্ষ টাকার বিনিময়ে সে বাংলাদেশী ভোটার হতে চেয়েছিলেন।

কক্সবাজার পৌরসভার ভারপ্রাপ্ত মেয়র সালাউদ্দিন সেতু জানান, কক্সবাজার পৌরসভায় দালালে ভরে গেছে। যার ফলে প্রতিটা কদমে কদমে মানুষ তাদের কবলে পড়ছে। এই বিষয়ে তিনি আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সহযোগিতা কামনা করেছেন।

ইতোমধ্যে আটক রোহিঙ্গা যুবককে পরবর্তী ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য পুলিশের কাছে সোর্পদ করা হয়েছে।

ট্যাগ :
জনপ্রিয়

লাখ টাকার চুক্তিতে জালিয়াতি করে ভোটার হতে গিয়ে রোহিঙ্গা যুবক আটক

প্রকাশিত : ০৭:৩৪:৫৫ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৬ জুন ২০২৪

কক্সবাজারের উখিয়া রোহিঙ্গা ক্যাম্পের বেস্টনি ভেঙে কক্সবাজার এসে বাংলাদেশী ভোটার হতে গিয়ে কক্সবাজার নির্বাচন অফিসে জাহেদ উল্লাহ (২২) নামে এক রোহিঙ্গা যুবককে আটক করে পুলিশে সোর্পদ করেছে কক্সবাজার পৌরসভার ৭নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর ওসমান সরওয়ার টিপু।

বুধবার (৫ জুন) বিকেল ৩টার দিকে কক্সবাজার নির্বাচন অফিসে ভোটার হতে এসে তিনি ধরা পড়েন। জাহেদ উল্লাহ উখিয়া কুতুপালং রোহিঙ্গা ৭ নাম্বার ক্যাম্পের বাসিন্দা। এ বিষয়ে পৌরসভায় প্রেস ব্রিফিং করে নিশ্চিত করেন ভারপ্রাপ্ত মেয়র সালাউদ্দিন সেতু ও ৭নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর ওসমান সরওয়ার টিপু।

আটক জাহেদ উল্লাহ জানান, মালয়েশিয়া যাওয়ার উদ্দেশ্যে ২ লাখ টাকার বিনিময়ে বাংলাদেশী দালালের মাধ্যমে সে ভোটার হতে চেয়েছিলো। মুুফিজ এবং জুহুরা নামে দুই দালালের মাধ্যমে তিনি বাংলাদেশী এনআইডি কার্ড তৈরী করতে চেয়েছিলো। ইতোমধ্যে সে দালালদের ১ লক্ষ টাকার প্রদান করা হয়েছে এবং কাজ হলে বাকি টাকা দেয়ার কথা ছিল।

কক্সবাজার পৌরসভার ৭নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর ওসমান সরওয়ার টিপু জানান, তিনি নির্বাচন অফিসে গিয়ে জানতে পারে তার ওয়ার্ডের হয়ে দালালের মাধ্যমে ভূয়া কাগজপত্র তৈরী করে ভোটার হতে আসছে কতিপয় রোহিঙ্গা। পরে সন্দেহের ভিত্তিতে নির্বাচন অফিসের কর্মকর্তারা ফাইলগুলো চেক করার সময় কৌশলে দৌড়ে পালিয়ে যাবার চেষ্টাকালে কাউন্সিলর টিপুর সহযোগীরা তাকে ধরে ফেলে। পরে জিজ্ঞেসাবাদে অকপটে সবকিছু স্বীকার করে। এছাড়া সে আরও জানায় মালয়েশিয়া যাবার উদ্দেশ্যে মফিজ ও জহুরা নামে ব্যাক্তির মাধ্যমে দুই লক্ষ টাকার বিনিময়ে সে বাংলাদেশী ভোটার হতে চেয়েছিলেন।

কক্সবাজার পৌরসভার ভারপ্রাপ্ত মেয়র সালাউদ্দিন সেতু জানান, কক্সবাজার পৌরসভায় দালালে ভরে গেছে। যার ফলে প্রতিটা কদমে কদমে মানুষ তাদের কবলে পড়ছে। এই বিষয়ে তিনি আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সহযোগিতা কামনা করেছেন।

ইতোমধ্যে আটক রোহিঙ্গা যুবককে পরবর্তী ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য পুলিশের কাছে সোর্পদ করা হয়েছে।