০১:৪২ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৪ জুন ২০২৪

কুমিল্লা নগরীতে ফোমের গোডাউন থেকে আবাসিক ভবনে ভয়াবহ আগুন

কুমিল্লা নগরীর কান্দিপাড় এলাকায় ফোমের গোডাউন থেকে আবাসিক ভবনে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। পরে ফায়ার সার্ভিসের ৪টি ইউনিটের চেষ্টায় প্রায় ২ ঘণ্টা পর আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে।
বৃহস্পতিবার (০৬ জুন) কুমিল্লা নগরীর কান্দিরপাড় জিলা স্কুল সংলগ্ন চৌধুরী ভবনে এই ঘটনা ঘটে।
স্থানীয় ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, দুপুর ১২ টার দিকে চৌধুরী ভিলা নামক চারতলা ভবনের নিচতলায় ফোমের গোডাউনে আগুন লাগে। পরে সেখান থেকে আগুন ছড়িয়ে পড়ে পার্শ্ববর্তী ইব্রাহীম ভবনসহ আরো একটি ভবনে।
পরে স্থানীয়রা ফায়ার সার্ভিসে খবর দিলে ফায়ার সার্ভিসের ৪টি ইউনিট এসে আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ শুরু করে। দুপুর ২ টার দিকে আগুন পুরোপুরি নিয়ন্ত্রণে আসে।
এ বিষয়ে কুমিল্লা ফায়ার সার্ভিসের সহকারী পরিচালক তৌফিকুল ইসলাম ভূঁইয়া জানা, ‘আমরা প্রাথমিকভাবে ধারণা করছি যে ফোমের গোডাউন থেকে আগুন ছড়িয়েছে। তবে গোডাউনে কীভাবে আগুনে লেগেছে তা অনুসন্ধান করে বের করা হবে। এখন পর্যন্ত ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ কত-তা জানা যায়নি। দ্রুততম সময়ে সকলকে উদ্ধার করা হয়েছে। এতো বড় ঘটনায় কোন মানুষের প্রাণহানী হয়নি- এটাই আমাদের বড় প্রাপ্তি।’
এ বিষয়ে কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশনের কাউন্সিলর হাবিবুর আল-আমিন সাদি জানান, স্থানীয় এলাকাবাসী-ফায়ার সার্ভিস ও পুলিশসহ দ্রুততম সময়ে উদ্ধার কাজ করায় এ ঘটনায় কোনো হতাহতের ঘটনা ঘটেনি। আবাসিক ভবনের নিচে এভাবে গোডাউন করা সম্পূর্ণ বেআইনি। যারা এখানে গোডাউন করেছে- তাদের বিরুদ্ধে সিটি করপোরেশন ব্যবস্থা নেবে। আর এ অগ্নিকাণ্ডে ভবনে মোট ৩টি ভবন ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে। আমরা এ ভবনগুলোতে মানুষ বসবাসের উপযোগী কিনা তা খতিয়ে দেখবো।
ট্যাগ :
জনপ্রিয়

কুমিল্লা নগরীতে ফোমের গোডাউন থেকে আবাসিক ভবনে ভয়াবহ আগুন

প্রকাশিত : ০৭:৪৬:০৯ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৬ জুন ২০২৪
কুমিল্লা নগরীর কান্দিপাড় এলাকায় ফোমের গোডাউন থেকে আবাসিক ভবনে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। পরে ফায়ার সার্ভিসের ৪টি ইউনিটের চেষ্টায় প্রায় ২ ঘণ্টা পর আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে।
বৃহস্পতিবার (০৬ জুন) কুমিল্লা নগরীর কান্দিরপাড় জিলা স্কুল সংলগ্ন চৌধুরী ভবনে এই ঘটনা ঘটে।
স্থানীয় ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, দুপুর ১২ টার দিকে চৌধুরী ভিলা নামক চারতলা ভবনের নিচতলায় ফোমের গোডাউনে আগুন লাগে। পরে সেখান থেকে আগুন ছড়িয়ে পড়ে পার্শ্ববর্তী ইব্রাহীম ভবনসহ আরো একটি ভবনে।
পরে স্থানীয়রা ফায়ার সার্ভিসে খবর দিলে ফায়ার সার্ভিসের ৪টি ইউনিট এসে আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ শুরু করে। দুপুর ২ টার দিকে আগুন পুরোপুরি নিয়ন্ত্রণে আসে।
এ বিষয়ে কুমিল্লা ফায়ার সার্ভিসের সহকারী পরিচালক তৌফিকুল ইসলাম ভূঁইয়া জানা, ‘আমরা প্রাথমিকভাবে ধারণা করছি যে ফোমের গোডাউন থেকে আগুন ছড়িয়েছে। তবে গোডাউনে কীভাবে আগুনে লেগেছে তা অনুসন্ধান করে বের করা হবে। এখন পর্যন্ত ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ কত-তা জানা যায়নি। দ্রুততম সময়ে সকলকে উদ্ধার করা হয়েছে। এতো বড় ঘটনায় কোন মানুষের প্রাণহানী হয়নি- এটাই আমাদের বড় প্রাপ্তি।’
এ বিষয়ে কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশনের কাউন্সিলর হাবিবুর আল-আমিন সাদি জানান, স্থানীয় এলাকাবাসী-ফায়ার সার্ভিস ও পুলিশসহ দ্রুততম সময়ে উদ্ধার কাজ করায় এ ঘটনায় কোনো হতাহতের ঘটনা ঘটেনি। আবাসিক ভবনের নিচে এভাবে গোডাউন করা সম্পূর্ণ বেআইনি। যারা এখানে গোডাউন করেছে- তাদের বিরুদ্ধে সিটি করপোরেশন ব্যবস্থা নেবে। আর এ অগ্নিকাণ্ডে ভবনে মোট ৩টি ভবন ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে। আমরা এ ভবনগুলোতে মানুষ বসবাসের উপযোগী কিনা তা খতিয়ে দেখবো।