০৫:৫২ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৬ এপ্রিল ২০২৪

টঙ্গীতে নারী উদ্যোক্তাদের পন্যের মেলা

অনলাইনে ও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে পণ্য বেচাকেনা করা নারী উদ্যোক্তাদের আয়োজনে টঙ্গীতে দুই দিনব্যাপী উদ্যোক্তা মেলার আয়োজন করা হয়েছে।

শুক্রবার বিকেলে টঙ্গী পাইলট স্কুল এন্ড গার্লস কলেজ মাঠে এ মেলা শুরু হয়েছে। নারীদের হাতে তৈরি করা পণ্য এই মেলায় জায়গা পেয়েছে। ক্রেতা-বিক্রেতা ও দর্শনার্থীদের উপস্থিতি মেলাকে প্রাণবন্ত করে তুলেছে।

জানা যায়, উইমেনস এন্ড ই কমার্সের উদ্যোগে মেলাটির নামকরন করা হয়েছে ‘ইউ হাটবাজার’।মেলায় অংশ নিয়েছেন ৩০ জন নারী উদ্যোক্তা। বাড়িতে বসে  হাতে তৈরি করা মুখরোচক খাবার, হস্তশিল্প, কুটির শিল্পসহ বিভিন্ন ডিজাইনের পোশাক ও নানা রকম পণ্য বিক্রি করেন নারীরা। এই মেলায় নারী উদ্যোক্তারা ২০ টি স্টল দিয়েছেন।

মেলায় আগত এক ক্রেতা নাফিসা বলেন, প্রতি বারই এ মেলায় আসি। মেলায় হস্তশিল্পের নানা পণ্য দেখতে পেলাম।মেলাটি বড় পরিসরে হলে ভালো হতো।

উইমেনস এন্ড ই কমার্স উদ্যোক্তা সংগঠনটির টঙ্গী প্রতিনিধি জেবুনেছা চুমকি  বলেন, নারীরা যে পিছিয়ে নেই তা এই মেলার মাধ্যমে আমরা প্রকাশ করছি। গতবছর এ মেলা থেকে আমরা আমরা প্রায় চার লাখ টাকা বিক্রি করেছিলাম। আগামীতে আমরা মেলাটি সাত দিন ব্যাপি করবো। তাছাড়া টঙ্গীর বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের মেয়েদের নানা প্রশিক্ষণের মাধ্যমে নারী উদ্যোক্তা তৈরিতে কাজ করছি।

বিজনেস বাংলাদেশ/বিএইচ

ট্যাগ :
জনপ্রিয়

ইসরায়েলকে সতর্ক করল হোয়াইট হাউজ

টঙ্গীতে নারী উদ্যোক্তাদের পন্যের মেলা

প্রকাশিত : ০৮:০৬:৪০ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৭ মার্চ ২০২৪

অনলাইনে ও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে পণ্য বেচাকেনা করা নারী উদ্যোক্তাদের আয়োজনে টঙ্গীতে দুই দিনব্যাপী উদ্যোক্তা মেলার আয়োজন করা হয়েছে।

শুক্রবার বিকেলে টঙ্গী পাইলট স্কুল এন্ড গার্লস কলেজ মাঠে এ মেলা শুরু হয়েছে। নারীদের হাতে তৈরি করা পণ্য এই মেলায় জায়গা পেয়েছে। ক্রেতা-বিক্রেতা ও দর্শনার্থীদের উপস্থিতি মেলাকে প্রাণবন্ত করে তুলেছে।

জানা যায়, উইমেনস এন্ড ই কমার্সের উদ্যোগে মেলাটির নামকরন করা হয়েছে ‘ইউ হাটবাজার’।মেলায় অংশ নিয়েছেন ৩০ জন নারী উদ্যোক্তা। বাড়িতে বসে  হাতে তৈরি করা মুখরোচক খাবার, হস্তশিল্প, কুটির শিল্পসহ বিভিন্ন ডিজাইনের পোশাক ও নানা রকম পণ্য বিক্রি করেন নারীরা। এই মেলায় নারী উদ্যোক্তারা ২০ টি স্টল দিয়েছেন।

মেলায় আগত এক ক্রেতা নাফিসা বলেন, প্রতি বারই এ মেলায় আসি। মেলায় হস্তশিল্পের নানা পণ্য দেখতে পেলাম।মেলাটি বড় পরিসরে হলে ভালো হতো।

উইমেনস এন্ড ই কমার্স উদ্যোক্তা সংগঠনটির টঙ্গী প্রতিনিধি জেবুনেছা চুমকি  বলেন, নারীরা যে পিছিয়ে নেই তা এই মেলার মাধ্যমে আমরা প্রকাশ করছি। গতবছর এ মেলা থেকে আমরা আমরা প্রায় চার লাখ টাকা বিক্রি করেছিলাম। আগামীতে আমরা মেলাটি সাত দিন ব্যাপি করবো। তাছাড়া টঙ্গীর বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের মেয়েদের নানা প্রশিক্ষণের মাধ্যমে নারী উদ্যোক্তা তৈরিতে কাজ করছি।

বিজনেস বাংলাদেশ/বিএইচ