০৫:১৩ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২৬ মে ২০২৪

ফরিদপুরের নির্মাণ শ্রমিকের হত্যার ঘটনাস্থল পরিদর্শন ধর্মমন্ত্রীর

ফরিদপুরের মধুখালীতে কালী মন্দির ঘিরে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় সন্দেহের বসে দুই শ্রমিককে নিহতের ঘটনাটি সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি নির্দিষ্ট করার জন্য হতে পারে বলে মন্তব্য করলেন ধর্মমন্ত্রী ফরিদুল হক এমপি।
তিনি জেলার মধুখালী উপজেলার নওপাড়া গ্রামে নিহত দুই শ্রমিকের পিতা মাতাকে সমবেদনা জানিয়ে তোমায় ইউনিয়নের পঞ্চ পল্লী এলাকার কালী মন্দিরটি পরিদর্শন করেন। সেখানে পঞ্চ পল্লী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে আটকে রেখে ১০ জন  নির্মাণ শ্রমিকের উপর মধ্যযুগীয় কায়দায় হাত-পা বেঁধে নীর্য নির্যাতন করা রুমটি ঘুরে ঘুরে দেখেন।
পরে নিহতেদের কবর জিয়ারত করেন। এই উপস্থিত ছিলে রংরক্ষিত মহিলা সংসদ সদস্য মিসেস ঝর্ণা হাসান, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শামীম হক, সাধারন সম্পাদক শাহ্ মোঃ ইশতিয়াক আরিফ সহ প্রমূখ।
মন্ত্রী সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে বলেন বলেন, ঘটনাটি দুঃখজনক তিনি তার নিন্দা জানান সেই সাথে জানান এলাকায় আওয়ামী লীগের নেতাকর্মী এবং প্রশাসনের নাকের ডগায় এমন একটি হত্যাকাণ্ড মেনে নেওয়া যায় না। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিষয়টি গুরুত্বের সঙ্গে বিবেচনা করে ঘটনার সাথে যারাই জড়িত থাকুক তাদেরকে তদন্ত করে বের করে বিচারের আওতায় আনার জন্য বলা হলে তিনি এলাকা দুটিতে পরিদর্শন করে সকলকে তা আশ্বাস দেন।
এ সময় তিনি নিহত পরিবারের জন প্রতি ১ লাখ টাকা করে দুই লাখ ও আহতদের ২৫ হাজার টাকা করে দেওয়ার ঘোষণা দেন। সময় তিনি আরো জানান ফরিদপুরের পুলিশ প্রশাসনের গঠন করা কমিটি তিন দিনের মধ্যে প্রকৃত ঘটনা উদঘাটন করতে না পারলে তাদের বিশেষ টিমের মাধ্যমে এ বিষয়ে তদন্ত করে প্রকৃত বিষয়টি উৎঘাটন করা হবে।
ফরিদপুরের পুলিশ সুপার মোরশেদ আলম ও জেলা প্রশাসক কামরুল আহসান তালুকদার ঘটনার তদন্ত করতে জেলা প্রশাসন ও পুলিশ প্রশাসনের পক্ষ হতে তিন সদস্য করে দুটি টিমগঠন করা হয়েছে। তাদের দেওয়া কমিটি তদন্ত করে যে প্রতিবেদন দেবেন তার আলোকেই আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
এদিকে এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে মন্দিরটির রক্ষণাবেক্ষণকারী তপতী অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা একটি মামলা করেছে। অপরদিকে নিহতের পিতা বাদী হয়ে একটা হত্যা মামলা দায়ের করা করেছে অপরদিকে পুলিশ অ্যাসল্ট মামলায় মধুখালী থানার এস আই শংকর কুমার বালা অপর একটি মামলা করেছেন।
ট্যাগ :

ফরিদপুরের নির্মাণ শ্রমিকের হত্যার ঘটনাস্থল পরিদর্শন ধর্মমন্ত্রীর

প্রকাশিত : ০৯:৩৯:০৪ অপরাহ্ন, শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০২৪
ফরিদপুরের মধুখালীতে কালী মন্দির ঘিরে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় সন্দেহের বসে দুই শ্রমিককে নিহতের ঘটনাটি সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি নির্দিষ্ট করার জন্য হতে পারে বলে মন্তব্য করলেন ধর্মমন্ত্রী ফরিদুল হক এমপি।
তিনি জেলার মধুখালী উপজেলার নওপাড়া গ্রামে নিহত দুই শ্রমিকের পিতা মাতাকে সমবেদনা জানিয়ে তোমায় ইউনিয়নের পঞ্চ পল্লী এলাকার কালী মন্দিরটি পরিদর্শন করেন। সেখানে পঞ্চ পল্লী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে আটকে রেখে ১০ জন  নির্মাণ শ্রমিকের উপর মধ্যযুগীয় কায়দায় হাত-পা বেঁধে নীর্য নির্যাতন করা রুমটি ঘুরে ঘুরে দেখেন।
পরে নিহতেদের কবর জিয়ারত করেন। এই উপস্থিত ছিলে রংরক্ষিত মহিলা সংসদ সদস্য মিসেস ঝর্ণা হাসান, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শামীম হক, সাধারন সম্পাদক শাহ্ মোঃ ইশতিয়াক আরিফ সহ প্রমূখ।
মন্ত্রী সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে বলেন বলেন, ঘটনাটি দুঃখজনক তিনি তার নিন্দা জানান সেই সাথে জানান এলাকায় আওয়ামী লীগের নেতাকর্মী এবং প্রশাসনের নাকের ডগায় এমন একটি হত্যাকাণ্ড মেনে নেওয়া যায় না। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিষয়টি গুরুত্বের সঙ্গে বিবেচনা করে ঘটনার সাথে যারাই জড়িত থাকুক তাদেরকে তদন্ত করে বের করে বিচারের আওতায় আনার জন্য বলা হলে তিনি এলাকা দুটিতে পরিদর্শন করে সকলকে তা আশ্বাস দেন।
এ সময় তিনি নিহত পরিবারের জন প্রতি ১ লাখ টাকা করে দুই লাখ ও আহতদের ২৫ হাজার টাকা করে দেওয়ার ঘোষণা দেন। সময় তিনি আরো জানান ফরিদপুরের পুলিশ প্রশাসনের গঠন করা কমিটি তিন দিনের মধ্যে প্রকৃত ঘটনা উদঘাটন করতে না পারলে তাদের বিশেষ টিমের মাধ্যমে এ বিষয়ে তদন্ত করে প্রকৃত বিষয়টি উৎঘাটন করা হবে।
ফরিদপুরের পুলিশ সুপার মোরশেদ আলম ও জেলা প্রশাসক কামরুল আহসান তালুকদার ঘটনার তদন্ত করতে জেলা প্রশাসন ও পুলিশ প্রশাসনের পক্ষ হতে তিন সদস্য করে দুটি টিমগঠন করা হয়েছে। তাদের দেওয়া কমিটি তদন্ত করে যে প্রতিবেদন দেবেন তার আলোকেই আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
এদিকে এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে মন্দিরটির রক্ষণাবেক্ষণকারী তপতী অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা একটি মামলা করেছে। অপরদিকে নিহতের পিতা বাদী হয়ে একটা হত্যা মামলা দায়ের করা করেছে অপরদিকে পুলিশ অ্যাসল্ট মামলায় মধুখালী থানার এস আই শংকর কুমার বালা অপর একটি মামলা করেছেন।