০৩:১৪ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪

বিজয়নগরে জাল নোট তৈরির সরঞ্জাম ও জাল নোটসহ গ্রেফতার তিন

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বিজয়নগর থেকে জালনোট তৈরির সরঞ্জাম ও বিপুল পরিমাণ জাল টাকাসহ ৩ জনকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-৯।

বৃহস্পতিবার (২ মে) র‌্যাব-৯, সিপিসি-১ এর সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, সাম্প্রতিক সময়ে লক্ষ্য করা যাচ্ছে দেশের বিভিন্ন স্থানে জাল নোট প্রস্তুতকারী ও বাজার জাতকারী চক্রের সদস্যরা জাল নোট প্রস্তুত করে ব্রাহ্মণবাড়িয়াসহ সারা দেশের বিভিন্ন মার্কেটে সিন্ডিকেটের মাধ্যমে জাল টাকা প্রতারণামূলক ভাবে বাজারজাতকরণ করে আসছে।এই চক্রের সদস্যরা অল্প সময়ে অধিক মুনাফার আশায় আসল টাকার ভিতর জাল টাকা মিলিয়ে লেনদেন করে সাধারণ মানুষকে ধোঁকা দিচ্ছে।

এরই প্রেক্ষিতে জাল নোট প্রস্তুত ও বাজারজাতকারী চক্রের সদস্যদের গ্রেফতারের মাধ্যমে আইনের আওতায় আনতে র‌্যাব-৯ এর গোয়েন্দা নজরদারি বৃদ্ধি করে।গোপন সংবাদের ভিত্তিতে র‌্যাব-৯, সিপিসি-১, ব্রাহ্মণবাড়িয়া জানতে পারে যে, জাল নোট বাজার জাতকারী চক্রের তিনজন অসাধু ব্যক্তি ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার বিজয়নগর এলাকায় অবৈধভাবে জাল নোট লেনদেন করার উদ্দেশ্যে অবস্থান করছে।

উক্ত সংবাদের প্রেক্ষিতে র‌্যাব-৯, সিপিসি-১, ব্রাহ্মণবাড়িয়া কোম্পানির একটি আভিযানিক দল ২ মে, বৃহস্পতিবার রাত আনুমানিক ১১.৩০ মিনিটের সময় ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার বিজয়নগর উপজেলার কামালমোড়া এলাকায় বিশেষ অভিযান পরিচালনা করে বাংলাদেশি ৪,৮৮,৫০০ টাকা মূল্যমানের জাল টাকা ও জাল নোট তৈরির সরঞ্জামাদি (স্ক্যানার সংযুক্ত কালার প্রিন্টার, প্রিন্টারের পাউডার কালি, জাল নোট তৈরির জন্য ব্যবহৃত সাদা কাগজ,হার্ড ড্রাইভ, কী বোর্ড, মাউস, মাল্টিফ্লাগসহ ইলেকট্রিক ক্যাবল, এন্টি কাটার এবং খালি জারিকেন) ইত্যাদি-সহ জাল নোট প্রস্তুতকারী ও বাজারজাতকারী চক্রের তিনজন সদস্যকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়।ংত্রফতারকৃত ব্যক্তিরা হলেন, মো. রাসেল হাজী (৩২), চাদঁপুর, আলমগীর হোসেন (৩৪) ফেনী এবং মো. সানি মিয়া (১৯), ব্রাহ্মণবাড়িয়া।পরবর্তী আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের লক্ষ্যে গ্রেফতারকৃত আসামীদেরকে সংশ্লিষ্ট ধারায় মামলা দায়ের পূর্বক আসামি ও জব্দকৃত জাল টাকা এবং জালনোট তৈরির সরঞ্জামাদি ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার সংশ্লিষ্ট থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

এছাড়াও এই চক্রের অন্যান্য সদস্য এবং যে কোন পর্যায়ের জাল নোট প্রস্তুতের সাথে জড়িত ব্যক্তিদের গ্রেফতারে র‌্যাব-৯ এর গোয়েন্দা নজরদারি এবং চলমান অভিযান অব্যাহত থাকবে।

বিজনেস বাংলাদেশ/DS

ট্যাগ :

বিজয়নগরে জাল নোট তৈরির সরঞ্জাম ও জাল নোটসহ গ্রেফতার তিন

প্রকাশিত : ০৪:১৬:৫২ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ৩ মে ২০২৪

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বিজয়নগর থেকে জালনোট তৈরির সরঞ্জাম ও বিপুল পরিমাণ জাল টাকাসহ ৩ জনকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-৯।

বৃহস্পতিবার (২ মে) র‌্যাব-৯, সিপিসি-১ এর সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, সাম্প্রতিক সময়ে লক্ষ্য করা যাচ্ছে দেশের বিভিন্ন স্থানে জাল নোট প্রস্তুতকারী ও বাজার জাতকারী চক্রের সদস্যরা জাল নোট প্রস্তুত করে ব্রাহ্মণবাড়িয়াসহ সারা দেশের বিভিন্ন মার্কেটে সিন্ডিকেটের মাধ্যমে জাল টাকা প্রতারণামূলক ভাবে বাজারজাতকরণ করে আসছে।এই চক্রের সদস্যরা অল্প সময়ে অধিক মুনাফার আশায় আসল টাকার ভিতর জাল টাকা মিলিয়ে লেনদেন করে সাধারণ মানুষকে ধোঁকা দিচ্ছে।

এরই প্রেক্ষিতে জাল নোট প্রস্তুত ও বাজারজাতকারী চক্রের সদস্যদের গ্রেফতারের মাধ্যমে আইনের আওতায় আনতে র‌্যাব-৯ এর গোয়েন্দা নজরদারি বৃদ্ধি করে।গোপন সংবাদের ভিত্তিতে র‌্যাব-৯, সিপিসি-১, ব্রাহ্মণবাড়িয়া জানতে পারে যে, জাল নোট বাজার জাতকারী চক্রের তিনজন অসাধু ব্যক্তি ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার বিজয়নগর এলাকায় অবৈধভাবে জাল নোট লেনদেন করার উদ্দেশ্যে অবস্থান করছে।

উক্ত সংবাদের প্রেক্ষিতে র‌্যাব-৯, সিপিসি-১, ব্রাহ্মণবাড়িয়া কোম্পানির একটি আভিযানিক দল ২ মে, বৃহস্পতিবার রাত আনুমানিক ১১.৩০ মিনিটের সময় ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার বিজয়নগর উপজেলার কামালমোড়া এলাকায় বিশেষ অভিযান পরিচালনা করে বাংলাদেশি ৪,৮৮,৫০০ টাকা মূল্যমানের জাল টাকা ও জাল নোট তৈরির সরঞ্জামাদি (স্ক্যানার সংযুক্ত কালার প্রিন্টার, প্রিন্টারের পাউডার কালি, জাল নোট তৈরির জন্য ব্যবহৃত সাদা কাগজ,হার্ড ড্রাইভ, কী বোর্ড, মাউস, মাল্টিফ্লাগসহ ইলেকট্রিক ক্যাবল, এন্টি কাটার এবং খালি জারিকেন) ইত্যাদি-সহ জাল নোট প্রস্তুতকারী ও বাজারজাতকারী চক্রের তিনজন সদস্যকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়।ংত্রফতারকৃত ব্যক্তিরা হলেন, মো. রাসেল হাজী (৩২), চাদঁপুর, আলমগীর হোসেন (৩৪) ফেনী এবং মো. সানি মিয়া (১৯), ব্রাহ্মণবাড়িয়া।পরবর্তী আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের লক্ষ্যে গ্রেফতারকৃত আসামীদেরকে সংশ্লিষ্ট ধারায় মামলা দায়ের পূর্বক আসামি ও জব্দকৃত জাল টাকা এবং জালনোট তৈরির সরঞ্জামাদি ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার সংশ্লিষ্ট থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

এছাড়াও এই চক্রের অন্যান্য সদস্য এবং যে কোন পর্যায়ের জাল নোট প্রস্তুতের সাথে জড়িত ব্যক্তিদের গ্রেফতারে র‌্যাব-৯ এর গোয়েন্দা নজরদারি এবং চলমান অভিযান অব্যাহত থাকবে।

বিজনেস বাংলাদেশ/DS