০২:৩৯ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৩ এপ্রিল ২০২৪

রাজবাড়ীতে বাবার বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে

রাজবাড়ীতে বাবা বিরুদ্ধে মা-হারা শিশু সন্তানকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। নরপশু এই বাবা দিনের পর দিন তার শিশু সন্তানকে ধর্ষণ করেও বিকৃত লালসা মেটেনি। মাদকের আসরের সঙ্গীকে দিয়েও নিজের ঔরসজাত সন্তানকে ধর্ষণ করিয়েছে বাবা নামের ওই নরপশু।

এ ঘটনায় শিশুটির নানীর অভিযোগের ভিত্তিতে পুলিশ অভিযুক্ত বাবা রহমান কাজী (৩৫) ও তার বন্ধু সুমন মিয়াকে (২৬) গ্রেফতার করেছে। রাজবাড়ী জেলা সদরের রামকান্তপুরে এ ঘটনা ঘটেছে।

রাজবাড়ী সদর থানার ওসি (তদন্ত) কামাল হোসেন ভূইয়া জানান, ভিকটিমের নানী বাবার দ্বারা মেয়েকে ধর্ষণের অভিযোগে বুধবার থানায় মামলা করেছেন। মামলায় ভিকটিমের বাবা রহমান কাজী ও সুমনকে আসামি করা হয়েছে। মামলার পরিপ্রেক্ষিতে ওই রাতেই অভিযুক্তদের গ্রেফতার করা হয়।

অন্যদিকে বৃহস্পতিবার দুপুরে রাজবাড়ী সদর হাসপাতালে শিশুটির ডাক্তারি পরীক্ষা সম্পন্ন হয়েছে। একই দিন আদালতে তার জবানবন্দী রেকর্ড করা হবে।

নির্যাতিতা শিশুটি জানায়, প্রায় আড়াই বছর আগে তার মা মারা যান। ওর বাবার বাড়ি এবং নানা বাড়ি একই গ্রামে হওয়ায় শিশুটি নানা বাড়িতে থেকে পড়ালেখা করে। ওর মাদকাসক্ত বাবা প্রায়ই তাকে তার বাড়িতে নিয়ে মারধর করে ধর্ষণ করতো। কিন্তু ভয়ে ঘটনাটি সে কখনো কাউকে বলেনি।

এভাবে দীর্ঘদিন ধরে সন্তানকে ধর্ষণ করে আসছিলো রহমান কাজী। এক সপ্তাহ আগে রহমান তার মাদকাসক্ত বন্ধু রামকান্তপুর এলাকার সুমনকে দিয়ে শিশুটিকে ধর্ষণ করায়। এরপর ঘটনাটি নানীকে জানায় শিশুটি।

ট্যাগ :
জনপ্রিয়

রাজবাড়ীতে বাবার বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে

প্রকাশিত : ০২:৫৩:৩২ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৯ নভেম্বর ২০১৭

রাজবাড়ীতে বাবা বিরুদ্ধে মা-হারা শিশু সন্তানকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। নরপশু এই বাবা দিনের পর দিন তার শিশু সন্তানকে ধর্ষণ করেও বিকৃত লালসা মেটেনি। মাদকের আসরের সঙ্গীকে দিয়েও নিজের ঔরসজাত সন্তানকে ধর্ষণ করিয়েছে বাবা নামের ওই নরপশু।

এ ঘটনায় শিশুটির নানীর অভিযোগের ভিত্তিতে পুলিশ অভিযুক্ত বাবা রহমান কাজী (৩৫) ও তার বন্ধু সুমন মিয়াকে (২৬) গ্রেফতার করেছে। রাজবাড়ী জেলা সদরের রামকান্তপুরে এ ঘটনা ঘটেছে।

রাজবাড়ী সদর থানার ওসি (তদন্ত) কামাল হোসেন ভূইয়া জানান, ভিকটিমের নানী বাবার দ্বারা মেয়েকে ধর্ষণের অভিযোগে বুধবার থানায় মামলা করেছেন। মামলায় ভিকটিমের বাবা রহমান কাজী ও সুমনকে আসামি করা হয়েছে। মামলার পরিপ্রেক্ষিতে ওই রাতেই অভিযুক্তদের গ্রেফতার করা হয়।

অন্যদিকে বৃহস্পতিবার দুপুরে রাজবাড়ী সদর হাসপাতালে শিশুটির ডাক্তারি পরীক্ষা সম্পন্ন হয়েছে। একই দিন আদালতে তার জবানবন্দী রেকর্ড করা হবে।

নির্যাতিতা শিশুটি জানায়, প্রায় আড়াই বছর আগে তার মা মারা যান। ওর বাবার বাড়ি এবং নানা বাড়ি একই গ্রামে হওয়ায় শিশুটি নানা বাড়িতে থেকে পড়ালেখা করে। ওর মাদকাসক্ত বাবা প্রায়ই তাকে তার বাড়িতে নিয়ে মারধর করে ধর্ষণ করতো। কিন্তু ভয়ে ঘটনাটি সে কখনো কাউকে বলেনি।

এভাবে দীর্ঘদিন ধরে সন্তানকে ধর্ষণ করে আসছিলো রহমান কাজী। এক সপ্তাহ আগে রহমান তার মাদকাসক্ত বন্ধু রামকান্তপুর এলাকার সুমনকে দিয়ে শিশুটিকে ধর্ষণ করায়। এরপর ঘটনাটি নানীকে জানায় শিশুটি।