০৩:৩২ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৪

লালমনিরহাটে ৪ বছরের শিশুকে হত্যার অভিযোগ

লালমনিরহাটের কালীগঞ্জে পারিবারিক কলহের জেরে আলো মনি নামে চার বছরের এক শিশুকে হত্যার অভিযোগ উঠেছে। বৃহস্পতিবার সকালে উপজেলার দক্ষিণ দলগ্রাম এলাকার একটি পুকুর থেকে শিশুটির লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। আলো মনি ওই এলাকার আলমগীর হোসেনের মেয়ে।

কালীগঞ্জ থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) রাজু আহমেদ জানান, আলমগীরের সাথে দীর্ঘদিন ধরে তার প্রতিবেশী আশরাফুলের স্ত্রী লাকী বেগমের বিবাদ চলে আসছে। এর আগেও টিউবওয়েলে বিষ দিয়ে আলমগীরের পুরো পরিবারকে হত্যার চেষ্টা চালায় লাকী। যা আদালতে মামলাটি বিচারাধীন।

বুধবার রাতে মেয়েকে বাড়িতে রেখে কাজের প্রয়োজনে আলমগীর ও তার স্ত্রী আফরোজা বেগম বাড়ির বাইরে যায়। এ সুযোগে আলো মনিকে গলা টিপে হত্যা করে পাশের পুকুরে ফেলে দেয় লাকী।

বাড়ি ফিরে মেয়ে না পেয়ে বিভিন্ন স্থানে খোঁজার পর গভীর রাতে পাশের পুকুরের আলো মনির লাশ ভাসতে দেখতে পায়। খবর পেয়ে বৃহস্পতিবার সকালে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে লালমনিরহাট সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠায়।

এ ঘটনায় মেয়েকে হত্যার অভিযোগে লাকীকে প্রধান ও অজ্ঞতনামা আরো দুই তিনজনকে আসামি করে কালীগঞ্জ থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন আফরোজা।

লালমনিরহাট সহকারী পুলিশ সুপার (বি সার্কেল) হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দী ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, বিবাদের জেরে এ ঘটনা ঘটাতে পারে বলে তিনি শুনেছেন। তবে বিষয়টি তদন্ত না করে কিছুই বলা যাচ্ছে না।

তিনি বলেন, হত্যা মামলা হয়েছে। আসামিদের গ্রেফতারে জোড় চেষ্টা চলছে।

 

ট্যাগ :
জনপ্রিয়

ইসরায়েলে আঘাত হেনেছে হিজবুল্লাহর ড্রোন, আহত ১৮

লালমনিরহাটে ৪ বছরের শিশুকে হত্যার অভিযোগ

প্রকাশিত : ০৩:৫৪:৪৩ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৬ নভেম্বর ২০১৭

লালমনিরহাটের কালীগঞ্জে পারিবারিক কলহের জেরে আলো মনি নামে চার বছরের এক শিশুকে হত্যার অভিযোগ উঠেছে। বৃহস্পতিবার সকালে উপজেলার দক্ষিণ দলগ্রাম এলাকার একটি পুকুর থেকে শিশুটির লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। আলো মনি ওই এলাকার আলমগীর হোসেনের মেয়ে।

কালীগঞ্জ থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) রাজু আহমেদ জানান, আলমগীরের সাথে দীর্ঘদিন ধরে তার প্রতিবেশী আশরাফুলের স্ত্রী লাকী বেগমের বিবাদ চলে আসছে। এর আগেও টিউবওয়েলে বিষ দিয়ে আলমগীরের পুরো পরিবারকে হত্যার চেষ্টা চালায় লাকী। যা আদালতে মামলাটি বিচারাধীন।

বুধবার রাতে মেয়েকে বাড়িতে রেখে কাজের প্রয়োজনে আলমগীর ও তার স্ত্রী আফরোজা বেগম বাড়ির বাইরে যায়। এ সুযোগে আলো মনিকে গলা টিপে হত্যা করে পাশের পুকুরে ফেলে দেয় লাকী।

বাড়ি ফিরে মেয়ে না পেয়ে বিভিন্ন স্থানে খোঁজার পর গভীর রাতে পাশের পুকুরের আলো মনির লাশ ভাসতে দেখতে পায়। খবর পেয়ে বৃহস্পতিবার সকালে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে লালমনিরহাট সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠায়।

এ ঘটনায় মেয়েকে হত্যার অভিযোগে লাকীকে প্রধান ও অজ্ঞতনামা আরো দুই তিনজনকে আসামি করে কালীগঞ্জ থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন আফরোজা।

লালমনিরহাট সহকারী পুলিশ সুপার (বি সার্কেল) হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দী ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, বিবাদের জেরে এ ঘটনা ঘটাতে পারে বলে তিনি শুনেছেন। তবে বিষয়টি তদন্ত না করে কিছুই বলা যাচ্ছে না।

তিনি বলেন, হত্যা মামলা হয়েছে। আসামিদের গ্রেফতারে জোড় চেষ্টা চলছে।