০২:১৭ অপরাহ্ন, রবিবার, ২১ এপ্রিল ২০২৪

গার্হস্থ্য হিংসার বিরুদ্ধে সরব হলেন জয়া

যুগ যুগ ধরে সমাজের ‘অঙ্গ’ হিসেবে পরিচিত মেয়েদের উপর অত্যাচারের প্রতিবাদে প্যান কমনওয়েলথ প্ল্যাটফর্মে মুখ খুললেন বাংলাদেশি অভিনেত্রী জয়া আহসান। আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন বহু তারকা সামিল এই প্রতিবাদ প্রচারে। সেখানেই ‘নো মোর’ ক্যাম্পেনিংয়ে সামিল জয়াও।

ক্ষোভ প্রকাশ করে জয়া বলেন, ‘হতে পারে এই অত্যাচার যৌন নিপীড়ন। হতেই পারে মারধর, গার্হস্থ্য হিংসা। অনন্তকাল ধরে যা নীরবে সহ্য করে আসছেন নানা বয়সের মেয়ে। আজ পর্যন্ত ঘটনাগুলোর প্রতিবাদ করেনি কেউ! অত্যাচার থামানোরও চেষ্টা করেনি। উল্টো সাফাই গেয়েছে, এটা ব্যক্তিগত ঘটনা। এই নিয়ে বাইরে কথা হবে কেন? আর না, এবার বলার সময় এসেছে।’

কমনওয়েলথের সপ্তাহব্যাপী এই বিশেষ প্রচারে ৫৪টি সদস্য দেশ যুক্ত। সেই মঞ্চে বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্ব করতে পেরে জয়া গর্বিত। অভিনেত্রী বলেন, ঘরের কোণায় গুমরোতে গুমরোতে অত্যাচারে, অবিচারে মৃতপ্রায় নারী। মহামারির মতো সারা বিশ্বে ছেয়ে গেছে এই ন্যক্কারজনক ঘটনা। সমাজ এর বিরুদ্ধে মুখ খোলেনি। মেয়েদের কোনো নিরাপত্তা দেয়নি।

অভিনেত্রী প্রশ্ন তুলেছেন, কোভিড-১৯ নিয়ে সবাই আতঙ্কিত। নিত্যদিন ঘটে চলা অকথ্য অত্যাচার যে কত নারীর জীবন শেষ করে দিচ্ছে সেটা কি আতঙ্কের নয়? দুনিয়া থেকে, নারীর জীবন থেকে এই ধরনের কলঙ্কিত অধ্যায় মুছে ফেলতে তাই ডাক দিয়েছেন, ‘নিপীড়ন নিপাত যাক, ভালোবাসা আসুক। সুস্থ, আতঙ্কহীন জীবনের স্বপ্ন দেখুক নারীও।’

বিজনেস বাংলাদেশ/ প্রান্ত

জনপ্রিয়

গার্হস্থ্য হিংসার বিরুদ্ধে সরব হলেন জয়া

প্রকাশিত : ০৯:৩৯:১৭ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৪ সেপ্টেম্বর ২০২০

যুগ যুগ ধরে সমাজের ‘অঙ্গ’ হিসেবে পরিচিত মেয়েদের উপর অত্যাচারের প্রতিবাদে প্যান কমনওয়েলথ প্ল্যাটফর্মে মুখ খুললেন বাংলাদেশি অভিনেত্রী জয়া আহসান। আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন বহু তারকা সামিল এই প্রতিবাদ প্রচারে। সেখানেই ‘নো মোর’ ক্যাম্পেনিংয়ে সামিল জয়াও।

ক্ষোভ প্রকাশ করে জয়া বলেন, ‘হতে পারে এই অত্যাচার যৌন নিপীড়ন। হতেই পারে মারধর, গার্হস্থ্য হিংসা। অনন্তকাল ধরে যা নীরবে সহ্য করে আসছেন নানা বয়সের মেয়ে। আজ পর্যন্ত ঘটনাগুলোর প্রতিবাদ করেনি কেউ! অত্যাচার থামানোরও চেষ্টা করেনি। উল্টো সাফাই গেয়েছে, এটা ব্যক্তিগত ঘটনা। এই নিয়ে বাইরে কথা হবে কেন? আর না, এবার বলার সময় এসেছে।’

কমনওয়েলথের সপ্তাহব্যাপী এই বিশেষ প্রচারে ৫৪টি সদস্য দেশ যুক্ত। সেই মঞ্চে বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্ব করতে পেরে জয়া গর্বিত। অভিনেত্রী বলেন, ঘরের কোণায় গুমরোতে গুমরোতে অত্যাচারে, অবিচারে মৃতপ্রায় নারী। মহামারির মতো সারা বিশ্বে ছেয়ে গেছে এই ন্যক্কারজনক ঘটনা। সমাজ এর বিরুদ্ধে মুখ খোলেনি। মেয়েদের কোনো নিরাপত্তা দেয়নি।

অভিনেত্রী প্রশ্ন তুলেছেন, কোভিড-১৯ নিয়ে সবাই আতঙ্কিত। নিত্যদিন ঘটে চলা অকথ্য অত্যাচার যে কত নারীর জীবন শেষ করে দিচ্ছে সেটা কি আতঙ্কের নয়? দুনিয়া থেকে, নারীর জীবন থেকে এই ধরনের কলঙ্কিত অধ্যায় মুছে ফেলতে তাই ডাক দিয়েছেন, ‘নিপীড়ন নিপাত যাক, ভালোবাসা আসুক। সুস্থ, আতঙ্কহীন জীবনের স্বপ্ন দেখুক নারীও।’

বিজনেস বাংলাদেশ/ প্রান্ত