ঢাকা রাত ২:০২, বুধবার, ২৫শে নভেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ, ১০ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

সাকিবকে হত্যার হুমকিদাতা গ্রেফতার

বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসানকে কুপিয়ে হত্যার হুমকিদাতা সিলেটের মহসিন তালুকদারকে (২৫) গ্রেফতার করেছে র‌্যাব।মঙ্গলবার (১৭ নভেম্বর) সুনামগঞ্জের দিরাই থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

রোববার (১৫ নভেম্বর) দিবাগত রাত ১২টা ৬ মিনিটে নিজের ফেসবুক আইডি থেকে ভিডিও লাইভে এসে সাকিবকে হুমকি দেন মহসিন।

পরে ওইদিন সকালে আরেকবার লাইভে এসে দুঃখপ্রকাশ করে সাকিবকে কালিপূজা উদ্বোধন করতে ভারতে যাওয়ার জন্য দুঃখ প্রকাশ করতে বলেন।

সোমবার (১৬ নভেম্বর) রাত ১২টার দিকে সিলেট সদর উপজেলার শাহপুর তালুকদারপাড়ার মহসিনের বাড়ি ঘেরাও করে র‌্যাব ও পুলিশ। তখন তাকে পাওয়া যায়নি।

এদিকে এ ঘটনায় সোমবার রাতে সিলেটের জালালাবাদ থানায় মহসিন তালুকদারের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা দায়ের করেন থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মাহবুব মোর্শেদ।

মহসিন তালুকদার (২৫) সিলেট সদর উপজেলার টুকেরবাজার ইউনিয়নের শাহপুর তালুকদারপাড়া এলাকার আজাদ বক্সের ছেলে।

তিনি তার নিজের ফেসবুক অ্যাকাউন্ট ‘Mohsin Talukdar’ থেকে এই লাইভ ভিডিওটি প্রচার করেন। তার এই ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িলে তুমুল আলোড়ন সৃষ্টি হয়। সাকিবভক্ত অনেকেই মহসিনকে গ্রেফতার করে কঠোর শাস্তির দাবি জানান।

সম্প্রতি কালীপূজার এক অনুষ্ঠানের নিমন্ত্রণ গ্রহণ করে সাকিবের কলকাতায় যাওয়ায় বিক্ষুব্ধ হয়ে তাকে কুপিয়ে-টুকরো টুকরো করে হত্যার কথা বলেন এই যুবক। লাইভে এসে অকথ্য ভাষায় সাকিবকে গালাগাল করতে থাকেন তিনি।

এ ভিডিওতে মহসিন নিজের পরিচয় প্রকাশ করে বলেন, ‘সাকিবকে হত্যা করতে প্রয়োজনে তিনি হেঁটেই ঢাকা যাবেন।’ এরপর ভোর ৬টা ৪ মিনিটে আবারও একটি লাইভ ভিডিওতে হাজির হন তিনি। তবে রাতের উত্তেজিত ভিডিওর জন্য দুঃখ প্রকাশ করে সাকিব আল হাসানকে জাতির উদ্দেশে ক্ষমা চাওয়ার আহ্বান জানান মহসিন।

এ সময় তিনি বলেন, ‘কারো চাপে এখন এ ভিডিওটি নির্মাণ করছেন না বরং সাকিবকে একটা সুযোগ দেয়ার জন্য এবং সাকিবের মতো বাকি সকল সেলিব্রেটিদের সঠিক পথে চলার বার্তা দিতে আবার লাইভ করছেন তিনি।

ভিডিওত ওই যুবককে বলতে শোনা যায়, ‘সাকিব আল হাসান কয়দিন আগে দেশে আইছইন। কিছুদিন আগে তাইন হজে গেছিলা, তখন খুশি হইছিলাম। কিন্তু তাইন ইবার দেশে আইয়া আবার গেলাগি ইন্ডিয়াত পূজা উদ্বোধন করাত। ইটায় মুসলমানের কলিজায় আঘাত করছে। আমি ফাইলে তারে (একটি চাপাতি প্রদর্শন করে) তারে কোপাইয়া কোপাইয়া কাটিমু।’

এ সময় সাকিব আল হাসানকে গালিগালাজ করে পাকিস্তানের ক্রিকাটারদের অনুসরণ করার কথা পরামর্শ দিয়ে ওই যুবক বলেন, ‘তুই কিতা পাকিস্তানের ক্রিকেটাররারে দেখছস না? তোর তো তারারে দেখা উচিৎ। তুই মুসলমানের বাচ্চা হইয়া গেছোস পূজা উদ্বোধন করাত। কলিজাত তুই অলা আঘাত দিছস। তোরে ফাইলে আমি কোপাইয়া কাটিমু। সবাই হুনিয়া রাখইন আমি মহসিন তালুকদার কইরাম। সাকিবরে ফাইলে আমি কোপাইয়া কাটিমু।’

গত ২৯ অক্টোবর এক বছরের নিষেধাজ্ঞা থেকে মুক্ত হন সাকিব। ৬ নভেম্বর যুক্তরাষ্ট্র থেকে দেশে ফেরেন বাংলাদেশের ক্রিকেট ইতিহাসের সফলতম তারকা। গত বৃহস্পতিবার বঙ্গবন্ধু টি-২০ কাপের প্লে­য়ার্স ড্রাফট থেকে সাকিবকে দলে নেয় জেমকন খুলনা। সেদিনই ভারতের কলকাতার কাঁকুড়গাছি সম্মিলিত সর্বজনীন শ্যামাপূজার এক অনুষ্ঠানের নিমন্ত্রণ পেয়ে ভারতে যান তারকা অলরাউন্ডার।

পরদিন শুক্রবার দেশে ফিরে আসেন তিনি। তবে সোমবার সন্ধ্যায় এক ভিডিও বার্তায় সাকিব আল হাসান এ ঘটনার জন্য দেশবাসীর কাছে ক্ষমা চেয়ে দাবি করেন, তিনি একজন মুসলিম হিসেবে গর্বিত এবং তিনি কোনো পূজামণ্ডপ উদ্বোধন করতে ভারত যাননি। তিনি অন্য একটি অনুষ্ঠানে যোগ দিতে সেখানে গিয়েছিলেন। তবে এর পাশের একটি মঞ্চে কালীপূজা চলছিল।

বিজনেস বাংলাদেশ/ এস শিকদার

এ বিভাগের আরও সংবাদ