০১:৩৮ অপরাহ্ন, রবিবার, ২১ এপ্রিল ২০২৪

যুক্তরাষ্ট্রের মূল্যবোধের পরিপূরক পরিবেশ নেই

মার্কিন কংগ্রেসে শিক্ষা এবং শ্রম বিষয়ক কমিটির এক পর্যালোচনায় উদ্বেগজনক তথ্য উদঘাটিত হয়েছে। সেই তথ্যে বলা হয়েছে, যুক্তরাষ্ট্রের পাবলিক স্কুলসমূহের শিক্ষার্থীর এক তৃতীয়াংশ পড়ছে এমন স্কুলে-যেখানে যুক্তরাষ্ট্রের মূল্যবোধের পরিপূরক পরিবেশ নেই। মার্কিন শিক্ষা বিভাগের সরেজমিন তথ্য বিশ্লেষণের ভিত্তিতে এমন অবিশ্বাস্য খবর প্রকাশিত হয়েছে কংগ্রেস থেকে।

মার্কিন শিক্ষা নীতি অনুযায়ী, সকল পাবলিক স্কুলে একই ধরনের ব্যবস্থা চালু থাকার কথা। কিন্তু বর্ণ ও জাতিগত বিভেদ দৃশ্যমান হবার মতো পরিস্থিতি বিরাজ করছে শহুরে ও গ্রামীন স্কুলসমূহে। এরফলে শিক্ষা ব্যবস্থায় বৈষম্য তৈরি হয়েছে। অর্থাৎ এসব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে মূল্যবোধের পরিপূরক পরিবেশ যেমন অনুপস্থিত, একইভাবে শিক্ষার কারিক্যুলামও চরমভাবে উপেক্ষিত।

ইউএস জেনারেল একাউন্টেবিলিটি অফিস সূত্রে জানা গেছে, ২০২০-২০২১ শিক্ষা বর্ষে এক কোটি ৮৫ লাখ শিক্ষার্থী এমন সব স্কুলে গেছে যেগুলো একই বর্ণ আর গোত্রের জন্যে নির্দ্ধারিত। অর্থাৎ এসব পাবলিক স্কুলের শিক্ষার্থীর ৭৫% হচ্ছে একই বর্ণ অথবা একই গোত্রের। এমন কিছু স্কুল রয়েছে যেগুলোর ৯০% শিক্ষার্থী হচ্ছে একই গোত্র অথবা বর্ণের এবং এসব স্কুলে ভিন্ন গোত্র-বর্ণের শিক্ষার্থীর হার মাত্র ১৪%। অর্থাৎ শহুরে, উপ-শহর এবং গ্রামাঞ্চলের এসব পাবলিক স্কুলে শ্বেতাঙ্গ শিক্ষার্থীর হার মাত্র ১৪%।
প্রাপ্ত তথ্য অনুযায়ী, ১৩ হাজার ৫০০টি পাবলিক স্কুলকে একই বর্ণ-গোত্রের পাবলিক স্কুল হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে। আর এসব স্কুল একটি থেকে আরেকটির দূরত্ব ১০ মাইলের কম।

বিজনেস বাংলাদেশ/হাবিব

জনপ্রিয়

যুক্তরাষ্ট্রের মূল্যবোধের পরিপূরক পরিবেশ নেই

প্রকাশিত : ১১:০৬:৪০ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২৮ অগাস্ট ২০২২

মার্কিন কংগ্রেসে শিক্ষা এবং শ্রম বিষয়ক কমিটির এক পর্যালোচনায় উদ্বেগজনক তথ্য উদঘাটিত হয়েছে। সেই তথ্যে বলা হয়েছে, যুক্তরাষ্ট্রের পাবলিক স্কুলসমূহের শিক্ষার্থীর এক তৃতীয়াংশ পড়ছে এমন স্কুলে-যেখানে যুক্তরাষ্ট্রের মূল্যবোধের পরিপূরক পরিবেশ নেই। মার্কিন শিক্ষা বিভাগের সরেজমিন তথ্য বিশ্লেষণের ভিত্তিতে এমন অবিশ্বাস্য খবর প্রকাশিত হয়েছে কংগ্রেস থেকে।

মার্কিন শিক্ষা নীতি অনুযায়ী, সকল পাবলিক স্কুলে একই ধরনের ব্যবস্থা চালু থাকার কথা। কিন্তু বর্ণ ও জাতিগত বিভেদ দৃশ্যমান হবার মতো পরিস্থিতি বিরাজ করছে শহুরে ও গ্রামীন স্কুলসমূহে। এরফলে শিক্ষা ব্যবস্থায় বৈষম্য তৈরি হয়েছে। অর্থাৎ এসব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে মূল্যবোধের পরিপূরক পরিবেশ যেমন অনুপস্থিত, একইভাবে শিক্ষার কারিক্যুলামও চরমভাবে উপেক্ষিত।

ইউএস জেনারেল একাউন্টেবিলিটি অফিস সূত্রে জানা গেছে, ২০২০-২০২১ শিক্ষা বর্ষে এক কোটি ৮৫ লাখ শিক্ষার্থী এমন সব স্কুলে গেছে যেগুলো একই বর্ণ আর গোত্রের জন্যে নির্দ্ধারিত। অর্থাৎ এসব পাবলিক স্কুলের শিক্ষার্থীর ৭৫% হচ্ছে একই বর্ণ অথবা একই গোত্রের। এমন কিছু স্কুল রয়েছে যেগুলোর ৯০% শিক্ষার্থী হচ্ছে একই গোত্র অথবা বর্ণের এবং এসব স্কুলে ভিন্ন গোত্র-বর্ণের শিক্ষার্থীর হার মাত্র ১৪%। অর্থাৎ শহুরে, উপ-শহর এবং গ্রামাঞ্চলের এসব পাবলিক স্কুলে শ্বেতাঙ্গ শিক্ষার্থীর হার মাত্র ১৪%।
প্রাপ্ত তথ্য অনুযায়ী, ১৩ হাজার ৫০০টি পাবলিক স্কুলকে একই বর্ণ-গোত্রের পাবলিক স্কুল হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে। আর এসব স্কুল একটি থেকে আরেকটির দূরত্ব ১০ মাইলের কম।

বিজনেস বাংলাদেশ/হাবিব