ঢাকা সকাল ১১:৩০, শুক্রবার, ২৭শে জানুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ, ১৩ই মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

২৬ জানুয়ারি চ্যানেল আইতে ‘ইন্দুবালা’

মাসুম আজিজের গ্রাম্য সামাজিক প্রেক্ষাপট ভিত্তিক কাহিনিচিত্রের উপর নির্মিত চলচ্চিত্র ‘ইন্দুবালা’। এর চিত্রনাট্য ও নির্মাণ করেছেন জয়নাল আবেদিন জয় সরকার। এটা তার প্রথম নির্মাণ। এক নারীর জীবনে কাক্সিক্ষত ভালবাসার জন্য সংগ্রাম এবং সংগ্রামের পর সাফল্যগাথা এই চলচ্চিত্রের মূল উপজীব্য। ফজলুর রহমান বাবুর জনপ্রিয় সঙ্গীত ‘ইন্দুবালা’র নাম অনুসারে এই চলচ্চিত্রের নাম রাখা হয়। ইন্দুবালায় তিনটি মুখ্য চরিত্রে অভিনয় করেছেন আনিসুর রহমান মিলন, আশিক চৌধুরী ও কেয়া আক্তার পায়েল। ছোট পর্দায় পায়েলিয়া পায়েল নামে পরিচিত কেয়া আক্তার এই চলচ্চিত্রের মাধ্যমে বয়পর্দায় অভিষিক্ত হন। ২০১৯ সালের ২৯ নভেম্বর চলচ্চিত্রটি বাংলাদেশের প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পায়। এ ছবিতে আরো অভিনয় করেছেন শাহনূর, সাদেক বাচ্চু, ফজলুর রহমান বাবু, লুৎফর রহমান জর্জ প্রমুখ। চ্যানেল আইতে ছবিটি দেখানো হবে ২৬ জানুয়ারি বিকেল ৩.০৫ মিনিটে।
গল্পে দেখা যাবে- গ্রামের প্রভাবশালী জমিদার জিতেশ মজুমদার একই গ্রামের চালের আড়তদার বৈদ্যনাথের আঠারো বছর বয়সী মেয়ে ইন্দুবালাকে বিয়ে করতে চান। জিতেশ মজুমদারের ছেলে বাবলা ইন্দুবালাকে ভালোবাসে, ইন্দুবালাও বাবলাকে পছন্দ করে। তবে নরম স্বভাবের বাবলা তার বাবা জিতেশকে তাদেও প্রেমের বিষয়টি জানানোর মত সাহসী নয়। বাবলা বুঝতে পারেনা কিভাবে তার বুড়ো বাবা আর ইন্দুর বিয়ে আটকাবে। একই সময়ে ইন্দুবালার সৎ মেসোমশাই তার বুদ্ধিপ্রতিবন্ধী ছেলের সাথে ইন্দুবালার বিয়ে দেওয়ার দাবি নিয়ে ইন্দুবালাদের বাড়িতে ওঠেন। মেসোমশাইয়ের ছেলের সাথে ইন্দুবালার বিয়ে না হওয়া পর্যন্ত তিনি বাড়ি থেকে যাবেন না। এছাড়াও ইন্দুবালার বাবা বৈদ্যনাথের দোকানে ছোটবেলা হতে কাজ করা মন্টু সবার অগোচরে মনেপ্রাণে ইন্দুবালাকে ভালোবাসে, কিন্তু মন্টু বৈদ্যনাথকে এ কথা কখনো মুখ ফুটে কিছু বলতে পারে না। এরকম চতুর্মুখী সংকট হতে বৈদ্যনাথ তার মেয়েকে কিভবে উদ্ধার করবেন তা দেখতে চোখ রাখুন চ্যানেল আইতে।

বিজনেস বাংলাদেশ/ bh

এ বিভাগের আরও সংবাদ