০৮:৩২ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৫ জুন ২০২৪

পাকিস্তানে ভয়াবহ সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত অন্তত ২৮

ছবি সংগৃহীত

পাকিস্তানে ভয়াবহ সড়ক দুর্ঘটনায় কমপক্ষে ২৮ জন নিহত এবং বেশ কয়েকজন আহত হয়েছেন। নিহতদের মধ্যে নারী ও শিশুও রয়েছে বলে জানা গেছে।

দ্য এক্সপ্রেস টিবিউটের খবরে বলা হয়েছে, একটি দ্রুতগামী যাত্রীবাহী বাসের টায়ার ফেটে গেলে বাসটি পাহাড়ী মহাসড়ক থেকে উল্টে খাদে পড়ে যায় এবং হতাহতের এ ঘটনা ঘটে। স্থানীয় সময় আজ বুধবার (২৯মে) ভোরে দক্ষিণ-পশ্চিম পাকিস্তানে এ ঘটনা ঘটেছে।

স্থানীয় কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, বাসটি বেলুচিস্তান প্রদেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম শহর তুরবাত থেকে প্রদেশের রাজধানী কোয়েটার দিকে যাওয়ার সময় ওয়াশুক শহরে এই দুর্ঘটনা ঘটে।

দুর্ঘটনাটি অতিরিক্ত গতির কারণে হয়েছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে। উদ্ধারকারী কর্মকর্তাদের জানিয়েছেন, যাত্রীবাহী বাসটির টায়ার ফেটে যাওয়ার পর এ দুর্ঘটনা ঘটে। এতে অন্তত ২৮ জন নিহত ও ২০ জনেরও বেশি মানুষ আহত হয়েছেন। আহতদের মধ্যে অনেকের অবস্থা গুরুতর, মৃতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

মর্মান্তিক এই দুর্ঘটনায় দেশটির প্রধানমন্ত্রী শেহবাজ শরিফ গভীর শোক প্রকাশ করেছেন এবং নিহতদের রুহের মাগফেরাত কামনা করেছেন। একইসঙ্গে আহতদের প্রয়োজনীয় সব ধরনের চিকিৎসা সহায়তা দেওয়ার জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে নির্দেশও দিয়েছেন তিনি।

এর আগে চলতি মাসের শুরুতে গিলগিট বাল্টিস্তানের দিয়ামের জেলার প্রত্যন্ত অঞ্চলে ভ্রমণের সময় একটি যাত্রীবাহী বাস সরু পাহাড়ি রাস্তা থেকে খাদে পড়ে যাওয়ার পরে ২০ জন প্রাণ হারান। সেই ঘটনায় আহত হয়েছিলেন আরও ২১ জন।

বিজনেস বাংলাদেশ/DS

জনপ্রিয়

পাকিস্তানে ভয়াবহ সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত অন্তত ২৮

প্রকাশিত : ০৫:৩৫:১০ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৯ মে ২০২৪

পাকিস্তানে ভয়াবহ সড়ক দুর্ঘটনায় কমপক্ষে ২৮ জন নিহত এবং বেশ কয়েকজন আহত হয়েছেন। নিহতদের মধ্যে নারী ও শিশুও রয়েছে বলে জানা গেছে।

দ্য এক্সপ্রেস টিবিউটের খবরে বলা হয়েছে, একটি দ্রুতগামী যাত্রীবাহী বাসের টায়ার ফেটে গেলে বাসটি পাহাড়ী মহাসড়ক থেকে উল্টে খাদে পড়ে যায় এবং হতাহতের এ ঘটনা ঘটে। স্থানীয় সময় আজ বুধবার (২৯মে) ভোরে দক্ষিণ-পশ্চিম পাকিস্তানে এ ঘটনা ঘটেছে।

স্থানীয় কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, বাসটি বেলুচিস্তান প্রদেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম শহর তুরবাত থেকে প্রদেশের রাজধানী কোয়েটার দিকে যাওয়ার সময় ওয়াশুক শহরে এই দুর্ঘটনা ঘটে।

দুর্ঘটনাটি অতিরিক্ত গতির কারণে হয়েছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে। উদ্ধারকারী কর্মকর্তাদের জানিয়েছেন, যাত্রীবাহী বাসটির টায়ার ফেটে যাওয়ার পর এ দুর্ঘটনা ঘটে। এতে অন্তত ২৮ জন নিহত ও ২০ জনেরও বেশি মানুষ আহত হয়েছেন। আহতদের মধ্যে অনেকের অবস্থা গুরুতর, মৃতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

মর্মান্তিক এই দুর্ঘটনায় দেশটির প্রধানমন্ত্রী শেহবাজ শরিফ গভীর শোক প্রকাশ করেছেন এবং নিহতদের রুহের মাগফেরাত কামনা করেছেন। একইসঙ্গে আহতদের প্রয়োজনীয় সব ধরনের চিকিৎসা সহায়তা দেওয়ার জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে নির্দেশও দিয়েছেন তিনি।

এর আগে চলতি মাসের শুরুতে গিলগিট বাল্টিস্তানের দিয়ামের জেলার প্রত্যন্ত অঞ্চলে ভ্রমণের সময় একটি যাত্রীবাহী বাস সরু পাহাড়ি রাস্তা থেকে খাদে পড়ে যাওয়ার পরে ২০ জন প্রাণ হারান। সেই ঘটনায় আহত হয়েছিলেন আরও ২১ জন।

বিজনেস বাংলাদেশ/DS