১১:৪৩ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ১৯ জুলাই ২০২৪

ইতালির শেষ মিনিটের গোলে ইউরো থেকে ক্রোয়েশিয়ার বিদায়

পেনাল্টি মিস।এরপর মাত্র ৪০ সেকেন্ডের মাথায় সেই পেনাল্টি মিসের হিসাব চুকিয়ে গোল করে ইউরোর ইতিহাসে সবচেয়ে বেশী বয়সী খেলোয়াড় হিসেবে গোল করার রেকর্ড গড়লেন ক্রোয়েশিয়ার তারকা লুকা মদ্রিচ।কিন্ত এমন রেকর্ডের রাতেই ম্যাচের অন্তিম মুহুর্তে গোল হজম করে এইবারের ইউরো থেকে বিদায় নিল লুকা মদ্রিচের ক্রোয়েশিয়া।

 

লাইপজিগে সোমবার রাতে ২০২৪ সালের ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপের ‘বি’ গ্রুপের নাটকীয় ম্যাচটি ড্র হয়েছে ১-১ গোলে। এতে শিরোপা ধরে রাখার অভিযানে টিকে থাকছে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন ইতালি।অন্যদিকে ইউরোর  এবারের আসর থেকে বিদায় প্রায় নিশ্চিত হয়ে গেছে ক্রোয়াটদের।

 

এদিন ম্যাচের শুরু থেকে ইতালির খেলায় কিছুটা মন্থর ভাব লক্ষ্য করা যাচ্ছিল। বলের নিয়ন্ত্রণ তারা নিজেদের পায়ে রেখেছিল ঠিকই। কিন্তু গোলের তেমন সুযোগ তৈরি করতে পারছিল না।আর এই সুযোগে ক্রোয়েশিয়া পাল্টা আক্রমণে জোর দেয়।কিন্ত ম্যাচের শুরু থেকেই ইতালির রক্ষণ ছিল জমাট ফলে ক্রোয়েশিয়ার ফুটবলারেরা বল নিয়ে বক্সের দিকে এগোলেই ইতালির অন্তত পাঁচ জন আটকানোর জন্য চলে আসছিলেন। তার মাঝেই ইতালি ভাল একটি সুযোগ পেয়েছিল। কর্নার থেকে বক্সের ঠিক বাইরে বল পেয়েছিলেন নিকোলো বারেল্লা। তিনি ক্রস তুলেছিলেন। ফাঁকা দাঁড়িয়েছিলেন আলেসান্দ্রো বাস্তোনি। তাঁর জোরালো হেড বাঁচিয়ে দেন ক্রোয়েশিয়ার গোলকিপার ডমিনিক লিভাকোভিচ। পাল্টা আক্রমণে যায় ক্রোয়েশিয়াও। বক্সের বাইরে থেকে বাঁ পায়ে লুকা সুচিচের শট আটকে দেন জিয়ানলুইগি ডোনারুম্মা।এভাবেই গোলশুণ্য অবস্থায় শেষ হয় প্রথমার্ধ।

 

দ্বিতীয়ার্ধে ক্রোয়েশিয়ার আক্রমণের গতি বাড়ে। এর ফলাফল পেতেও বেশিক্ষণ অপেক্ষা করতে হয়নি ক্রোয়াটদের। ম্যাচের ৫৪ মিনিটের মাথায় পেনাল্টি পায় ক্রোয়েশিয়া। বাঁ দিক থেকে আন্দ্রেই ক্রামারিচের ক্রস বক্সের মধ্যে ডেভিড ফ্রাত্তেসির হাতে লেগে দিক পরিবর্তন করে। রেফারি প্রথমে পেনাল্টি না দিলেও ‘ভিএআর’-এর পরামর্শে রিপ্লে দেখে সিদ্ধান্ত বদলান।

কিন্ত সেই সুযোগ নষ্ট করেন মদ্রিচ। নীচু শট মেরেছিলেন ডোনারুম্মার বাঁ দিকে। ইতালির গোলকিপার ঝাঁপিয়ে সেই শট বাঁচিয়ে দেন। ডোনারুম্মা সেভ করলেও ইতালির ফুটবলারেরা তখনই আক্রমণে ওঠার আগ্রহ দেখাননি। মুহূর্তের মধ্যে বল পেয়ে যায় ক্রোয়েশিয়া। ডান দিক থেকে ভেসে আসা ক্রসে আন্তে বুদিমিরের সেই প্রচেষ্টাও বাঁচিয়ে দেন ডোনারুম্মা। কিন্তু পড়ে যান মাটিতে।তিনি উঠে দাঁড়ানোর আগেই পিছনে থাকা মদ্রিচ বাঁ পায়ের শটে বল জালে জড়ান।এই গোল গোল করে ১৬ বছরের পুরনো রেকর্ড ভেঙে দেন ৩৮ বছর ২৮৯ দিন বয়সী মদ্রিচ। ইউরোর ইতিহাসে সবচেয়ে বেশি বয়সী গোলদাতা এখন তিনি। আগের কীর্তিটি ছিল অস্ট্রিয়ার ইভিকা ভাস্তিচের।

এরপর ইতালি আক্রমণ করলেও গোলের তেমন কোন সুযোগ সৃষ্টি করতে পারেনি।এরপর ম্যাচের সময় গড়িয়েছে আর ক্রোয়েশিয়ার দ্বিতীয় রাউন্ডে খেলার স্বপ্ন যতো উজ্জ্বল হয়েছিল ঠিক ততোটাই ধূসর হতে থাকে ইটালির দ্বিতীয় রাউন্ডে খেলার স্বপ্ন।

 

ম্যাচের নব্বই মিনিট শেষ হলে অতিরিক্ত আট মিনিট দেওয়া হয়।আর সেই অতিরিক্ত সময়ের শেষ মুহূর্তে একটা নাটকীয় দৃশ্যের অবতারণা হয়।

ইতালির ডিফেন্ডার রিকার্দো কালাফিওরি সামনে এগিয়ে ক্রোয়েশিয়ার ডি-বক্সের বাম দিকে বল বাড়ান। প্রথম ছোঁয়ায় বাঁকানো শটে গোলরক্ষক দমিনিক লিভাকোভিচকে ফাঁকি দিয়ে জাল কাঁপান বদলি মিডফিল্ডার জাক্কাগনি। তার প্রথম আন্তর্জাতিক গোলে স্বস্তির সঙ্গে উল্লাসের জোয়ার বয়ে যায় ইতালি শিবিরে। কিছুক্ষণ পরই বেজে ওঠে শেষ বাঁশি।

এই ড্র তে ইতালি অর্জন করেছে ৪ পয়েন্ট। ক্রোয়েশিয়ার নামের পাশে রয়েছে ২ পয়েন্ট।  একই সময়ে শুরু হওয়া এই গ্রুপের আরেক ম্যাচে ফেরান তরেসের গোলে স্পেন ১-০ গোলে হারিয়েছে আলবেনিয়াকে। তিন ম্যাচের সবকটি জিতে পূর্ণ ৯ পয়েন্ট নিয়ে গ্রুপসেরা হয়েছে ইউরোর রেকর্ড তিনবারের চ্যাম্পিয়ন স্পেন। বিদায় নেওয়া আলবেনিয়া পেয়েছে মাত্র ১ পয়েন্ট।

ট্যাগ :

ইতালির শেষ মিনিটের গোলে ইউরো থেকে ক্রোয়েশিয়ার বিদায়

প্রকাশিত : ০৬:৪১:৪৫ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৫ জুন ২০২৪

পেনাল্টি মিস।এরপর মাত্র ৪০ সেকেন্ডের মাথায় সেই পেনাল্টি মিসের হিসাব চুকিয়ে গোল করে ইউরোর ইতিহাসে সবচেয়ে বেশী বয়সী খেলোয়াড় হিসেবে গোল করার রেকর্ড গড়লেন ক্রোয়েশিয়ার তারকা লুকা মদ্রিচ।কিন্ত এমন রেকর্ডের রাতেই ম্যাচের অন্তিম মুহুর্তে গোল হজম করে এইবারের ইউরো থেকে বিদায় নিল লুকা মদ্রিচের ক্রোয়েশিয়া।

 

লাইপজিগে সোমবার রাতে ২০২৪ সালের ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপের ‘বি’ গ্রুপের নাটকীয় ম্যাচটি ড্র হয়েছে ১-১ গোলে। এতে শিরোপা ধরে রাখার অভিযানে টিকে থাকছে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন ইতালি।অন্যদিকে ইউরোর  এবারের আসর থেকে বিদায় প্রায় নিশ্চিত হয়ে গেছে ক্রোয়াটদের।

 

এদিন ম্যাচের শুরু থেকে ইতালির খেলায় কিছুটা মন্থর ভাব লক্ষ্য করা যাচ্ছিল। বলের নিয়ন্ত্রণ তারা নিজেদের পায়ে রেখেছিল ঠিকই। কিন্তু গোলের তেমন সুযোগ তৈরি করতে পারছিল না।আর এই সুযোগে ক্রোয়েশিয়া পাল্টা আক্রমণে জোর দেয়।কিন্ত ম্যাচের শুরু থেকেই ইতালির রক্ষণ ছিল জমাট ফলে ক্রোয়েশিয়ার ফুটবলারেরা বল নিয়ে বক্সের দিকে এগোলেই ইতালির অন্তত পাঁচ জন আটকানোর জন্য চলে আসছিলেন। তার মাঝেই ইতালি ভাল একটি সুযোগ পেয়েছিল। কর্নার থেকে বক্সের ঠিক বাইরে বল পেয়েছিলেন নিকোলো বারেল্লা। তিনি ক্রস তুলেছিলেন। ফাঁকা দাঁড়িয়েছিলেন আলেসান্দ্রো বাস্তোনি। তাঁর জোরালো হেড বাঁচিয়ে দেন ক্রোয়েশিয়ার গোলকিপার ডমিনিক লিভাকোভিচ। পাল্টা আক্রমণে যায় ক্রোয়েশিয়াও। বক্সের বাইরে থেকে বাঁ পায়ে লুকা সুচিচের শট আটকে দেন জিয়ানলুইগি ডোনারুম্মা।এভাবেই গোলশুণ্য অবস্থায় শেষ হয় প্রথমার্ধ।

 

দ্বিতীয়ার্ধে ক্রোয়েশিয়ার আক্রমণের গতি বাড়ে। এর ফলাফল পেতেও বেশিক্ষণ অপেক্ষা করতে হয়নি ক্রোয়াটদের। ম্যাচের ৫৪ মিনিটের মাথায় পেনাল্টি পায় ক্রোয়েশিয়া। বাঁ দিক থেকে আন্দ্রেই ক্রামারিচের ক্রস বক্সের মধ্যে ডেভিড ফ্রাত্তেসির হাতে লেগে দিক পরিবর্তন করে। রেফারি প্রথমে পেনাল্টি না দিলেও ‘ভিএআর’-এর পরামর্শে রিপ্লে দেখে সিদ্ধান্ত বদলান।

কিন্ত সেই সুযোগ নষ্ট করেন মদ্রিচ। নীচু শট মেরেছিলেন ডোনারুম্মার বাঁ দিকে। ইতালির গোলকিপার ঝাঁপিয়ে সেই শট বাঁচিয়ে দেন। ডোনারুম্মা সেভ করলেও ইতালির ফুটবলারেরা তখনই আক্রমণে ওঠার আগ্রহ দেখাননি। মুহূর্তের মধ্যে বল পেয়ে যায় ক্রোয়েশিয়া। ডান দিক থেকে ভেসে আসা ক্রসে আন্তে বুদিমিরের সেই প্রচেষ্টাও বাঁচিয়ে দেন ডোনারুম্মা। কিন্তু পড়ে যান মাটিতে।তিনি উঠে দাঁড়ানোর আগেই পিছনে থাকা মদ্রিচ বাঁ পায়ের শটে বল জালে জড়ান।এই গোল গোল করে ১৬ বছরের পুরনো রেকর্ড ভেঙে দেন ৩৮ বছর ২৮৯ দিন বয়সী মদ্রিচ। ইউরোর ইতিহাসে সবচেয়ে বেশি বয়সী গোলদাতা এখন তিনি। আগের কীর্তিটি ছিল অস্ট্রিয়ার ইভিকা ভাস্তিচের।

এরপর ইতালি আক্রমণ করলেও গোলের তেমন কোন সুযোগ সৃষ্টি করতে পারেনি।এরপর ম্যাচের সময় গড়িয়েছে আর ক্রোয়েশিয়ার দ্বিতীয় রাউন্ডে খেলার স্বপ্ন যতো উজ্জ্বল হয়েছিল ঠিক ততোটাই ধূসর হতে থাকে ইটালির দ্বিতীয় রাউন্ডে খেলার স্বপ্ন।

 

ম্যাচের নব্বই মিনিট শেষ হলে অতিরিক্ত আট মিনিট দেওয়া হয়।আর সেই অতিরিক্ত সময়ের শেষ মুহূর্তে একটা নাটকীয় দৃশ্যের অবতারণা হয়।

ইতালির ডিফেন্ডার রিকার্দো কালাফিওরি সামনে এগিয়ে ক্রোয়েশিয়ার ডি-বক্সের বাম দিকে বল বাড়ান। প্রথম ছোঁয়ায় বাঁকানো শটে গোলরক্ষক দমিনিক লিভাকোভিচকে ফাঁকি দিয়ে জাল কাঁপান বদলি মিডফিল্ডার জাক্কাগনি। তার প্রথম আন্তর্জাতিক গোলে স্বস্তির সঙ্গে উল্লাসের জোয়ার বয়ে যায় ইতালি শিবিরে। কিছুক্ষণ পরই বেজে ওঠে শেষ বাঁশি।

এই ড্র তে ইতালি অর্জন করেছে ৪ পয়েন্ট। ক্রোয়েশিয়ার নামের পাশে রয়েছে ২ পয়েন্ট।  একই সময়ে শুরু হওয়া এই গ্রুপের আরেক ম্যাচে ফেরান তরেসের গোলে স্পেন ১-০ গোলে হারিয়েছে আলবেনিয়াকে। তিন ম্যাচের সবকটি জিতে পূর্ণ ৯ পয়েন্ট নিয়ে গ্রুপসেরা হয়েছে ইউরোর রেকর্ড তিনবারের চ্যাম্পিয়ন স্পেন। বিদায় নেওয়া আলবেনিয়া পেয়েছে মাত্র ১ পয়েন্ট।