০৬:৪২ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৭ জুলাই ২০২৪

বন্দরে হাসিনা সিমুর কণ্যা সাবিলার মৃত্যুবার্ষিকী পালন

হাসিনা অটিজম চাইল্ড কেয়ারের প্রতিষ্ঠাতা ও আনন্দধামের নির্বাহী চেয়ারম্যান হাসিনা রহমান সিমুর কন্যা মরহুমা সাবিলার মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে সোমবার (৮ জুলাই) বাদ জোহর বন্দরে অবস্থিত হাসিনা অটিজম চাইল্ড কেয়ারে মিলাদ ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হয়।

প্রতিষ্ঠানটিতে অধ্যায়নরত অটিস্টিক শিশু-কিশোররা ছাড়াও তাদের অভিভাবক বৃন্দ, পরিচালনা বোর্ডের সদস্য বর্গ, সমাজের গন্যমান্য ব্যক্তি বর্গ এই দোয়ার মাহফিলে অংশগ্রহণ করেন। এই উপলক্ষে বিভিন্ন মাদ্রাসা ও এতিমখানায় খাদ্য বিতরণ করা হয়।

সন্ধ্যায় স্থানীয় ইডেন থাই এন্ড চাইনিজ রেস্টুরেন্টে আনন্দধামের পক্ষ থেকে এ উপলক্ষে এক বিশেষ দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হয়। হাসিনা রহমান সিমু তার কন্যার মৃত্যুবার্ষিকীতে যারা তাকে সমবেদনা জানিয়েছেন তাদের সবাইকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন আপনাদের সমবেদনা আমাকে বেচে থাকার সাহস যোগাবে ও প্রতিবন্ধী শিশু-কিশোরদের কাজ করতে অনুপ্রানিত করবে। আপনারা সবাই সাবিলার জন্যে দোয়া করবেন।

মরহুমা সাবিলা একজন অটিস্টিক শিশু ছিলো। হাসিনা রহমান সিমু তার এই প্রতিবন্ধী অটিস্টিক কন্যা সন্তান লালন পালন করতে গিয়ে প্রতিবন্ধী শিশু ও তাদের মায়েদের অসহায়ত্ব উপলব্ধি করেন। তাই তিনি অসহায় প্রতিবন্ধী শিশু-কিশোরদের শারীরিক ও মানুষিক বিকাশের মাধ্যমে সমাজের প্রতিনিধিত্ব করার উপযুক্ত হিসেবে গড়ে তোলার মানষে ও প্রতিবন্ধী সন্তানের মাতা পিতাকে সন্তান নিয়ে তাদের অসহায়ত্ব থেকে মুক্তি দেওয়ার মানষে ২০১৬ সালে নারায়ণগঞ্জের বন্দর উপজেলাতে ” হাসিনা অটিজম চাইল্ড কেয়ার “প্রতিষ্ঠিত করেন।

উল্লেখ্য, হাসিনা রহমান সিমুর কন্যা সাবিলা কিডনি সংক্রান্ত জটিলতায় মাত্র ১৭ বছর বয়সে ২০২০ সালের ৮ জুলাই ঢাকার একটি হসপিতালে চিকিৎসাধীন থাকা অবস্থায় ইন্তেকাল করেন।

বিজনেস বাংলাদেশ/একে

ট্যাগ :

ওমানে শিয়া মসজিদে বন্দুক হামলায় নিহত ৯, দায়স্বীকার আইএসের

বন্দরে হাসিনা সিমুর কণ্যা সাবিলার মৃত্যুবার্ষিকী পালন

প্রকাশিত : ০৩:৪১:৪৩ অপরাহ্ন, বুধবার, ১০ জুলাই ২০২৪

হাসিনা অটিজম চাইল্ড কেয়ারের প্রতিষ্ঠাতা ও আনন্দধামের নির্বাহী চেয়ারম্যান হাসিনা রহমান সিমুর কন্যা মরহুমা সাবিলার মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে সোমবার (৮ জুলাই) বাদ জোহর বন্দরে অবস্থিত হাসিনা অটিজম চাইল্ড কেয়ারে মিলাদ ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হয়।

প্রতিষ্ঠানটিতে অধ্যায়নরত অটিস্টিক শিশু-কিশোররা ছাড়াও তাদের অভিভাবক বৃন্দ, পরিচালনা বোর্ডের সদস্য বর্গ, সমাজের গন্যমান্য ব্যক্তি বর্গ এই দোয়ার মাহফিলে অংশগ্রহণ করেন। এই উপলক্ষে বিভিন্ন মাদ্রাসা ও এতিমখানায় খাদ্য বিতরণ করা হয়।

সন্ধ্যায় স্থানীয় ইডেন থাই এন্ড চাইনিজ রেস্টুরেন্টে আনন্দধামের পক্ষ থেকে এ উপলক্ষে এক বিশেষ দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হয়। হাসিনা রহমান সিমু তার কন্যার মৃত্যুবার্ষিকীতে যারা তাকে সমবেদনা জানিয়েছেন তাদের সবাইকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন আপনাদের সমবেদনা আমাকে বেচে থাকার সাহস যোগাবে ও প্রতিবন্ধী শিশু-কিশোরদের কাজ করতে অনুপ্রানিত করবে। আপনারা সবাই সাবিলার জন্যে দোয়া করবেন।

মরহুমা সাবিলা একজন অটিস্টিক শিশু ছিলো। হাসিনা রহমান সিমু তার এই প্রতিবন্ধী অটিস্টিক কন্যা সন্তান লালন পালন করতে গিয়ে প্রতিবন্ধী শিশু ও তাদের মায়েদের অসহায়ত্ব উপলব্ধি করেন। তাই তিনি অসহায় প্রতিবন্ধী শিশু-কিশোরদের শারীরিক ও মানুষিক বিকাশের মাধ্যমে সমাজের প্রতিনিধিত্ব করার উপযুক্ত হিসেবে গড়ে তোলার মানষে ও প্রতিবন্ধী সন্তানের মাতা পিতাকে সন্তান নিয়ে তাদের অসহায়ত্ব থেকে মুক্তি দেওয়ার মানষে ২০১৬ সালে নারায়ণগঞ্জের বন্দর উপজেলাতে ” হাসিনা অটিজম চাইল্ড কেয়ার “প্রতিষ্ঠিত করেন।

উল্লেখ্য, হাসিনা রহমান সিমুর কন্যা সাবিলা কিডনি সংক্রান্ত জটিলতায় মাত্র ১৭ বছর বয়সে ২০২০ সালের ৮ জুলাই ঢাকার একটি হসপিতালে চিকিৎসাধীন থাকা অবস্থায় ইন্তেকাল করেন।

বিজনেস বাংলাদেশ/একে