১০:৩৬ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৮ জুন ২০২৪

খালেদার বিরুদ্ধে ফের রাষ্ট্রদ্রোহের অভিযোগ

বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে ঢাকার বিচারিক আদালতে রাষ্ট্রদ্রোহের অভিযোগ করা হয়েছে। খালেদা জিয়া যুক্তরাজ্যে অবস্থানকালে লন্ডনের তাজ হোটেলে পাকিস্তানি গোয়েন্দা সংস্থা ইন্টার সার্ভিসেস ইন্টেলিজেন্স (আইএসআই) এর সদস্যদের সঙ্গে গোপন বৈঠক করেছেন-এমন অভিযোগে তার বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহিতার অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।

বুধবার ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিম আদালতে বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশনের নিবার্হী সভাপতি আইনজীবী মশিউর মালেক এ অভিযোগ মামলা হিসেবে নেয়ার আর্জি জানান।

দুপুরে মহানগর হাকিম আবদুল্লাহ আল মাসুদ অভিযোগের বিষয়ে তার বক্তব্য শুনে বিষয়টি বিকালে আদেশের জন্য রেখেছেন।

চিকিৎসা ও লন্ডনে থাকা পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে সময় কাটাতে গত ১৫ জুলাই যুক্তরাজ্যের উদ্দেশে রওনা হয়ে তিন মাস পর গত ১৮ অক্টোবর দেশে ফেরেন বিএনপি নেত্রী খালেদা। সফরকালে তিনি লন্ডনের তাজ হোটেলে পাকিস্তানি গোয়েন্দা সংস্থা আইএসআইয়ের কয়েকজন কর্মকর্তার সঙ্গে বৈঠক করেন বলে জুলাইয়ে কয়েকটি অনলাইন পোর্টালে প্রতিবেদন আসে।

মশিউরের দায়ের করা অভিযোগে বলা হয়, লন্ডনের সেন্ট জেমস কোর্ট এলাকার তাজ হোটেলে বসে গত ১৮ ও ১৯ জুলাই গভীর রাতে আইএসআইয়ের সদস্য জুনায়েদের সঙ্গে বৈঠক করেন বিএনপি চেয়ারপারসন। দেশে অরাজক পরিস্থিতি তৈরি এবং ভারত-বাংলাদেশের মধ্যে যুদ্ধাবস্থা তৈরি করতে খালেদা জিয়া ওই বৈঠক করেন বলে অভিযোগ তার।

মশিউর বলছেন, গণমাধ্যমে খবর আসার পর ‘দীর্ঘসময় ধরে’ বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশনের লন্ডন শাখার মাধ্যমে অনুসন্ধান চালিয়ে বৈঠকের বিষয়ে তিনি নিশ্চিত হয়েছেন।

ট্যাগ :
জনপ্রিয়

খালেদার বিরুদ্ধে ফের রাষ্ট্রদ্রোহের অভিযোগ

প্রকাশিত : ০২:৪৬:১৯ অপরাহ্ন, বুধবার, ১ নভেম্বর ২০১৭

বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে ঢাকার বিচারিক আদালতে রাষ্ট্রদ্রোহের অভিযোগ করা হয়েছে। খালেদা জিয়া যুক্তরাজ্যে অবস্থানকালে লন্ডনের তাজ হোটেলে পাকিস্তানি গোয়েন্দা সংস্থা ইন্টার সার্ভিসেস ইন্টেলিজেন্স (আইএসআই) এর সদস্যদের সঙ্গে গোপন বৈঠক করেছেন-এমন অভিযোগে তার বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহিতার অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।

বুধবার ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিম আদালতে বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশনের নিবার্হী সভাপতি আইনজীবী মশিউর মালেক এ অভিযোগ মামলা হিসেবে নেয়ার আর্জি জানান।

দুপুরে মহানগর হাকিম আবদুল্লাহ আল মাসুদ অভিযোগের বিষয়ে তার বক্তব্য শুনে বিষয়টি বিকালে আদেশের জন্য রেখেছেন।

চিকিৎসা ও লন্ডনে থাকা পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে সময় কাটাতে গত ১৫ জুলাই যুক্তরাজ্যের উদ্দেশে রওনা হয়ে তিন মাস পর গত ১৮ অক্টোবর দেশে ফেরেন বিএনপি নেত্রী খালেদা। সফরকালে তিনি লন্ডনের তাজ হোটেলে পাকিস্তানি গোয়েন্দা সংস্থা আইএসআইয়ের কয়েকজন কর্মকর্তার সঙ্গে বৈঠক করেন বলে জুলাইয়ে কয়েকটি অনলাইন পোর্টালে প্রতিবেদন আসে।

মশিউরের দায়ের করা অভিযোগে বলা হয়, লন্ডনের সেন্ট জেমস কোর্ট এলাকার তাজ হোটেলে বসে গত ১৮ ও ১৯ জুলাই গভীর রাতে আইএসআইয়ের সদস্য জুনায়েদের সঙ্গে বৈঠক করেন বিএনপি চেয়ারপারসন। দেশে অরাজক পরিস্থিতি তৈরি এবং ভারত-বাংলাদেশের মধ্যে যুদ্ধাবস্থা তৈরি করতে খালেদা জিয়া ওই বৈঠক করেন বলে অভিযোগ তার।

মশিউর বলছেন, গণমাধ্যমে খবর আসার পর ‘দীর্ঘসময় ধরে’ বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশনের লন্ডন শাখার মাধ্যমে অনুসন্ধান চালিয়ে বৈঠকের বিষয়ে তিনি নিশ্চিত হয়েছেন।