০৮:৪৫ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৮ জুন ২০২৪

দারিদ্র্য বিমোচনে কাজ করছে সিপিএ

কমনওয়েলথ পার্লামেন্টারি এসোসিয়েশন (সিপিএ) নির্বাহী কমিটির চেয়ারপার্সন ও জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেছেন, সিপিএ সংসদীয় গণতন্ত্রের চর্চার পাশাপাশি, দারিদ্র্য বিমোচন ও টেকসই উন্নয়ন নিশ্চিত করতে স্মল ব্রাঞ্চেস দেশগুলোর সাথে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করে যাচ্ছে। জেন্ডার সমতা ও সকল ক্ষেত্রে নারীর অংশগ্রহণ নিশ্চিতকরণেও সিপিএ ভূমিকা রাখছে।

বৃহস্পতিবার রাজধানীর একটি হোটেলে ৩৬তম স্মল ব্রাঞ্চেস কনফারেন্সের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। কমনওয়েল্থভুক্ত দেশ হলেও যেসব দেশের লোক সংখ্যা ৫ লাখের নীচে সেসব দেশের সমন্বয়ে গঠিত হয়েছে ‘স্মল ব্রাঞ্চেস’। এ দেশগুলো পারস্পরিক অভিজ্ঞতা বিনিময়ের মাধ্যমে সব ধরনের চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা, টেকসই উন্নয়ন নিশ্চিতকরণ এবং কমনওয়েলথভুক্ত সকল দেশের বৃহত্তর স্বার্থে সম্মিলিতভাবে কাজ করবে।

স্পিকার বলেন, তিন বছর মেয়াদে সিপিএ’র দায়িত্ব পালনকালে তিনি এ সংস্থার উন্নয়নে সবসময়ই কাজ করেছেন।
তরুণ প্রজন্মকে রাজনীতিতে আগ্রহী ও সংসদীয় রাজনীতিতে তাদের অংশগ্রহণ নিশ্চিত করতে সিপিএ বিশেষ পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে জানিয়ে ড. শিরীন শারমিন বলেন, তরুণ প্রজন্ম রাজনীতিতে সম্পৃক্ত হলে আইন প্রণয়ন ও নীতি নির্ধারণে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে পারবে।

জলবায়ুর বিরুপ প্রভাব জীবনযাত্রাকে পরিবর্তন করে দিচ্ছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, বাংলাদেশ জলবায়ু পরিবর্তনজনিত কারণে ক্ষতির হুমকিতে থাকা দেশগুলোর মধ্যে অন্যতম। তিনি বলেন, প্যারিস চুক্তির আলোকে জলবায়ুর অভিঘাত ও ক্ষতি মোকাবেলায় উন্নত দেশগুলোকে এক সঙ্গে কাজ করতে হবে।

ট্যাগ :
জনপ্রিয়

দারিদ্র্য বিমোচনে কাজ করছে সিপিএ

প্রকাশিত : ০৯:৫৫:১৭ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২ নভেম্বর ২০১৭

কমনওয়েলথ পার্লামেন্টারি এসোসিয়েশন (সিপিএ) নির্বাহী কমিটির চেয়ারপার্সন ও জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেছেন, সিপিএ সংসদীয় গণতন্ত্রের চর্চার পাশাপাশি, দারিদ্র্য বিমোচন ও টেকসই উন্নয়ন নিশ্চিত করতে স্মল ব্রাঞ্চেস দেশগুলোর সাথে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করে যাচ্ছে। জেন্ডার সমতা ও সকল ক্ষেত্রে নারীর অংশগ্রহণ নিশ্চিতকরণেও সিপিএ ভূমিকা রাখছে।

বৃহস্পতিবার রাজধানীর একটি হোটেলে ৩৬তম স্মল ব্রাঞ্চেস কনফারেন্সের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। কমনওয়েল্থভুক্ত দেশ হলেও যেসব দেশের লোক সংখ্যা ৫ লাখের নীচে সেসব দেশের সমন্বয়ে গঠিত হয়েছে ‘স্মল ব্রাঞ্চেস’। এ দেশগুলো পারস্পরিক অভিজ্ঞতা বিনিময়ের মাধ্যমে সব ধরনের চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা, টেকসই উন্নয়ন নিশ্চিতকরণ এবং কমনওয়েলথভুক্ত সকল দেশের বৃহত্তর স্বার্থে সম্মিলিতভাবে কাজ করবে।

স্পিকার বলেন, তিন বছর মেয়াদে সিপিএ’র দায়িত্ব পালনকালে তিনি এ সংস্থার উন্নয়নে সবসময়ই কাজ করেছেন।
তরুণ প্রজন্মকে রাজনীতিতে আগ্রহী ও সংসদীয় রাজনীতিতে তাদের অংশগ্রহণ নিশ্চিত করতে সিপিএ বিশেষ পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে জানিয়ে ড. শিরীন শারমিন বলেন, তরুণ প্রজন্ম রাজনীতিতে সম্পৃক্ত হলে আইন প্রণয়ন ও নীতি নির্ধারণে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে পারবে।

জলবায়ুর বিরুপ প্রভাব জীবনযাত্রাকে পরিবর্তন করে দিচ্ছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, বাংলাদেশ জলবায়ু পরিবর্তনজনিত কারণে ক্ষতির হুমকিতে থাকা দেশগুলোর মধ্যে অন্যতম। তিনি বলেন, প্যারিস চুক্তির আলোকে জলবায়ুর অভিঘাত ও ক্ষতি মোকাবেলায় উন্নত দেশগুলোকে এক সঙ্গে কাজ করতে হবে।