০৭:৩০ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২৩ জুন ২০২৪

স্ত্রী খুনের দায়ে স্বামীর ফাঁসি

ঢাকার আশুলিয়া থানাধীন বাইপাইলে স্ত্রী ফাইমা আক্তার হত্যা মামলায় স্বামী মজনু মিয়ার ফাঁসির আদেশ দিয়েছেন আদালত। বুধবার ঢাকার জেলা ও দায়রা জজ এসএম কুদ্দুস জামান আসামির উপস্থিতিতে এ রায় ঘোষণা করেন।

মজনু জামালপুর জেলার মাদারগঞ্জের আমতলা উত্তরপাড়ার মো. রহিস উদ্দিনের ছেলে। স্ত্রীসহ তিনি আশুলিয়ার একটি পোশাকশিল্পে কাজ করতেন।

মামলার অভিযোগে বলা হয়, মজনু মিয়া তার স্ত্রী আশুলিয়ার বাইপাইল পশ্চিমপাড়ায় মনিরুল হক নামে একজনের বাসায় ভাড়া থাকতেন। দাম্পত্য কলহের জেরে ২০১৬ সালের ১৩ অক্টোবর স্ত্রী ফাইমাকে গলাকেটে হত্যার পর পালিয়ে যায় মজনু।

ওই ঘটনায় নিহতের মা ফাতেমা বেগম বাদী হয়ে আশুলিয়া থানায় মামলা করেন। পরে পুলিশের হাতে গ্রেপ্তার হওয়ার পর মজনু আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেয়।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা আশুলিয়া থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মো. শাহজালাল চলতি বছর ৩১ মার্চ আদালতে চার্জশিট দাখিল করেন। এরপর গত ১৪ জুন আদালত আসামির বিরুদ্ধে চার্জগঠন করে বিচার শুরু করেন। ২০ জনের মধ্যে ১২ জনের সাক্ষ্যগ্রহণের পর আদালত আজ এই রায় দেন।

ট্যাগ :
জনপ্রিয়

বাংলাদেশ-ভারত সম্পর্ক দ্রুত অগ্রসর হচ্ছে: প্রধানমন্ত্রী

স্ত্রী খুনের দায়ে স্বামীর ফাঁসি

প্রকাশিত : ০১:৫৭:৩২ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৫ নভেম্বর ২০১৭

ঢাকার আশুলিয়া থানাধীন বাইপাইলে স্ত্রী ফাইমা আক্তার হত্যা মামলায় স্বামী মজনু মিয়ার ফাঁসির আদেশ দিয়েছেন আদালত। বুধবার ঢাকার জেলা ও দায়রা জজ এসএম কুদ্দুস জামান আসামির উপস্থিতিতে এ রায় ঘোষণা করেন।

মজনু জামালপুর জেলার মাদারগঞ্জের আমতলা উত্তরপাড়ার মো. রহিস উদ্দিনের ছেলে। স্ত্রীসহ তিনি আশুলিয়ার একটি পোশাকশিল্পে কাজ করতেন।

মামলার অভিযোগে বলা হয়, মজনু মিয়া তার স্ত্রী আশুলিয়ার বাইপাইল পশ্চিমপাড়ায় মনিরুল হক নামে একজনের বাসায় ভাড়া থাকতেন। দাম্পত্য কলহের জেরে ২০১৬ সালের ১৩ অক্টোবর স্ত্রী ফাইমাকে গলাকেটে হত্যার পর পালিয়ে যায় মজনু।

ওই ঘটনায় নিহতের মা ফাতেমা বেগম বাদী হয়ে আশুলিয়া থানায় মামলা করেন। পরে পুলিশের হাতে গ্রেপ্তার হওয়ার পর মজনু আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেয়।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা আশুলিয়া থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মো. শাহজালাল চলতি বছর ৩১ মার্চ আদালতে চার্জশিট দাখিল করেন। এরপর গত ১৪ জুন আদালত আসামির বিরুদ্ধে চার্জগঠন করে বিচার শুরু করেন। ২০ জনের মধ্যে ১২ জনের সাক্ষ্যগ্রহণের পর আদালত আজ এই রায় দেন।