ঢাকা রাত ১০:৫০, শুক্রবার, ৩রা ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ, ২০শে মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

‌আমার পরে বহু নায়ক-নায়িকা এসেছে যারা কাপড়ের ধার ধারতেন না’

আমি ফিল্ম ছেড়ে দেওয়ার পর বহু নায়ক-নায়িকা এসেছেন যারা কাপড়ের ধার ধারতেন না।’ বলেছেন বাংলা চলচ্চিত্রের পর্দা কাঁপানো চিত্রনায়ক মেহেদি। সম্প্রতি এফডিসিতে এসে একথা বলেছেন আলোচিত ও সমালোচিত এই নায়ক।

মেহেদি বলেন, ‘আমরা কমার্শিয়াল ছবিগুলোতে অভিনয় করতাম। হ্যাঁ আমরা কিছুটা উত্তেজক দৃশ্যতে অভিনয় করেছি কিন্তু ব্যাপকভাবে ‘কাটপিস’ যুক্ত করে সেই সময়টাকে অশ্লীল যুগ বানানো হয়েছে।

যারা এসব করতো তাদেরকে তো কেউ অভিযুক্ত করে না। আমরা অভিনয় করে চলে আসতাম, এরপর একটা গানের দৃশ্যে কিংবা কোনো রোমান্টিক দৃশ্যে সমন্বয় রেখে ‘কাটপিস’ জুড়ে দেওয়া হতো। আর এসবের দায়ও আমাদের ঘাড়ে চলে এসেছে। অথচ সে সময় কাকরাইলে প্রকাশ্যে ১০ হাজার টাকা করে কাটপিস বিক্রি করা হতো। ছবির নির্মাতা, প্রযোজকরা সেসব কিনে স্কেচ টেপ দিয়ে সেলুলয়েডে যুক্ত করতেন। কাকরাইলে এই ঘটনা তো ওপেন সিক্রেট বিষয় ছিল। যখন দেখি অনেক অভিনেতা ক্যামেরার সামনে বাজে কিছু করছে তখন আমি ফিল্ম ছেড়ে দেই। ‘

মেহেদি এখন পুরান ঢাকায় ব্যবসা করছেন। মতিঝিলে আছে পেট্রোল পাম্প। এসবের বাইরেও অভিনয়ে আসতে এখনো মন কাঁদে তার জানালেন মেহেদি।

সমালোচিত এই নায়ক বিয়ে করেছেন পুরান ঢাকার মেয়ে ফারজানাকে। স্ত্রী হাউজওয়াইফ। মেহেদি-ফারজানার ঘরে রয়েছে দুই সন্তান।
ছেলে মাজহারুল হক মাহির বয়স ১০, মেয়ে মেহজাবিন হক ইশরাতের বয়স ৮। সংসার জীবনে মেহেদি সুখি বলেই জানালেন।

বিজনেস বাংলাদেশ/এম মিজান

এ বিভাগের আরও সংবাদ