১০:২৫ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৪ জুলাই ২০২৪

নতুন উচ্চতায় বাংলাদেশ কাতার সম্পর্ক

নতুন করে কাতারে বাংলাদেশি শ্রমবাজার খোলার পাশাপাশি দেশটির সাথে বাণিজ্য সম্পর্কের নতুন সম্ভাবনা দেখছে বাংলাদেশ। দেশ থেকে দক্ষ কর্মী পাঠানোর পাশাপশি দু’পক্ষের বাণিজ্যিক ও কূটনৈতিক সম্পর্কে নতুন দিক উন্মোচন হবে বলেও আশা করছেন মন্ত্রনালয়।

রোববার (১৭ ফেব্রুয়ারি) রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন মেঘনায় ঢাকা সফররত কাতারের পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী সোলতান বিন সাদ আল-মুরাইখির সঙ্গে বাংলাদেশের পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম বৈঠক হয়।

রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন মেঘনায় আয়োজিত এ বৈঠক শেষে কাতারের পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীকে নিয়ে উপস্থিত সাংবাদিকদের এমন সম্ভবনার কথা জানান প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম।

শাহরিয়ার আলম বলেন, ‘কাতারে আমাদের জন্য শ্রম বাজার খুলেছে। তারা আমাদের থেকে দক্ষ কর্মী নিতে চায়। আপনারা জানেন কাতার সর্বাধিক মাথাপিছু আয়সম্পন্ন দেশ। ফিফা বিশ্বকাপ-২০২২ উপলক্ষে সেখানে তাদের নতুন করে শ্রমিকের চাহিদা রয়েছে। আমরা সেগুলো নিয়ে আলোচনা করেছি। কাতার ডেভেলপমেন্ট অথরিটির সঙ্গে মিলে কীভাবে সেখানে কাজ করা যায় সে বিষয়ে বিস্তারিত আলাপ হয়েছে।’

আগামী তিন মাসে বাংলাদেশ ও কাতার সরকারের মাঝে প্রায় চারটি সমঝোতা চুক্তি স্বাক্ষরিত হবে বলেও জানান পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী। তিনি বলেন, ‘আগামী তিন মাসের মধ্যে চারটি সমঝোতা চুক্তি স্বাক্ষরে আমরা একমত হয়েছি। আমাদের দেশ থেকে কূটনৈতিক ও সরকারি কর্মকর্তারা যেনো সেখানে ভিসা ফ্রি এন্ট্রি পায়, সেখানে আমাদের কোনো নাগরিক কোনো অপরাধ করলে সাজা শেষে যেনো দেশে আসতে পারে। নাগরিকেরা যেনো দ্বৈত কর এড়াতে পারেন এবং নির্বাচনে সহযোগিতা করার মতো বিষয়গুলোতে আমরা কাজ শেষ করে এনেছি।’

সম্প্রতি জানুয়ারিতে কাতারে ‘মেড ইন বাংলাদেশ এক্সপো’ আয়োজিত হয়েছে উল্লেখ করে শাহরিয়ার আলম বলেন, ‘এই এক্সপোটি বেশ সফল হয়েছে। কাতার সাধারণত ব্যবসা বৃদ্ধির জন্য কোনো দেশে নিজেরা যায় না। কিন্তু আমাদের এখানে তারা এসেছেন। ব্যবসা-বাণিজ্য, কর্মী পাঠানো ও দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কের নতুন মাত্রা দেখছি আমরা। আগামী দিনে উভয় দেশের উচ্চপর্যায়ের সফর আয়োজিত হতে পারে।’

বিজনেস বাংলাদেশ/বিএইচ

চারদিকে কি হচ্ছে,সেইদিকে নজর না রেখে নিজের লক্ষ্যে পৌঁছাতে হবে

নতুন উচ্চতায় বাংলাদেশ কাতার সম্পর্ক

প্রকাশিত : ০৪:১৫:২৮ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৭ ফেব্রুয়ারী ২০২০

নতুন করে কাতারে বাংলাদেশি শ্রমবাজার খোলার পাশাপাশি দেশটির সাথে বাণিজ্য সম্পর্কের নতুন সম্ভাবনা দেখছে বাংলাদেশ। দেশ থেকে দক্ষ কর্মী পাঠানোর পাশাপশি দু’পক্ষের বাণিজ্যিক ও কূটনৈতিক সম্পর্কে নতুন দিক উন্মোচন হবে বলেও আশা করছেন মন্ত্রনালয়।

রোববার (১৭ ফেব্রুয়ারি) রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন মেঘনায় ঢাকা সফররত কাতারের পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী সোলতান বিন সাদ আল-মুরাইখির সঙ্গে বাংলাদেশের পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম বৈঠক হয়।

রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন মেঘনায় আয়োজিত এ বৈঠক শেষে কাতারের পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীকে নিয়ে উপস্থিত সাংবাদিকদের এমন সম্ভবনার কথা জানান প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম।

শাহরিয়ার আলম বলেন, ‘কাতারে আমাদের জন্য শ্রম বাজার খুলেছে। তারা আমাদের থেকে দক্ষ কর্মী নিতে চায়। আপনারা জানেন কাতার সর্বাধিক মাথাপিছু আয়সম্পন্ন দেশ। ফিফা বিশ্বকাপ-২০২২ উপলক্ষে সেখানে তাদের নতুন করে শ্রমিকের চাহিদা রয়েছে। আমরা সেগুলো নিয়ে আলোচনা করেছি। কাতার ডেভেলপমেন্ট অথরিটির সঙ্গে মিলে কীভাবে সেখানে কাজ করা যায় সে বিষয়ে বিস্তারিত আলাপ হয়েছে।’

আগামী তিন মাসে বাংলাদেশ ও কাতার সরকারের মাঝে প্রায় চারটি সমঝোতা চুক্তি স্বাক্ষরিত হবে বলেও জানান পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী। তিনি বলেন, ‘আগামী তিন মাসের মধ্যে চারটি সমঝোতা চুক্তি স্বাক্ষরে আমরা একমত হয়েছি। আমাদের দেশ থেকে কূটনৈতিক ও সরকারি কর্মকর্তারা যেনো সেখানে ভিসা ফ্রি এন্ট্রি পায়, সেখানে আমাদের কোনো নাগরিক কোনো অপরাধ করলে সাজা শেষে যেনো দেশে আসতে পারে। নাগরিকেরা যেনো দ্বৈত কর এড়াতে পারেন এবং নির্বাচনে সহযোগিতা করার মতো বিষয়গুলোতে আমরা কাজ শেষ করে এনেছি।’

সম্প্রতি জানুয়ারিতে কাতারে ‘মেড ইন বাংলাদেশ এক্সপো’ আয়োজিত হয়েছে উল্লেখ করে শাহরিয়ার আলম বলেন, ‘এই এক্সপোটি বেশ সফল হয়েছে। কাতার সাধারণত ব্যবসা বৃদ্ধির জন্য কোনো দেশে নিজেরা যায় না। কিন্তু আমাদের এখানে তারা এসেছেন। ব্যবসা-বাণিজ্য, কর্মী পাঠানো ও দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কের নতুন মাত্রা দেখছি আমরা। আগামী দিনে উভয় দেশের উচ্চপর্যায়ের সফর আয়োজিত হতে পারে।’

বিজনেস বাংলাদেশ/বিএইচ