১০:২৪ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৪ জুলাই ২০২৪

৩০ হাজার ইয়াবাসহ ৩ ব্যবসায়ী আটক

চট্টগ্রাম নগরীর কোতয়ালী থানার পাথরঘাটা এলাকায় অভিযান চালিয়ে ৩০ হাজার ইয়াবাসহ ৩ মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করেছে র‌্যাব-৭।
শুক্রবার (২৯ মে) সন্ধ্যা সাড়ে ৬ টায় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে পাথরঘাটা এলাকায় আশরাফ আলী রোড সংলগ্ন সাইফুল স্টোর নামীয় দোকানের ভিতর থেকে তাদের আটক করা হয়েছে।
আটককৃতরা হলেন কক্সবাজার জেলার টেকনাফ থানার জালিয়া পাড়ার নুরুল বশরের ২ পুত্র খোরশেদ আলম (৩২) ও সাইফুল ইসলাম (২৪)। তারা বর্তমানে আশ্রাফ আলী রোডের ২০৬ হাজী সামছুল হুদা লেইনে বসবাস করছেন। আটক অপরজন হলেন চট্টগ্রামের আনোয়ারা থানার খদবহেরা গ্রামের নুরুল ইসলামের পুত্র মোঃ ওসমান(৪৬)।
র‌্যাব-৭ এর মিডিয়া শাখার সহকারী পরিচালক (এএসপি) মোঃ মাহমুদুল হাসান মামুন এই তথ্য নিশ্চিত করে বলেন র‌্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে পালানোর চেষ্টাকালে ৩ জন মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করা হয়েছে।
পরে তাদের দেখানো মতে মুদির দোকানের রেকের ভিতর সুকৌশলে লুকানো অবস্থায় ৩০ হাজার ইয়াব উদ্ধার করা হয়েছে।
আসামীরা জিজ্ঞাসাবাদে জানিয়েছে যে তারা দীর্ঘদিন যাবত বিভিন্ন মাদক ব্যবসায়ীদের সাথে যোগসাজশে মাদকদ্রব্য সংগ্রহ করে মুদি ব্যবসার আড়ালে মাদকদ্রব্য ক্রয়-বিক্রয় করে আসছে।
উদ্ধারকৃত মাদকদ্রব্যের আনুমানিক মূল্য ১ কোটি ৫০ লক্ষ টাকা। গ্রেফতারকৃত আসামী এবং উদ্ধারকৃত মাদকদ্রব্য সংক্রান্তে পরবর্তী আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের নিমিত্তে সিএমপির কোতয়ালী থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।
বিজনেস বাংলাদেশ / আতিক

 

চারদিকে কি হচ্ছে,সেইদিকে নজর না রেখে নিজের লক্ষ্যে পৌঁছাতে হবে

৩০ হাজার ইয়াবাসহ ৩ ব্যবসায়ী আটক

প্রকাশিত : ০২:১০:০৫ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ৩০ মে ২০২০
চট্টগ্রাম নগরীর কোতয়ালী থানার পাথরঘাটা এলাকায় অভিযান চালিয়ে ৩০ হাজার ইয়াবাসহ ৩ মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করেছে র‌্যাব-৭।
শুক্রবার (২৯ মে) সন্ধ্যা সাড়ে ৬ টায় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে পাথরঘাটা এলাকায় আশরাফ আলী রোড সংলগ্ন সাইফুল স্টোর নামীয় দোকানের ভিতর থেকে তাদের আটক করা হয়েছে।
আটককৃতরা হলেন কক্সবাজার জেলার টেকনাফ থানার জালিয়া পাড়ার নুরুল বশরের ২ পুত্র খোরশেদ আলম (৩২) ও সাইফুল ইসলাম (২৪)। তারা বর্তমানে আশ্রাফ আলী রোডের ২০৬ হাজী সামছুল হুদা লেইনে বসবাস করছেন। আটক অপরজন হলেন চট্টগ্রামের আনোয়ারা থানার খদবহেরা গ্রামের নুরুল ইসলামের পুত্র মোঃ ওসমান(৪৬)।
র‌্যাব-৭ এর মিডিয়া শাখার সহকারী পরিচালক (এএসপি) মোঃ মাহমুদুল হাসান মামুন এই তথ্য নিশ্চিত করে বলেন র‌্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে পালানোর চেষ্টাকালে ৩ জন মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করা হয়েছে।
পরে তাদের দেখানো মতে মুদির দোকানের রেকের ভিতর সুকৌশলে লুকানো অবস্থায় ৩০ হাজার ইয়াব উদ্ধার করা হয়েছে।
আসামীরা জিজ্ঞাসাবাদে জানিয়েছে যে তারা দীর্ঘদিন যাবত বিভিন্ন মাদক ব্যবসায়ীদের সাথে যোগসাজশে মাদকদ্রব্য সংগ্রহ করে মুদি ব্যবসার আড়ালে মাদকদ্রব্য ক্রয়-বিক্রয় করে আসছে।
উদ্ধারকৃত মাদকদ্রব্যের আনুমানিক মূল্য ১ কোটি ৫০ লক্ষ টাকা। গ্রেফতারকৃত আসামী এবং উদ্ধারকৃত মাদকদ্রব্য সংক্রান্তে পরবর্তী আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের নিমিত্তে সিএমপির কোতয়ালী থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।
বিজনেস বাংলাদেশ / আতিক