০২:২৬ অপরাহ্ন, রবিবার, ২১ এপ্রিল ২০২৪

ইভটিজিং ও মাদক সেবনকে কেন্দ্র করে হত্যার ঘটনায় গ্রেফতার ৭

গত ১ নভেম্বর, ২০২২ ইং রাজধানীর হাজারীবাগ এর টিকটকার শান্ত ধামরাই এর মোহাম্মদিয়া রিসোর্টে একটি পুল পার্টির আয়োজন করে । এই আয়োজনে হাজারীবাগ ও আশেপাশের এলাকার প্রায় শতাধিক তরুণ-তরুণী অংশগ্রহণ করে । তাদের এ আয়োজন ছিল এই মৌসুমের শেষ টিকটকারস পুল পার্টি । পুল পার্টি থেকে ফেরার পথে সিনিয়র-জুনিয়রদের মধ্যে গাঁজা খাওয়া নিয়ে বাসে দুগ্রুপের মধ্যে কথা কাটাকাটি শুরু হয় ।

এক পর্যায়ে বিষয়টি একজন সিনিয়রের গার্লফ্রেন্ডকে ইভটিজিং এর দিকে গড়ায় প্রাথমিকভাবে বিষয়টি নিজেদের মধ্যে কথা বলে সুরাহা করে নেয়া হলেও উভয়পক্ষই মূলত আরো মোক্ষম সুযোগের অপেক্ষায় ছিল । বাসটি হাজারীবাগ যাবার পথে শেরেবাংলা নগরস্থ আসাদ গেটে এসে পৌছালে গার্লফ্রেন্ডদের বাস থেকে নামিয়ে দিয়ে উভয় পক্ষই একে অপরের সাথে মারামারিতে লিপ্ত হয় । এ সময় সিনিয়র গ্রুপের মোঃ রাব্বী রাফা (২৪) তার কাছে থাকা সুইচ গিয়ার ছুরি দিয়ে জুনিয়র গ্রুপকে আঘাত করতে যায় ।

জুনিয়র গ্রুপ এ সময় একত্রিত হয়ে রাফার কাছ থেকে সুইচ গিয়ার কেড়ে নিয়ে তাকে উপর্যুপরি আঘাত করে । এ সময় শাওন (১৯) নামের অপর একজনও ধারালো অস্ত্রের আঘাতে গুরুতর আহত হয় । গুরুতর আহত অবস্থায় তাদের ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হলে রাব্বী রাফাকে আইসিইউতে নেয়া হয় । সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ০২ নভেম্বর ২২ মৃত্যুবরণ হয় । অপর ভিকটিমের অবস্থা বর্তমানে স্থিতিশীল ।এ ঘটনায় ভিকটিমের পিতা বাদী হয়ে শেরেবাংলা নগর থানায় মামলা দায়ের করেছেন ।

পরভর্তিতে উক্ত বিষয়ে নিয়ে এলাকা থমথমে অবস্থা বিরাজ করে ।তারই ধারাবাহিকতায় ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের তেজগাঁও বিভাগের উপ-পুলিশ কমিশনার এর সার্বিক তত্ত্বাবধানে,ও অতিঃ উপ-পুলিশ কমিশনার (মোহাম্মদপুর জোন)সিনিয়র সহকারী পুলিশ কমিশনার (মোহাম্মদপুর জোন) ডিএমপি,ঢাকার নেতৃত্বে বিশেষ অভিযান পরিচালনা করে উক্ত হত্যা কান্ডের মূলহোতা সহ সাতজনকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয় ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের তেজগাঁও বিভাগ।গত ০১ নম্ভেবর ২০২২ ইং রাজধানীর হাজারীবাগ, লালবাগ, মোহাম্মদপুর ও কামরাঙ্গিচর এলাকা হতে তাদের গ্রেফতার করা হয় ।

গ্রেফতারকৃতরা হলেন ফারুক (১৯)জিতু (১৮)জসিম (১৯)মোস্তফা (১৯)জোবায়ের যুবরাজ জয় (১৮)মোঃ রাব্বি (১৯) ও মোঃ রোমান (১৫) ।মূল অভিযুক্ত ফারুকের কাছ থেকে হত্যায় ব্যবহৃত সুইচ গিয়ারটি উদ্ধার করা হয়।
গ্রেফতারকৃতদের বিরুদ্ধে শেরেবাংলানগর থানায় ১ টি হত্যা মামলা রুজু করা হয়েছে ।

বিজনেস বাংলাদেশ/ হাবিব

জনপ্রিয়

ইভটিজিং ও মাদক সেবনকে কেন্দ্র করে হত্যার ঘটনায় গ্রেফতার ৭

প্রকাশিত : ০৪:৩৬:৫৭ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৩ নভেম্বর ২০২২

গত ১ নভেম্বর, ২০২২ ইং রাজধানীর হাজারীবাগ এর টিকটকার শান্ত ধামরাই এর মোহাম্মদিয়া রিসোর্টে একটি পুল পার্টির আয়োজন করে । এই আয়োজনে হাজারীবাগ ও আশেপাশের এলাকার প্রায় শতাধিক তরুণ-তরুণী অংশগ্রহণ করে । তাদের এ আয়োজন ছিল এই মৌসুমের শেষ টিকটকারস পুল পার্টি । পুল পার্টি থেকে ফেরার পথে সিনিয়র-জুনিয়রদের মধ্যে গাঁজা খাওয়া নিয়ে বাসে দুগ্রুপের মধ্যে কথা কাটাকাটি শুরু হয় ।

এক পর্যায়ে বিষয়টি একজন সিনিয়রের গার্লফ্রেন্ডকে ইভটিজিং এর দিকে গড়ায় প্রাথমিকভাবে বিষয়টি নিজেদের মধ্যে কথা বলে সুরাহা করে নেয়া হলেও উভয়পক্ষই মূলত আরো মোক্ষম সুযোগের অপেক্ষায় ছিল । বাসটি হাজারীবাগ যাবার পথে শেরেবাংলা নগরস্থ আসাদ গেটে এসে পৌছালে গার্লফ্রেন্ডদের বাস থেকে নামিয়ে দিয়ে উভয় পক্ষই একে অপরের সাথে মারামারিতে লিপ্ত হয় । এ সময় সিনিয়র গ্রুপের মোঃ রাব্বী রাফা (২৪) তার কাছে থাকা সুইচ গিয়ার ছুরি দিয়ে জুনিয়র গ্রুপকে আঘাত করতে যায় ।

জুনিয়র গ্রুপ এ সময় একত্রিত হয়ে রাফার কাছ থেকে সুইচ গিয়ার কেড়ে নিয়ে তাকে উপর্যুপরি আঘাত করে । এ সময় শাওন (১৯) নামের অপর একজনও ধারালো অস্ত্রের আঘাতে গুরুতর আহত হয় । গুরুতর আহত অবস্থায় তাদের ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হলে রাব্বী রাফাকে আইসিইউতে নেয়া হয় । সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ০২ নভেম্বর ২২ মৃত্যুবরণ হয় । অপর ভিকটিমের অবস্থা বর্তমানে স্থিতিশীল ।এ ঘটনায় ভিকটিমের পিতা বাদী হয়ে শেরেবাংলা নগর থানায় মামলা দায়ের করেছেন ।

পরভর্তিতে উক্ত বিষয়ে নিয়ে এলাকা থমথমে অবস্থা বিরাজ করে ।তারই ধারাবাহিকতায় ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের তেজগাঁও বিভাগের উপ-পুলিশ কমিশনার এর সার্বিক তত্ত্বাবধানে,ও অতিঃ উপ-পুলিশ কমিশনার (মোহাম্মদপুর জোন)সিনিয়র সহকারী পুলিশ কমিশনার (মোহাম্মদপুর জোন) ডিএমপি,ঢাকার নেতৃত্বে বিশেষ অভিযান পরিচালনা করে উক্ত হত্যা কান্ডের মূলহোতা সহ সাতজনকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয় ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের তেজগাঁও বিভাগ।গত ০১ নম্ভেবর ২০২২ ইং রাজধানীর হাজারীবাগ, লালবাগ, মোহাম্মদপুর ও কামরাঙ্গিচর এলাকা হতে তাদের গ্রেফতার করা হয় ।

গ্রেফতারকৃতরা হলেন ফারুক (১৯)জিতু (১৮)জসিম (১৯)মোস্তফা (১৯)জোবায়ের যুবরাজ জয় (১৮)মোঃ রাব্বি (১৯) ও মোঃ রোমান (১৫) ।মূল অভিযুক্ত ফারুকের কাছ থেকে হত্যায় ব্যবহৃত সুইচ গিয়ারটি উদ্ধার করা হয়।
গ্রেফতারকৃতদের বিরুদ্ধে শেরেবাংলানগর থানায় ১ টি হত্যা মামলা রুজু করা হয়েছে ।

বিজনেস বাংলাদেশ/ হাবিব