১০:৫২ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ২১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

যুক্তরাষ্ট্রের সুপারিশকে গুরুত্বপূর্ণ মনে করি না: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

যুক্তরাষ্ট্রের কথায় গুরুত্ব দেওয়ার কিছু নেই বলে মন্তব্য করেছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন। তিনি বলেন, মার্কিন প্রাক-নির্বাচন পর্যবেক্ষক দলের সুপারিশগুলোকে আমরা গুরুত্বপূর্ণ কিছু ভাবি না। এটা নিয়ে অত হইচইয়ের কোনো কারণ নেই।

রোববার (১৫ অক্টোবর) পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এসব কথা বলেন। এর আগে বাংলাদেশ সফর করা যুক্তরাষ্ট্রের প্রাক নির্বাচন পর্যবেক্ষক দল আসন্ন জাতীয় নির্বাচনকে সামনে রেখে সংলাপ, মত প্রকাশের স্বাধীনতা রক্ষাসহ ৫টি সুপারিশ করেছে।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, তারা (যুক্তরাষ্ট্রের পর্যবেক্ষক দল) তাদের বক্তব্য দিয়েছে। আমরা একে স্বাগত জানাই। অনেকেই অনেক ধরনের অপিনিয়ন দেয়। কিন্তু এগুলো আমরা গ্রহণ করব কি করব না, সেটা আমাদের বিষয়।

তিনি বলেন, আমরা সবসময়ই সংলাপের পক্ষে। সব দল-মত নির্বিশেষে আলাপ করি আমরা। তারা চাইলে তারাও করুক। কোনো আপত্তি নেই। আমাদের এতে গুরুত্ব দেওয়ার কিছু নেই। সরকারের ওপর আস্থা রাখুন।

নির্বাচন একটি খেলা উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, বিভিন্ন দেশের অনেক কূটনৈতিক এসে দ্বিপাক্ষিক বিষয় নিয়ে আলাপ করে। তখন কেউ কেউ নির্বাচন নিয়ে কথা বলে। নির্বাচন নিয়ে অনেকে কথা বলে মজা পায়। গণমাধ্যমও তাদের উসকানি দেয়। এটা নিয়ে আমাদের কোনো মাথাব্যথা নেই।

তিনি বলেন, দুনিয়ার অধিকাংশ দেশে ইলেকশন অবজারভার নেই। কিন্তু সেসব দেশ ভালো চলছে। যুক্তরাষ্ট্রে কোনো ইলেকশন অবজারভার কখনো নেয় না। সুতরাং এগুলো নিয়ে আলাপ করে লাভ নেই।

বিজনেস বাংলাদেশ/বিএইচ

জনপ্রিয়

যুক্তরাষ্ট্রের সুপারিশকে গুরুত্বপূর্ণ মনে করি না: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

প্রকাশিত : ০৯:২৩:৩২ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৫ অক্টোবর ২০২৩

যুক্তরাষ্ট্রের কথায় গুরুত্ব দেওয়ার কিছু নেই বলে মন্তব্য করেছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন। তিনি বলেন, মার্কিন প্রাক-নির্বাচন পর্যবেক্ষক দলের সুপারিশগুলোকে আমরা গুরুত্বপূর্ণ কিছু ভাবি না। এটা নিয়ে অত হইচইয়ের কোনো কারণ নেই।

রোববার (১৫ অক্টোবর) পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এসব কথা বলেন। এর আগে বাংলাদেশ সফর করা যুক্তরাষ্ট্রের প্রাক নির্বাচন পর্যবেক্ষক দল আসন্ন জাতীয় নির্বাচনকে সামনে রেখে সংলাপ, মত প্রকাশের স্বাধীনতা রক্ষাসহ ৫টি সুপারিশ করেছে।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, তারা (যুক্তরাষ্ট্রের পর্যবেক্ষক দল) তাদের বক্তব্য দিয়েছে। আমরা একে স্বাগত জানাই। অনেকেই অনেক ধরনের অপিনিয়ন দেয়। কিন্তু এগুলো আমরা গ্রহণ করব কি করব না, সেটা আমাদের বিষয়।

তিনি বলেন, আমরা সবসময়ই সংলাপের পক্ষে। সব দল-মত নির্বিশেষে আলাপ করি আমরা। তারা চাইলে তারাও করুক। কোনো আপত্তি নেই। আমাদের এতে গুরুত্ব দেওয়ার কিছু নেই। সরকারের ওপর আস্থা রাখুন।

নির্বাচন একটি খেলা উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, বিভিন্ন দেশের অনেক কূটনৈতিক এসে দ্বিপাক্ষিক বিষয় নিয়ে আলাপ করে। তখন কেউ কেউ নির্বাচন নিয়ে কথা বলে। নির্বাচন নিয়ে অনেকে কথা বলে মজা পায়। গণমাধ্যমও তাদের উসকানি দেয়। এটা নিয়ে আমাদের কোনো মাথাব্যথা নেই।

তিনি বলেন, দুনিয়ার অধিকাংশ দেশে ইলেকশন অবজারভার নেই। কিন্তু সেসব দেশ ভালো চলছে। যুক্তরাষ্ট্রে কোনো ইলেকশন অবজারভার কখনো নেয় না। সুতরাং এগুলো নিয়ে আলাপ করে লাভ নেই।

বিজনেস বাংলাদেশ/বিএইচ