১০:০৩ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৫ জুন ২০২৪

টানা দুইবার কাউকে হারানো অঘটন নয় : আলী খান

যুক্তরাষ্ট্রের বিপক্ষে সিরিজের প্রথম ম্যাচে ৫ উইকেটের ব্যবধানে হেরেছিল বাংলাদেশ। পরের ম্যাচেও ঘুরে দাঁড়াতে পারল না টাইগাররা। এবার তাদের হার ৬ রানের ব্যবধানে। তাতে এক ম্যাচ হাতে রেখেই সিরিজ নিশ্চিত করেছে স্বাগতিকরা।

শক্তিমত্তার বিচারে যুক্তরাষ্ট্র বাংলাদেশের চেয়ে খানিকটা পিছিয়ে থাকলেও এই সিরিজ জয়কে অঘটন মানতে নারাজ আলী খান। আমেরিকান এই পেসারের মতে, পরপর দুই ম্যাচে জয় পাওয়াটা সহজ নয়। তাদের সামর্থ্য আছে বলেই বাংলাদেশের বিপক্ষে সিরিজ জিততে পেরেছে।

ম্যাচের পর সংবাদ সম্মেলনে এসে আলী বলেন, ‘৩ মাস পর আমি খেললাম। আমার বড় চোট ছিল। মাঝেমধ্যে আপনার ছন্দ ফিরে পেতে সময় লাগবে। আমার জন্য বিষয়টা ছিল কন্ডিশনের সাথে মানিয়ে নিয়ে ভালো করা। আমি সাধারণত এত রান দেই না। প্রথম ম্যাচে আমার মত করে বল করতে পারিনি। সেখান থেকে যা শিখেছি তা আমি এখানে প্রয়োগ করার চেষ্টা করেছি। কন্ডিশনের সাথে দ্রুত মানিয়ে নিয়ে আমি চেষ্টা করছি আরও উন্নতি করে যাওয়ার।’

‘এখানে শেখার আরও অনেক কিছু রয়েছে। বিশ্বকাপ আছে সামনেই। খুব একটা সময় নেই। আমার আরও ছন্দ পেতে হবে। উন্নতি করতে হবে। ছেলেরা ভালো খেলেছে কানাডার বিরুদ্ধে। আমার আজকে ভালো লেগেছে। এখন এটি ধরে রাখতে হবে।’

জয়ের জন্য তারা ক্ষুধার্ত ছিলেন আলীরা। তিনি বলেন, ‘আমরা ক্ষুধার্ত। আমরা চেষ্টা করছি যা আমাদের সামনে আসছে তাই ভালোভাবে করতে। সবাই অনেক ক্ষুধার্ত। আমরা বিশ্বকাপের জন্য মুখিয়ে আছি এবং ইউএসএ বিশ্বকাপে থাকবে দারুণ কিছু ঘটাতে।’

সিরিজ জয় নিয়ে আলীর ভাষ্য, ‘এটা দারুণ। অনেক সময় বড় দলের সাথে আমাদের জয়কে ফ্লুক মনে করা হয়। তবে টানা দুইবার কাউকে হারানো, সিরিজ জেতা কখনও ফ্লুক নয়। এর মানে হল আমাদের প্রতিভা, স্কিল এবং সামর্থ্য আছে যদি আমরা সুযোগ পাই।’

বিজনেস বাংলাদেশ/একে

জনপ্রিয়

টানা দুইবার কাউকে হারানো অঘটন নয় : আলী খান

প্রকাশিত : ০৩:৫৬:৩৯ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪

যুক্তরাষ্ট্রের বিপক্ষে সিরিজের প্রথম ম্যাচে ৫ উইকেটের ব্যবধানে হেরেছিল বাংলাদেশ। পরের ম্যাচেও ঘুরে দাঁড়াতে পারল না টাইগাররা। এবার তাদের হার ৬ রানের ব্যবধানে। তাতে এক ম্যাচ হাতে রেখেই সিরিজ নিশ্চিত করেছে স্বাগতিকরা।

শক্তিমত্তার বিচারে যুক্তরাষ্ট্র বাংলাদেশের চেয়ে খানিকটা পিছিয়ে থাকলেও এই সিরিজ জয়কে অঘটন মানতে নারাজ আলী খান। আমেরিকান এই পেসারের মতে, পরপর দুই ম্যাচে জয় পাওয়াটা সহজ নয়। তাদের সামর্থ্য আছে বলেই বাংলাদেশের বিপক্ষে সিরিজ জিততে পেরেছে।

ম্যাচের পর সংবাদ সম্মেলনে এসে আলী বলেন, ‘৩ মাস পর আমি খেললাম। আমার বড় চোট ছিল। মাঝেমধ্যে আপনার ছন্দ ফিরে পেতে সময় লাগবে। আমার জন্য বিষয়টা ছিল কন্ডিশনের সাথে মানিয়ে নিয়ে ভালো করা। আমি সাধারণত এত রান দেই না। প্রথম ম্যাচে আমার মত করে বল করতে পারিনি। সেখান থেকে যা শিখেছি তা আমি এখানে প্রয়োগ করার চেষ্টা করেছি। কন্ডিশনের সাথে দ্রুত মানিয়ে নিয়ে আমি চেষ্টা করছি আরও উন্নতি করে যাওয়ার।’

‘এখানে শেখার আরও অনেক কিছু রয়েছে। বিশ্বকাপ আছে সামনেই। খুব একটা সময় নেই। আমার আরও ছন্দ পেতে হবে। উন্নতি করতে হবে। ছেলেরা ভালো খেলেছে কানাডার বিরুদ্ধে। আমার আজকে ভালো লেগেছে। এখন এটি ধরে রাখতে হবে।’

জয়ের জন্য তারা ক্ষুধার্ত ছিলেন আলীরা। তিনি বলেন, ‘আমরা ক্ষুধার্ত। আমরা চেষ্টা করছি যা আমাদের সামনে আসছে তাই ভালোভাবে করতে। সবাই অনেক ক্ষুধার্ত। আমরা বিশ্বকাপের জন্য মুখিয়ে আছি এবং ইউএসএ বিশ্বকাপে থাকবে দারুণ কিছু ঘটাতে।’

সিরিজ জয় নিয়ে আলীর ভাষ্য, ‘এটা দারুণ। অনেক সময় বড় দলের সাথে আমাদের জয়কে ফ্লুক মনে করা হয়। তবে টানা দুইবার কাউকে হারানো, সিরিজ জেতা কখনও ফ্লুক নয়। এর মানে হল আমাদের প্রতিভা, স্কিল এবং সামর্থ্য আছে যদি আমরা সুযোগ পাই।’

বিজনেস বাংলাদেশ/একে