১০:৪৯ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৫ জুন ২০২৪

‘যে জলদস্যুরা আত্মসমর্পণ করেননি, তাদের কী হবে আল্লাহই জানেন’

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছেন, “জলদস্যুদের মধ্যে যারা আত্মসমর্পণ করেছেন, তাদের স্বাভাবিক জীবনে ফেরার ব্যবস্থা করা হবে। কিন্তু যারা আত্মসমর্পণ করেননি, তাদের কী হবে শুধু আল্লাহই ভালো জানেন। যেকোনো মূল্যে অপরাধীদের দমন করা হবে।”

বৃহস্পতিবার (৩০ মে) দুপুরে চট্টগ্রামের পতেঙ্গায় র‍্যাব-৭-এর এলিট হলে জলদস্যুদের আত্মসমর্পণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য তিনি এসব কথা বলেন।

আসাদুজ্জামান খান বলেন, “সুন্দরবনের মতো শিগগির বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন উপকূলীয় অঞ্চলকে দস্যু মুক্ত ঘোষণা করা হবে।”

প্রশ্ন রেখে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, “চট্টগ্রাম আর আগের মতো নেই। এখানে টানেল হয়েছে, বে-টার্মিনাল হচ্ছে। এখানে কেন দস্যুতা থাকবে?”

জলদস্যুদের বিষয়ে আসাদুজ্জামান খান বলেন, “একজন পঞ্চাশোর্ধ নারীও জলদস্যু, এটি একটি চিন্তার বিষয়। মূলত ক্ষমতাশালীদের হাতে নির্যাতিত হয়ে অনেকে এ পথ বেছে নেন। এমন অনেক গল্প আছে। আমরা তাদের সুপথে ফেরার ও সমাজে করে খাওয়ার মতো ব্যবস্থা করছি। তাদের মামলাগুলো তুলে নিয়ে সহায়তা করব। তবে খুন ও ধর্ষণের অভিযুক্তদের মামলা তুলব না।”

র‌্যাবের প্রশংসা করে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, “র‍্যাব অনেক চড়াই-উৎরাই পরেও স্ব-মহিমায় দাঁড়িয়ে আছে। আমাদের দেশে যখন জঙ্গির উত্থান হচ্ছিল। অত্যন্ত সাহসিকতার সঙ্গে তা মোকাবিলা করেছে র‍্যাব। সুরক্ষা দিতে গিয়ে নিজেদের জীবন দিয়েছে ৩৩ জন।”

বিজনেস বাংলাদেশ/BH

জনপ্রিয়

রংপুরে বালুভর্তি মাহিন্দ্রার ধাক্কায় প্রাণ গেল ভ্যানচালকসহ দুইজনের

‘যে জলদস্যুরা আত্মসমর্পণ করেননি, তাদের কী হবে আল্লাহই জানেন’

প্রকাশিত : ০৬:০৬:৪০ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছেন, “জলদস্যুদের মধ্যে যারা আত্মসমর্পণ করেছেন, তাদের স্বাভাবিক জীবনে ফেরার ব্যবস্থা করা হবে। কিন্তু যারা আত্মসমর্পণ করেননি, তাদের কী হবে শুধু আল্লাহই ভালো জানেন। যেকোনো মূল্যে অপরাধীদের দমন করা হবে।”

বৃহস্পতিবার (৩০ মে) দুপুরে চট্টগ্রামের পতেঙ্গায় র‍্যাব-৭-এর এলিট হলে জলদস্যুদের আত্মসমর্পণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য তিনি এসব কথা বলেন।

আসাদুজ্জামান খান বলেন, “সুন্দরবনের মতো শিগগির বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন উপকূলীয় অঞ্চলকে দস্যু মুক্ত ঘোষণা করা হবে।”

প্রশ্ন রেখে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, “চট্টগ্রাম আর আগের মতো নেই। এখানে টানেল হয়েছে, বে-টার্মিনাল হচ্ছে। এখানে কেন দস্যুতা থাকবে?”

জলদস্যুদের বিষয়ে আসাদুজ্জামান খান বলেন, “একজন পঞ্চাশোর্ধ নারীও জলদস্যু, এটি একটি চিন্তার বিষয়। মূলত ক্ষমতাশালীদের হাতে নির্যাতিত হয়ে অনেকে এ পথ বেছে নেন। এমন অনেক গল্প আছে। আমরা তাদের সুপথে ফেরার ও সমাজে করে খাওয়ার মতো ব্যবস্থা করছি। তাদের মামলাগুলো তুলে নিয়ে সহায়তা করব। তবে খুন ও ধর্ষণের অভিযুক্তদের মামলা তুলব না।”

র‌্যাবের প্রশংসা করে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, “র‍্যাব অনেক চড়াই-উৎরাই পরেও স্ব-মহিমায় দাঁড়িয়ে আছে। আমাদের দেশে যখন জঙ্গির উত্থান হচ্ছিল। অত্যন্ত সাহসিকতার সঙ্গে তা মোকাবিলা করেছে র‍্যাব। সুরক্ষা দিতে গিয়ে নিজেদের জীবন দিয়েছে ৩৩ জন।”

বিজনেস বাংলাদেশ/BH