০১:০৮ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১৭ জুলাই ২০২৪

ঈদে মানুষের হয়রানী অজ্ঞান পার্টির দৌরাত্ম রোধে কন্ট্রোল রুম চালু

ঢাকা থেকে ঈদে ঘরমুখো মানুষের হয়রানী ও টিকেট কালোবাজারী,মলমপার্টি, অজ্ঞান পার্টির দৌরাত্ম রোধসহ রংপুর-ঢাকা মহাসড়কে যান চলাচল স্বাভাবিক রাখতে সাব কন্ট্রোল রুম চালু করেছে রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশ ও র‌্যাব-১৩।

বৃহস্পতিবার (১৩ জুন) দুপুরে মহানগরীর মর্ডাণ মোড়ে এ কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন,রংপুর মেট্রেপলিটন পুলিশের ভারপ্রাপ্ত পুলিশ কমিশনার সায়ফুজ্জামান ফারুকী।এসময় যাত্রীরা ধন্যবাদ জানান পুলিশকে।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন ,র‌্যাব-১৩ এর অধিনায়ক কামরুল হাসান,রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের উপ-পুলিশ কমিশনার (গোয়েন্দা) কাজী মুত্তাকি ইবনু মিনান,উপ-পুলিশ কমিশনার (ট্রাফিক) মেনহাজুল আলম,ট্রাফিক দক্ষিণ বিভাগের সহকারী পুলিশ কমিশনার নজরুল ইসলাম,কোতয়ালী জোনের সহকারী পুলিশ কমিশনার আরিফুজ্জামান, ট্রাফিক দক্ষিণের টিআই কেরামত আলী, মেট্রোপলিটন কমিউনিটি পুলিশিংয়ের সাধারণ সম্পাদক আরিফ হোসেন টিটো, জেলা মটর মালিক সমিতির সহ-সভাপতি একে চৌধুরী ক্যাপ্টেন, জেলা মটর শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক এম এ মজিদসহ অন্যরা।সাব-কন্ট্রোল রুমের মাধ্যমে ঈদের ঘরে ফেরা মানুষ ও ঈদ পরবর্তী কর্মস্থলে ফেরত যাওয়া যাত্রীদের নানা সেবা প্রদান করা হবে।

র‌্যারের অধিনায়ক কামরুল হাসান বলেন, পুলিশ ও র‌্যাব যৌথভাবে যাত্রী সেবা নিশ্চিতে কাজ শুরু করেছে।এর পাশাপাশি ক্রেতা-বিক্রেতারা যেন হয়রানি ও প্রতারণার শিকার না হয় সেলক্ষ্যে হাটে র‌্যাবের নজরদারী ও টহল অব্যহত রয়েছে। এছাড়া রংপুর বিভাগের শান্তি শৃঙ্খলা রক্ষায় র‌্যাবের টহল টিম কাজ করবে।

রংপুর মেট্রেপলিটন পুলিশের ভারপ্রাপ্ত পুলিশ কমিশনার সায়ফুজ্জামান ফারুকী বলেন,সাব কন্ট্রোল রুমের মাধ্যমে আমরা যাত্রীদের সর্বাত্মক সহযোগিতা করবো। ঈদ পরবর্তী কর্মস্থলে ফিরে যাওয়ার সময় অনেক যাত্রীরা টিকেট পায় না, পেলেও উচ্চ মূল্যে কিনতে হয় এমন অভিযোগ আসে। কেউ যেন টিকেট কালোবাজারী করে বিক্রয় না করতে পারে পুলিশ কাজ করবো। এক্ষেত্রে আমাদের মোটর মালিক ও শ্রমিক সংগঠনের নেতারা সহযোগিতা করবে। এছাড়া অনেকে ঈদ করতে ঘরবাড়ি ছেড়ে অন্যত্র যাবে। আমরা টহল জোরদার করে সেই সমস্ত বাড়িতে যেন চুরি-ডাকাতি না হয় সেলক্ষ্যে কাজ করে যাব।

বিজনেস বাংলাদেশ/একে

ট্যাগ :

মেঘনা ধনাগোদা সেচ প্রকল্প বেড়ীবাঁধ সড়কে আবারও ছোট বড় গর্তের সৃষ্টি

ঈদে মানুষের হয়রানী অজ্ঞান পার্টির দৌরাত্ম রোধে কন্ট্রোল রুম চালু

প্রকাশিত : ১১:১৪:৪০ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ১৪ জুন ২০২৪

ঢাকা থেকে ঈদে ঘরমুখো মানুষের হয়রানী ও টিকেট কালোবাজারী,মলমপার্টি, অজ্ঞান পার্টির দৌরাত্ম রোধসহ রংপুর-ঢাকা মহাসড়কে যান চলাচল স্বাভাবিক রাখতে সাব কন্ট্রোল রুম চালু করেছে রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশ ও র‌্যাব-১৩।

বৃহস্পতিবার (১৩ জুন) দুপুরে মহানগরীর মর্ডাণ মোড়ে এ কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন,রংপুর মেট্রেপলিটন পুলিশের ভারপ্রাপ্ত পুলিশ কমিশনার সায়ফুজ্জামান ফারুকী।এসময় যাত্রীরা ধন্যবাদ জানান পুলিশকে।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন ,র‌্যাব-১৩ এর অধিনায়ক কামরুল হাসান,রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের উপ-পুলিশ কমিশনার (গোয়েন্দা) কাজী মুত্তাকি ইবনু মিনান,উপ-পুলিশ কমিশনার (ট্রাফিক) মেনহাজুল আলম,ট্রাফিক দক্ষিণ বিভাগের সহকারী পুলিশ কমিশনার নজরুল ইসলাম,কোতয়ালী জোনের সহকারী পুলিশ কমিশনার আরিফুজ্জামান, ট্রাফিক দক্ষিণের টিআই কেরামত আলী, মেট্রোপলিটন কমিউনিটি পুলিশিংয়ের সাধারণ সম্পাদক আরিফ হোসেন টিটো, জেলা মটর মালিক সমিতির সহ-সভাপতি একে চৌধুরী ক্যাপ্টেন, জেলা মটর শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক এম এ মজিদসহ অন্যরা।সাব-কন্ট্রোল রুমের মাধ্যমে ঈদের ঘরে ফেরা মানুষ ও ঈদ পরবর্তী কর্মস্থলে ফেরত যাওয়া যাত্রীদের নানা সেবা প্রদান করা হবে।

র‌্যারের অধিনায়ক কামরুল হাসান বলেন, পুলিশ ও র‌্যাব যৌথভাবে যাত্রী সেবা নিশ্চিতে কাজ শুরু করেছে।এর পাশাপাশি ক্রেতা-বিক্রেতারা যেন হয়রানি ও প্রতারণার শিকার না হয় সেলক্ষ্যে হাটে র‌্যাবের নজরদারী ও টহল অব্যহত রয়েছে। এছাড়া রংপুর বিভাগের শান্তি শৃঙ্খলা রক্ষায় র‌্যাবের টহল টিম কাজ করবে।

রংপুর মেট্রেপলিটন পুলিশের ভারপ্রাপ্ত পুলিশ কমিশনার সায়ফুজ্জামান ফারুকী বলেন,সাব কন্ট্রোল রুমের মাধ্যমে আমরা যাত্রীদের সর্বাত্মক সহযোগিতা করবো। ঈদ পরবর্তী কর্মস্থলে ফিরে যাওয়ার সময় অনেক যাত্রীরা টিকেট পায় না, পেলেও উচ্চ মূল্যে কিনতে হয় এমন অভিযোগ আসে। কেউ যেন টিকেট কালোবাজারী করে বিক্রয় না করতে পারে পুলিশ কাজ করবো। এক্ষেত্রে আমাদের মোটর মালিক ও শ্রমিক সংগঠনের নেতারা সহযোগিতা করবে। এছাড়া অনেকে ঈদ করতে ঘরবাড়ি ছেড়ে অন্যত্র যাবে। আমরা টহল জোরদার করে সেই সমস্ত বাড়িতে যেন চুরি-ডাকাতি না হয় সেলক্ষ্যে কাজ করে যাব।

বিজনেস বাংলাদেশ/একে