০৮:৩৬ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৭ জুলাই ২০২৪

কোরবানির ঈদ কে সামনে রেখে ব্যস্ত সময় পার করছেন কামাররা

কোরবানির ঈদকে সামনে রেখে ব্যস্ত সময় পার করছেন সাতকানিয়ার কামাররা। সকাল থেকে রাত পর্যন্ত চলছে নতুন দা,বটি, ছুরি, চাপাতি তৈরির কাজ, টুং-টাং শব্দে মুখরিত কামারশালা। পেশাদার কামারদের সাথে অপেশাদার অনেকেই সহযোগিতা করছেন তাদের কাজে, বছরের এই সময়ে এসে কর্মব্যস্ততা বেড়ে যায় তাদের। (১৪ জুন শুক্রবার) বিকেলে সাতকানিয়ার কয়েকটি কামারশালা ঘুরে দেখা যায় নতুন পুরাতন দা ছুরি নিয়ে ব্যস্ত সময় পার করছেন কামাররা। ঝামেলা এড়াতে নতুন দা,বটি, ছুরি,চাপাতি তৈরী করে রেখেছেন অনেকেই প্রতিটি দা বিক্রি হচ্ছে ৪০০ থেকে ৫০০ টাকা বটি ৩০০থেকে ৪০০ টাকা ছুরি ২০০ থেকে২৫০ টাকা এছাড়াও ভালো মানের দা ছুরি রয়েছে ৫০০ থেকে ১০০০ টাকা পর্যন্ত। দামের ব্যাপারে জানতে চাইলে তারা জানান, আগের তুলনায় এখন দাম একটু বেশি পড়বে, সবকিছুর খরচ আগের তুলনায় এখন বেশি, যার কারণে দাম একটু বেশি নিতে হচ্ছে তবে লাভ তেমন হচ্ছে না। রঞ্জিত কর্মকার নামে এক কামার জানান, গত এক মাস ধরে কর্মব্যস্ততা, ২দিন পরেই কোরবানি ঈদ পশু জবাই করতে দা,ছুরি শান দিতে কামারশালায় ভিড় জমিয়েছে মানুষ, সকাল থেকে গভীর রাত পর্যন্ত কাজ করছি।

ট্যাগ :

শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তা নিশ্চিতের আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর

কোরবানির ঈদ কে সামনে রেখে ব্যস্ত সময় পার করছেন কামাররা

প্রকাশিত : ০৭:৪৩:৫৩ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৪ জুন ২০২৪

কোরবানির ঈদকে সামনে রেখে ব্যস্ত সময় পার করছেন সাতকানিয়ার কামাররা। সকাল থেকে রাত পর্যন্ত চলছে নতুন দা,বটি, ছুরি, চাপাতি তৈরির কাজ, টুং-টাং শব্দে মুখরিত কামারশালা। পেশাদার কামারদের সাথে অপেশাদার অনেকেই সহযোগিতা করছেন তাদের কাজে, বছরের এই সময়ে এসে কর্মব্যস্ততা বেড়ে যায় তাদের। (১৪ জুন শুক্রবার) বিকেলে সাতকানিয়ার কয়েকটি কামারশালা ঘুরে দেখা যায় নতুন পুরাতন দা ছুরি নিয়ে ব্যস্ত সময় পার করছেন কামাররা। ঝামেলা এড়াতে নতুন দা,বটি, ছুরি,চাপাতি তৈরী করে রেখেছেন অনেকেই প্রতিটি দা বিক্রি হচ্ছে ৪০০ থেকে ৫০০ টাকা বটি ৩০০থেকে ৪০০ টাকা ছুরি ২০০ থেকে২৫০ টাকা এছাড়াও ভালো মানের দা ছুরি রয়েছে ৫০০ থেকে ১০০০ টাকা পর্যন্ত। দামের ব্যাপারে জানতে চাইলে তারা জানান, আগের তুলনায় এখন দাম একটু বেশি পড়বে, সবকিছুর খরচ আগের তুলনায় এখন বেশি, যার কারণে দাম একটু বেশি নিতে হচ্ছে তবে লাভ তেমন হচ্ছে না। রঞ্জিত কর্মকার নামে এক কামার জানান, গত এক মাস ধরে কর্মব্যস্ততা, ২দিন পরেই কোরবানি ঈদ পশু জবাই করতে দা,ছুরি শান দিতে কামারশালায় ভিড় জমিয়েছে মানুষ, সকাল থেকে গভীর রাত পর্যন্ত কাজ করছি।