০৭:২৭ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৭ জুলাই ২০২৪

টানা বর্ষণ ও ভূমিধসে বিপর্যস্ত সিকিম, আটকে পড়েছেন ১০ বাংলাদেশি

কয়েক দিনের টানা বর্ষণ আর ভূমিধসে বড় ধরনের বিপর্যয় নেমে এসেছে ভারতের উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় রাজ্য সিকিমে। সড়ক-ব্রিজ ভেঙে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে রাজ্যের বেশ কিছু অঞ্চল। এতে রাজ্যটিতে আটকে পড়েছেন দেড় হাজার পর্যটক।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যমগুলো বলছে, সিকিমের উত্তরাঞ্চলে টানা এই বৃষ্টির কারণে তিস্তায় পানি বেড়েছে। আকস্মিক বন্যায় পানিতে তলিয়ে গেছে কালিম্পং জেলার অনেক অংশ। সেসব জায়গা থেকে বহু মানুষকে নিরাপদ স্থানে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে।

সিকিম সরকারের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, আটকে পড়া পর্যটকদের মধ্যে ১৫ জন বিদেশি পর্যটক আছেন, যাদের ১০ জনই বাংলাদেশি। তাদের উদ্ধারের চেষ্টা চলছে।

অবশ্য পরিস্থিতির উন্নতি হচ্ছে বলে আশ্বাস দিয়েছে সেখানকার প্রশাসন। দুর্গত অঞ্চলে ত্রাণ পৌঁছাতে প্রথমে সমস্যা সৃষ্টি হলেও রাস্তা থেকে ধ্বংসস্তূপ সরানোর পর দুর্গতদের কাছে পৌঁছাতে পারছেন ত্রাণকর্মীরা। এ ছাড়া আটকে পড়া পর্যটকরা সবাই সুস্থ আছেন বলেও জানানো হয়েছে।

জানা গেছে, আটকে পড়া পর্যটকদের বিমানে উদ্ধারের পরিকল্পনা হাতে নিয়েছে রাজ্য সরকার। তবে আবহাওয়া ভালো না হওয়া পর্যন্ত তা সম্ভব নয়। বিকল্প ব্যবস্থায় সড়কপথে কীভাবে পর্যটকদের উদ্ধার করা যায়, তা নিয়েও আলোচনা চলছে।

বিজনেস বাংলাদেশ/একে

বড় দুঃসংবাদ পেলেন লিওনেল মেসি

টানা বর্ষণ ও ভূমিধসে বিপর্যস্ত সিকিম, আটকে পড়েছেন ১০ বাংলাদেশি

প্রকাশিত : ১১:৫৪:৫৯ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪

কয়েক দিনের টানা বর্ষণ আর ভূমিধসে বড় ধরনের বিপর্যয় নেমে এসেছে ভারতের উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় রাজ্য সিকিমে। সড়ক-ব্রিজ ভেঙে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে রাজ্যের বেশ কিছু অঞ্চল। এতে রাজ্যটিতে আটকে পড়েছেন দেড় হাজার পর্যটক।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যমগুলো বলছে, সিকিমের উত্তরাঞ্চলে টানা এই বৃষ্টির কারণে তিস্তায় পানি বেড়েছে। আকস্মিক বন্যায় পানিতে তলিয়ে গেছে কালিম্পং জেলার অনেক অংশ। সেসব জায়গা থেকে বহু মানুষকে নিরাপদ স্থানে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে।

সিকিম সরকারের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, আটকে পড়া পর্যটকদের মধ্যে ১৫ জন বিদেশি পর্যটক আছেন, যাদের ১০ জনই বাংলাদেশি। তাদের উদ্ধারের চেষ্টা চলছে।

অবশ্য পরিস্থিতির উন্নতি হচ্ছে বলে আশ্বাস দিয়েছে সেখানকার প্রশাসন। দুর্গত অঞ্চলে ত্রাণ পৌঁছাতে প্রথমে সমস্যা সৃষ্টি হলেও রাস্তা থেকে ধ্বংসস্তূপ সরানোর পর দুর্গতদের কাছে পৌঁছাতে পারছেন ত্রাণকর্মীরা। এ ছাড়া আটকে পড়া পর্যটকরা সবাই সুস্থ আছেন বলেও জানানো হয়েছে।

জানা গেছে, আটকে পড়া পর্যটকদের বিমানে উদ্ধারের পরিকল্পনা হাতে নিয়েছে রাজ্য সরকার। তবে আবহাওয়া ভালো না হওয়া পর্যন্ত তা সম্ভব নয়। বিকল্প ব্যবস্থায় সড়কপথে কীভাবে পর্যটকদের উদ্ধার করা যায়, তা নিয়েও আলোচনা চলছে।

বিজনেস বাংলাদেশ/একে