ঢাকা দুপুর ১:১১, সোমবার, ২৮শে নভেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ১৩ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

বিদেশ যেতে বাধ্য করা হয়নি আমি, আমি সুস্থ

প্রধান বিচারপতি এস কে সিনহা বলেছেন, আমাকে ছুটিতে যেতে বাধ্য করা হয়নি। আমি নিজে থেকেই ছুটি নিয়েছি। আমি সম্পূর্ণ সুস্থ আছি। কারো সঙ্গে বিরোধ নেই। ছুটি শেষে দেশে ফিরে আসবো। আমাকে দেশ ছাড়তে বাধ্য করা হয়নি। বিচার বিভাগ স্বাধীন থাকুক, এটাই আমি চাই। গতকাল শুক্রবার রাতে অস্ট্রেলিয়ার উদ্দেশ্যে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে যাওয়ার আগে সাংবাদিকদের এক লিখিত বার্তায় তিনি এসব কথা বলেন।
এর আগে বৃহস্পতিবার বিদেশ গমন সংক্রান্ত নথিতে রাষ্ট্রপতির স্বাক্ষরের পর এ সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন জারি করে আইন মন্ত্রণালয়। প্রজ্ঞাপন জারি হওয়ার পরই প্রধান বিচারপতির অস্ট্রেলিয়ার যাওয়ার জন্য প্রস্তুতি নেন।

এদিকে প্রধান বিচারপতির ছুটির মেয়াদ ২ নভেম্বর থেকে দশদিন বৃদ্ধি করা হয়েছে। বর্ধিতকালীন এই সময়ে ভারপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতির দায়িত্ব পালন করবেন আপিল বিভাগের জ্যেষ্ঠ বিচারক বিচারপতি মোহাম্মদ আবদুল ওয়াহ্হাব মিঞা।
প্রসঙ্গত গত ৩ অক্টোবর থেকে পহেলা নভেম্বর পর্যন্ত এক মাসের ছুটিতে যান প্রধান বিচারপতি এসকে সিনহা। এই ছুটির মেয়াদ শেষ না হতেই গত ১০ অক্টোবর ছুটির মেয়াদ বর্ধিত করে রাষ্ট্রপতিকে চিঠি দেন প্রধান বিচারপতি। ওইদিনই সুপ্রিম কোর্ট থেকে একটি চিঠি আইন মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে রাষ্ট্রপতির কাছে পাঠানো হয়। ওই চিঠিতে বলা হয়, বিচারপতি সিনহা দীর্ঘদিন বিচার কাজে থাকায় এবং অবসরগ্রহনের তারিখ নিকটবর্তী হওয়ায় মানসিকভাবে অবসাদগ্রস্থ মর্মে অবগত করেছেন। মানসিক অবসাদ দূর করার জন্য প্রধান বিচারপতি অস্ট্রেলিয়া, কানাডা, যুক্তরাষ্ট্র ও যুক্তরাজ্য গমন ও অবস্থান করতে চান।

এ বিভাগের আরও সংবাদ