ঢাকা রাত ৮:০৪, শুক্রবার, ২রা ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ১৭ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

আসছে ‘ডিজিটাল ওয়ার্ল্ড’

এবার নানা ধরনের নতুন চমক নিয়ে তথ্য-প্রযুক্তি খাতের মেলা ‘ডিজিটাল ওয়ার্ল্ড’ আয়োজনের প্রস্তুতি চলছে বলে জানিয়েছেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক। ‘আগামীর জন্য প্রস্তুত-রেডি ফর টুমরো’ প্রতিপাদ্যে আগামী ৬ ডিসেম্বর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে চারদিনব্যাপী ‘ডিজিটাল ওয়ার্ল্ড ২০১৭’ শুরু হচ্ছে। বৃহস্পতিবার রাজধানীর সফটওয়্যার টেকনোলজি পার্কে এক সংবাদ সম্মেলনে এ আয়োজনের প্রস্তুতির বিভিন্ন দিক তুলে ধরেন প্রতিমন্ত্রী পলক। এবার বিভিন্ন আয়োজনের সঙ্গে নানা চমক থাকছে জানিয়ে তিনি বলেন, “বাংলাদেশের কৃতি সন্তান, বিশ্বখ্যাত এনিমেটর, যিনি দুবার অস্কার পুরস্কার লাভ করার মাধ্যমে বাংলাদেশের নাম বিশ্ব দরবারে উজ্জ্বল করেছেন, নাফিস বিন যাফর এবারের আয়োজনে অংশ নেবেন। এ রকম নানা ধরনের চমক থাকছে এবারের আয়োজনে, নতুন নতুন চমকের জন্য হয়তো আরও কয়েকদিন আপনাদেরকে অপেক্ষা করতে হবে। পলক জানান, ৬ ডিসেম্বর সকালে তথ্য ও প্রযুক্তি খাতের এই উৎসব উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বিদেশি মন্ত্রীদের অংশগ্রহণে ৭ ডিসেম্বর হবে মিনিস্টারিয়েল কনফারেন্স। ৯ ডিসেম্বর অ্যাওয়ার্ড নাইটের মাধ্যমে শেষ হবে প্রযুক্তির এই মিলনমেলা। প্রধানমন্ত্রীর আইসিটি বিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয় মিনিস্টারিয়েল কনফারেন্সে অন্যান্য বারের মত এবারও কি-নোট উপস্থাপন করবেন বলে জানান প্রতিমন্ত্রী। পলক বলেন, এখন পর্যন্ত সৌদি আরব, ফিলিপাইন, আফগানিস্থান, কঙ্গো ও মালদ্বীপের মন্ত্রীরা আনুষ্ঠানিক ও অনানুষ্ঠানিকভাবে মিনিস্টারিয়েল কনফারেন্সে অংশ নেবেন বলে জানিয়েছেন। বাকি সময়ের মধ্যে মোট ১০টি দেশের মন্ত্রীদের অংশগ্রহণের বিষয়টি নিশ্চিত হবে বলে আশা করছেন তিনি।
এক নজরে ডিজিটাল ওয়ার্ল্ড ২০১৭, স্থান : বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্র, ঢাকা। তারিখ ও সময়: ৬-৯ ডিসেম্বর ২০১৭, প্রতিদিন সকাল ৯টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত। আয়োজক: তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগ। বাস্তবায়নে: বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিল, বেসিস এবং এটুআই প্রকল্প। প্রবেশ মূল্য: বিনা মূল্যে। সেমিনার/কর্মশালা/সমাবেশ: প্রদর্শনী, সেমিনার, কর্মশালা, আইটি জব ফেয়ার, সিএক্সও নাইট। সেমিনার/কর্মশালার বক্তা: দেশি-বিদেশি প্রায় ২০০ জন। প্রদর্শনকারী প্রতিষ্ঠানের সংখ্যা : ৪০টি মন্ত্রণালয়/বিভাগ, শতাধিক বেসরকারি ও আন্তর্জাতিক স্টল। উল্লেখযোগ্য আয়োজন : ১. স্টার্টআপ বাংলাদেশ জোন, মোবাইল ইনোভেশন জোন, ই-কমার্স জোন, এক্সপেরিয়েন্স জোন, মেড ইন বাংলাদেশ জোন এবং ইন্টারন্যাশনাল জোন। ২. সেমিনার, টেকনিক্যাল সেশন, সিইও নাইট ও অ্যাওয়ার্ড নাইট। শীর্ষস্থানীয় প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানের দেশি-বিদেশি দুই শতাধিক বক্তা প্রায় ২৯টি সেমিনারে অংশ নেবে জানিয়ে পলক বলেন, ‘গুগল, ফেইসবুক, নুয়ান্স কমিউনিকেশন, মটোরোলা, কোয়ালকম, টাই সিঙ্গাপুর ও হংকং এর কর্তাব্যক্তিরা এই আয়োজনে অংশ নেবে।’ স্কুল, কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের নিয়ে আইটি ক্যারিয়ার-ক্যাম্পের পাশাপাশি উন্নয়ন সহযোগীদের নিয়ে থাকবে ডেভেলপারস কনফারেন্স। প্রযুক্তি প্রেমীদের চাহিদা মেটাতে সফটওয়্যার শোকেসিং, ই-গভর্নেন্স এক্সপো, স্টার্টআপ বাংলাদেশ জোন, মোবাইল ইনোভেশন জোন, ই-কমার্স জোন, এক্সপেরিয়েন্স জোন, মেড ইন বাংলাদেশ জোন এবং ইন্টারন্যাশনাল জোন ছাড়াও আইসিটি সংশ্লিষ্ট বেশ কিছু প্রদর্শনী অনুষ্ঠিত হবে বলে জানান প্রতিমন্ত্রী। মেলা চলাকালীন প্রতিদিন সকাল ১০ থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত সম্পূর্ণ বিনামূল্যে সবার প্রবেশাধিকার উম্মুক্ত থাকবে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুক অথবা ডিজিটাল ওয়ার্ল্ড এর অফিসিয়াল ওয়েবসইট িি.িফরমরঃধষড়িৎষফ.ড়ৎম.নফ- এর মাধ্যমে মেলায় প্রবেশের জন্য আগাম রেজিস্ট্রেশন করার সুযোগ রয়েছে। গুগল প্লে-স্টোরে ডিজিটাল ওয়ার্ল্ড ২০১৭’ এর মোবাইল অ্যাপ অবমুক্ত করা হয়েছে জানিয়ে পলক বলেন, মেলার সকল সেমিনার ও জোনের কর্মকা- অনলাইনে প্রচার করা হবে। নেওয়া হবে বিশেষ নিরাপত্তা ব্যবস্থা। ওয়েবসাইট ও অ্যাপে আপডেট থাকবে প্রতিদিনের সংবাদ বিজ্ঞপ্তি ও ছবি। মেলা সম্পর্কে আপডেট থাকতে চোখ রাখতে পারবেন ফেইসবুক পেইজ-www.facebook.com/DigitalWorldBangladesh এবং ফেইজবুক ইভেন্ট- www.facebook com/events/513624078991163 .সংবাদ সম্মেলনে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের সচিব সুবীর কিশোর চৌধুরীসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

এ বিভাগের আরও সংবাদ