ঢাকা সকাল ৭:০৬, বুধবার, ১লা ডিসেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ১৬ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

ঝিনাইদহ আ’লীগের বর্ধিত সভায় বাহাউদ্দীন নাসিম

“সাম্প্রদায়িক হাঙ্গামা সৃষ্টি করে ওরা দেশকে দ্বিধাবিভক্ত করতে চাইছে”

আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক কৃষিবিদ আ.ফ.ম বাহাউদ্দীন নাসিম বলেছেন, অপশক্তিরা দেশ থেকে নিঃশেষ হয়ে যায়নি। তারা এখনও টিকে রয়েছে এবং বাংলাদেশ বিরোধী ষড়যন্ত্র করে যাচ্ছে। তবে আওয়ামী লীগ ঐক্যবদ্ধ থাকলে তারা কোন দিন সফল হবে না। তিনি গতকাল ঝিনাইদহ শিল্পকলা একাডেমী মিলনায়তনে জেলা আওয়ামী লীগের বিশেষ বর্ধিতসভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এ কথা বলেন।

বাহাউদ্দীন নাসিম আরো বলেন, বিদেশে বসে মিথ্যা অপপ্রচার তথ্য সন্ত্রাসের শামিল। এই তথ্যসন্ত্রাস ও মির্জা ফখরুলদের অপপ্রচার সাম্প্রদায়িক হামলাকারীদের রক্ষা করার একটি অপকৌশল মাত্র। তিনি বলেন, সেনা ছাউনিতে যে অবৈধ রাজনৈতিক দলের জন্ম হয়েছিল তাদের সাথে আওয়ামী লীগের কোন তুলনা করা যাবে না। আওয়ামী লীগই দেশের একমাত্র গণতান্ত্রিক দল যাদের গঠনতন্ত্র আছে। তিনি বলেন, বিএনপি-জামায়াত যারা বাংলাদেশে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির উপরে আঘাত হানলো। আজকে শারদীয় দুর্গোৎসবকে ঘিরে অপপ্রচার করে, তথ্যসন্ত্রাস করে, দেশে-বিদেশে বসে তথ্যসন্ত্রাস করে সাম্প্রদায়িক সন্ত্রাস সৃষ্টি করে উল্টো দোষ দেয় সরকারের। আসলে এটা তাদের অপপ্রচার। তিনি প্রশ্ন রেখে বলেন, মির্জা ফখরুল ইসলাম কাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ দেন? মির্জা ফখরুলদের এই অপপ্রচার সাম্প্রদায়িক সন্ত্রাসদের রক্ষা করার একটি কৌশল মাত্র। তৃণমুল নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম বলেন, দেশ যখন এগিয়ে যাচ্ছে তখন সাম্প্রদায়িক হামলার মধ্য দিয়ে ওরা দ্বিধাবিভক্ত করতে চাইছে। তাই বিএনপির এই অপরাজনীতির বিরুদ্ধে আপনাদের সজাগ থাকতে হবে। আপনারাই এ দেশের আসল মালিক।

আপনারাই হলেন আসল পাহারাদার। ঝিনাইদহ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সাংসদ আব্দুল হাই এমপির সভাপতিত্বে বর্ধিত সভায় প্রধান বক্তা হিসাবে উপস্থিত ছিলেন, আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক বিএম মোজাম্মেল হক, বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন, কেন্দ্রীয় সদস্য অ্যাডঃ আমিরুল আলম মিলন এমপি ও পারভীন জামান কল্পনা। জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সদর পৌর মেয়র সাইদুল করিম মিন্টুর পরিচালনায় বক্তব্য রাখেন, জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি সফিকুল ইসলাম অপু, সাবেক সাধারণ সম্পাদক অ্যাডঃ আজিজুর রহমান, তৈয়ব আলী জোয়ার্দার, আব্দুল খালেক, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান কনক কান্তি দাস, ঝিনাইদহ-৩ আসনের সাংসদ অ্যাডঃ শফিকুল আজম খান চঞ্চল এমপি, কালীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সাংসদ আনোয়ারুল আজিম আনার এমপি ও সংরক্ষিত মহিলা আসনের সংসদ সদস্য খালেদা খানম। বর্ধিত সভায় জেলা আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ, ৬টি উপজেলা, পৌর ও বিভিন্ন ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি সাধারণ সম্পাদকরা উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্টানে প্রধান বক্তা বিএম মোজাম্মেল হক বলেন, আওয়ামী লীগ ঐক্যবদ্ধ থাকলে কোন অপশক্তিই সফল হবে না। কাজেই নিজেদের মধ্যে দ্বন্দ না রেখে সবাই এক হয়ে এই অপশক্তির বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াতে হবে। অনুষ্ঠানকে ঘিরে সারা শহর বিশেষ নিরাপত্তা বলয় গড়ে তোলে পুলিশ। সকাল থেকেই সভাস্থালে জেলার নানা প্রান্ত থেকে নেতাকর্মীরা ব্যানার, ফেস্টুন ও প্লাকার্ড নিয়ে আসতে থাকে। নেতাকর্মীদের শ্লোগান ও মুর্হুমুহু শ্লোগানে শহর প্রকম্পিত হয়ে ওঠে।

বিজনেস বাংলাদেশ/ এ আর

এ বিভাগের আরও সংবাদ