০১:৪৬ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই ২০২৪

হরিরামপুরে বনবিভাগের শতাধিক গাছ ভূষ্মিভূত, ঘটনাস্থল পরিদর্শন করলেন ইউএনও

মানিকগঞ্জের হরিরামপুরে বনবিভাগের শতাধিক গাছ ভূষ্মিভূত হয়েছে বলে জানা গেছে। গত ২৭ ও ২৯ জানুয়ারি উপজেলার হারুকান্দি ইউনিয়নের নারায়নকান্দি চরে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় রবিবার ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. শাহরিয়ার রহমান ও উপজেলা বনবিভাগের কর্মকর্তা মো. মোশারফ হোসেন।

জানা যায়, হারুকান্দির চরাঞ্চলের তিন কিলোমিটার জুড়ে বনবিভাগের রোপনকৃত রাস্তার দু’ধারে তিন হাজারের বেশি গাছ রয়েছে। গত সপ্তাহে নারায়নকান্দি থেকে গরীবপুর গুচ্ছ গ্রাম সড়কের জারুল, কড়ই, মেহেগনি, বাবলা, কদমসহ পর পর দুই দিনে প্রায় ১২৭ টি গাছ পুড়িয়ে দেওয়া হয়েছে বলে বনবিভাগ সূত্রে জানা যায়।

এ ব্যাপারে বনবিভাগের কর্মকর্তা মো. মোশারফ হোসেন জানান, “ঘটনার তদন্ত চলছে। আমরা দোষীদের বের করারচেষ্টা করছি। তবে খুব দ্রুতই আমরা মামলা করব।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. শাহরিয়ার রহমান জানান, “বনবিভাগের গাছ পোড়ানোর খবর পেয়ে আমি ঘটনাস্থল পরিদর্শনে গিয়েছিলাম। স্থানীয় লোকজনের সাথে কথা বলেছি। ঘটনার সাথে কে বা কারা জড়িত, স্থানীয়রা কিছু বলতে পারেনি। তবে বনবিভাগকে মামলা করার পরামর্শ দিয়েছি।”

বিজনেস বাংলাদেশ/ হাবিব

শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তা নিশ্চিতের আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর

হরিরামপুরে বনবিভাগের শতাধিক গাছ ভূষ্মিভূত, ঘটনাস্থল পরিদর্শন করলেন ইউএনও

প্রকাশিত : ১২:১৬:৩৮ অপরাহ্ন, সোমবার, ৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৩

মানিকগঞ্জের হরিরামপুরে বনবিভাগের শতাধিক গাছ ভূষ্মিভূত হয়েছে বলে জানা গেছে। গত ২৭ ও ২৯ জানুয়ারি উপজেলার হারুকান্দি ইউনিয়নের নারায়নকান্দি চরে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় রবিবার ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. শাহরিয়ার রহমান ও উপজেলা বনবিভাগের কর্মকর্তা মো. মোশারফ হোসেন।

জানা যায়, হারুকান্দির চরাঞ্চলের তিন কিলোমিটার জুড়ে বনবিভাগের রোপনকৃত রাস্তার দু’ধারে তিন হাজারের বেশি গাছ রয়েছে। গত সপ্তাহে নারায়নকান্দি থেকে গরীবপুর গুচ্ছ গ্রাম সড়কের জারুল, কড়ই, মেহেগনি, বাবলা, কদমসহ পর পর দুই দিনে প্রায় ১২৭ টি গাছ পুড়িয়ে দেওয়া হয়েছে বলে বনবিভাগ সূত্রে জানা যায়।

এ ব্যাপারে বনবিভাগের কর্মকর্তা মো. মোশারফ হোসেন জানান, “ঘটনার তদন্ত চলছে। আমরা দোষীদের বের করারচেষ্টা করছি। তবে খুব দ্রুতই আমরা মামলা করব।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. শাহরিয়ার রহমান জানান, “বনবিভাগের গাছ পোড়ানোর খবর পেয়ে আমি ঘটনাস্থল পরিদর্শনে গিয়েছিলাম। স্থানীয় লোকজনের সাথে কথা বলেছি। ঘটনার সাথে কে বা কারা জড়িত, স্থানীয়রা কিছু বলতে পারেনি। তবে বনবিভাগকে মামলা করার পরামর্শ দিয়েছি।”

বিজনেস বাংলাদেশ/ হাবিব